রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২, ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০২:২৭ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ আ’লীগ নেতা সৈয়দ মাসুদুল হক টুকুর পিতার ২১ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ◈ ঘাটাইল আশ্রয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক ◈ শীতার্তদের মুখে হাসি ফোটালেন সিদ্ধিরগঞ্জ মানব কল্যাণ সংস্থা ◈ হরিরামপুরে স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে বন্ধে স্ত্রীর অনশন ◈ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গরীব-দুঃখীদের পাশে রয়েছেন সাবেক সিনিয়র সচিব সাজ্জাদুল হাসান… ◈ কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর করোনা এক্সপার্ট টিমের কম্বল বিতরণ ◈ পেইড পিয়ার ভলান্টিয়ারদের চাকরী স্থায়ীকরণের দাবিতে মানববন্ধন ◈ ফুলবাড়ীতে শীতার্তাদের মাঝে ডিয়ার এক্স টিমের শীতবস্ত্র বিতরণ ◈ রানীরবন্দর রুপালী ব্যাংক লিঃ ব্যবস্থাপকের বিদায় ও বরণ ◈ শার্শায় বাইক ছিনতাই করে চালককে হত্যায় জড়িত ৩ আসামী আটক

মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করে আধুনিক রাজধানী উপহার দিতে চাই

প্রকাশিত : ০৫:২০ PM, ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ রবিবার ৯১৮ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

ঢাকা দক্ষিণ সিটি থেকে নির্বাচনে মেয়র পদে লড়তে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। নির্বাচন প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমাদের রাজনৈতিক আদর্শ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের যে রূপকল্প দিয়েছেন এবং ২০৪১ সালে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে উপহার দেওয়ার আকাক্সক্ষা নিয়ে জাতি কাজ করে চলেছে সেখানে আমি মনে করি, রাজধানী হিসেবে ঢাকাকে উন্নতভাবে প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন। সে জন্যই মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করে আধুনিক রাজধানী শহর উপহার দিতে চাই।

তিনি বলেন, আমি ঢাকা-১০ আসনে আমার দুই মেয়াদে কাজ করেছি এবং এ মেয়াদের কাজ করছি। কিন্তু আমরা যে পরিকল্পনাগুলো নিয়ে এলাকাকে সাজিয়ে তুলব সেটা কিন্তু আমাদের বহুলাংশেই সিটি করপোরেশনসহ অন্য সংস্থার ওপর নির্ভর করতে হয়। জনগণের ইচ্ছা বা আমার পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করতে গিয়ে বারবার হতাশ হয়েছি। এসব চিন্তাভাবনা থেকেই নগরবাসীর জন্য বৃহত্তর পরিসরে কাজ করতে চাই। আসন্ন নির্বাচনে আমার দল এবং জনগণ যদি মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি আগামী দিনে নগরবাসীর জন্য আধুনিক নগর হিসেবে উপহার দিতে চাই।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও নগরবাসী এখনও কেন মৌলিক সুবিধাগুলো পাচ্ছেন না এটা আমাকে খুবই পীড়া দিয়েছে। এ জায়গা থেকে এ চিন্তা এসেছে এবং যদি নগরবাসী আমাকে এ রূপ মহান একটি দায়িত্ব দেয় তাহলে আমি সে দায়িত্ব চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেব। এ ক্ষেত্রে আমার সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রথম প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক। আমি দায়িত্ব পেলে নগরবাসীকে সে রকম একটা সিটি উপহার দেব।

তার সাক্ষাৎকারের বিস্তারিত অংশ তুলে ধরা হলো
‍আলোকিত সকাল : মেয়র নির্বাচিত হলে ঢাকা নগরবাসীর উন্নয়নের জন্য কী কী করবেন?
শেখ ফজলে নূর তাপস : রাজধানী ঢাকার মানুষরা এখনও ন্যূনতম নাগরিক সেবা পান না। এই বিষয়টি আমাকে দারুণভাবে পীড়া দিচ্ছে। ঢাকার মানুষের মৌলিক সুবিধা নিশ্চিত করার পাশাপাশি নগর পরিকল্পনাবিদদের সমন্বয়ে ২০৪১ সালকে কেন্দ্র করে ৩০ বছরের দীর্ঘমেয়াদি একটি মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করব। সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করলে অল্প সময়ের মধ্যেই পরিবর্তন আনা সম্ভব।

‍আলোকিত সকাল: রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার উন্নয়নে কোনো পরিকল্পনা গ্রহণ করবেন কি না?
শেখ ফজলে নূর তাপস : রাজধানীর পুরান ঢাকার উন্নয়নে আমার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকবে। আমাদের খ্যাতনামা অনেক নগর মহাপরিকল্পনাবিদ রয়েছেন, তাদের সমন্বয়ে এবং মতামতের ভিত্তিতে ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকাকে নিয়ে একটি মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করব। আমাদের ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন যেসব এলাকা নিয়ে গঠিত তার মধ্যে অধিকাংশ এলাকাই দুটি প্রধান নদীর অববাহিকায়। আমরা বিদেশ গিয়ে দেখি, একটি নদীর পাদদেশে শহরগুলো কত সুন্দরভাবে সুসজ্জিত।

সুতরাং আমি বিশ্বাস করি যে, এসব নদীকে ব্যবহার করে, নদীগুলোকে বাঁচিয়ে রেখে পুরাতন ঢাকার ঐতিহ্য এবং এর স্বকীয়তা বজায় রেখে পুরান ঢাকাকে আবার স্বমহিমায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব। এরকম একটি মহাপরিকল্পনা আমরা গ্রহণ করব।
আমি মনোনয়ন নেওয়ার পর থেকেই এসব বিষয় নিয়ে কাজ করছি। এখানে প্রথম যে কাজটি হবে মৌলিক নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা, এখানে ব্যবস্থাপনা একটি বড় বিষয়। সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা থাকলে বড় কিছু করা সম্ভব। যেমন মশক নিধন অর্থাৎ ডেঙ্গু যে মহামারী আকার ধারণ করেছে এটা যদি সময়মতো ব্যবস্থা নেওয়া হতো তাহলে এরূপ অবস্থা হতো না। আমি যদি নির্বাচিত হই, বর্ষা মৌসুম আসার আগেই প্রজননগুলো ধ্বংস করার জন্য সঠিক পরিকল্পনা ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এডিস মশা নির্মূল করব।

‍আলোকিত সকাল: আবাসিক এলাকায় কেমিক্যাল শিল্প হস্তান্তরে যে পরিকল্পনা হয়েছে সেটা সাবেক মেয়র কিন্তু বাস্তবায়ন করতে পারেননি এ ক্ষেত্রে আপনার পরিকল্পনা কিংবা মন্তব্য বলুন?
শেখ ফজলে নূর তাপস : রাজধানীতে অনেক বিষয়েরই সমাধান হয়নি যদিও আমাদের সরকার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। বিশেষ করে আবাসিক এলাকায় কেমিক্যালের ফ্যাক্টরিগুলো রাখা হয়েছে বা গোডাউন রয়েছে সেগুলো স্থানান্তরের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে কিন্তু কোনোটাই বাস্তবায়ন এখন পর্যন্ত হয়নি। এটা নিয়েও আমি কাজ করব।

‍আলোকিত সকাল: নগরবাসীর যানজটের সমস্যার এখনও কিন্তু সমাধান হয়নি। সে সঙ্গে জলাবদ্ধতা, বায়ুদূষণ, গ্যাস সঙ্কট ও শব্দদূষণও প্রধান সমস্যা। এসব সমস্যা নিরসনেও আপনার কোনো পরিকল্পনা আছে কি না?
শেখ ফজলে নূর তাপস : রাজধানীবাসীর জন্য যানজট একটি প্রধান সমস্যা। যানজট নিরসনের ক্ষেত্রে কাজ করারও একটা সুযোগ রয়েছে। এখানেও সাবেক প্রয়াত মেয়রের পরিকল্পনাগুলো প্রশংসনীয়। এ ছাড়াও উন্নত দেশের মতো সবুজায়ন এবং পরিবেশবান্ধব একটি সবুজ নগরী তৈরি করব যেখানে বায়ূদূষণ থাকবে না এবং যদি পরিকল্পিতভাবে যানজটের জন্য পদক্ষেপ নিতে পারি তাহলে যানজটও থাকবে না, শব্দদূষণ হবে না। এক কথায় উন্নত দেশের শহরগুলোর মতো নানা পরিকল্পনা বাস্তবায়নে দ্রুতগতিতে যানজট, বায়ুদূষণ এবং শব্দদূষণ প্রতিরোধ করে নগরবাসীকে আধুনিক শহর হিসেবে উপহার দিতে চাই।

‍আলোকিত সকাল: এসব সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সমন্বয়ের অভাব রয়েছে এবং এগুলো নাকি সিটি করপোরেশনের বাইরে। তাই পরিকল্পিত নগরী তৈরিতে প্রতিষ্ঠানগুলোকে একীভ‚ত করা কী আপনার পক্ষে সম্ভব হবে?
শেখ ফজলে নূর তাপস : আইনে আমি দেখেছি সব সংস্থা সিটি করপোরেশনের কাছে দায়বদ্ধ। সুতরাং সিটি করপোরেশন যদি তার কার্যাবলিগুলো সুষ্ঠুভাবে করে, তাদের বাধ্য করে এবং সমন্বয়ের মাধ্যমে করতে তাহলে সংস্থাগুলো করতে বাধ্য হবে। এখানে সিটি করপোরেশন সুষ্ঠুভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারছে না যার কারণেই যত্রতত্রভাবেই যে যার মতো কাজ করে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে আমার প্রথম কাজই হবে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা।

‍আলোকিত সকাল: ডেঙ্গু নিরসনে শতাধিক লোক মারা গেছে সেখানে কিন্তু মেয়র সাহেবকে কেউ কাঁদতে দেখেনি কিন্তু ক্ষমতায় আসার জন্য সম্প্রতি মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে তাকে কাঁদতে দেখা গেছে? এ বিষয়ে আপনার ব্যক্তিগত মন্তব্য বলুন, প্লিজ?
শেখ ফজলে নূর তাপস : এ বিষয়ে আমি মন্তব্য করব না। এটা ওনার ব্যক্তিগত বিষয়। তবে আমি যদি সুযোগ পাই, দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় এবং জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে তাহলে এ ক্ষেত্রে এর পুনরাবৃত্তি যেন আর না হয় তার জন্য আমি নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব। যদি নির্বাচিত হই এবং শপথ গ্রহণের প্রথম দিন হতেই কাজ করব। কারণ এমন সময় যে নির্বাচন হবে তার কিছুদিন পরই গ্রীষ্ম এবং বর্ষা আসবে সুতরাং একটা বড় ধরনেরই ধাক্কা আসবে।

‍আলোকিত সকাল: ইতোমধ্যেই দল থেকে আরেকজনকে নাকি মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে এমন গুঞ্জন রয়েছে। মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে কি না? দল থেকে সিগনাল পেয়েই কি মনোনয়নপত্র নিয়েছেন? মনোনয়ন না পেলে দলের বাইরে বা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন কি না?

শেখ ফজলে নূর তাপস : আমি আমার রাজনৈতিক চেতনা থেকেই দলীয় মনোনয়ন চেয়েছি। এর বাইরে যাওয়ার কোনো অবকাশ নেই। দল যদি আমাকে যোগ্য এবং দক্ষ মনে করে যে আমি কাজগুলো সম্পন্ন করতে পারব, জননেত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারব তাহলে আমাকেই দেবে। না দিলে হয়তো যাকে দেওয়া হবে সে যোগ্য বলেই তাকে দেওয়া হবে। তবে কেউ যদি ইতোমধ্যে বলে থাকেন যে দল থেকে সিগনাল পেয়েছেন সে ক্ষেত্রে আমার কোনো মন্তব্য নেই।

‍আলোকিত সকাল: নির্বাচিত হলে সিটি করপোরেশনকে কীভাবে দেখব এক কথায় আপনার মন্তব্য বলুন?
শেখ ফজলে নূর তাপস : দলের মনোনয়ন যদি পাই এবং জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে বিশেষজ্ঞদের নিয়ে আগামী এক বছরের মধ্যেই গুণগত পরিবর্তন করে এবং শপথ গ্রহণের পর থেকেই সম্পূর্ণ দুর্নীতিমুক্ত সংস্থা গড়ার লক্ষ্যে আত্মনিয়োগ করব।
‍আলোকিত সকাল: গুরুত্বপূর্ণ সময় দেওয়ার জন্য সময়ের আলোর পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ।
শেখ ফজলে নূর তাপস : আপনাকেও ধন্যবাদ, সে সঙ্গে পত্রিকার পরিবারকেও।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT