ঢাকা ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরকার রক্ত ঝরানোর খেলায় উন্মাদ হয়ে উঠেছে: মির্জা ফখরুল।

ক্ষমতার নড়বড়ে অবস্থা অনুধাবন করেই আওয়ামী সরকার রক্ত ঝরানোর খেলায় উন্মাদ হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে গিয়ে সরকার নিজ দলের সন্ত্রাসীদের দিয়ে বিরোধী মত ও বিশ্বাসের মানুষকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ কর্মী সভায় যাওয়ার পথে বিএনপির ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের গাড়িবহরে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে। শুধু তাই নয়, কৃষকদলের সহ-সভাপতি আবুল বাশার আকন্দের গাড়িসহ অন্যান্য নেতাদের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও নেতা-কর্মীদের আহত করা হয়েছে। শেরপুরে নেতা-কর্মীদের ওপর সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে তাদের আহত করাসহ মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মির্জা ফখরুলের দাবি, ময়মনসিংহের ফুলপুরে দক্ষিণ জেলা যুবদলের সভাপতি রোকনুজ্জামান সরকার, উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি শামসুল হক, উত্তর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সালমান ডুনন, সাধারণ সম্পাদক রায়হান শরীফ হলুদ, যুগ্ম সম্পাদক ফারুক হোসাইন, জেলা বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম ভূঁইয়া মনিকে আহত করেছে আওয়ামী দুষ্কৃতিকারীরা। আবার তাদের নাম উল্লেখ করে ৩০-৩৫ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয়েছে ময়মনসিংহ উত্তর জেলা কৃষকদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াজেদুল ইসলামকে।

এসব ঘটনা বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর চলমান জুলুম-নির্যাতনের খণ্ডচিত্র বলেও উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব।

Tag :
জনপ্রিয়

নির্বাচিত হলে ১৩নং ওয়ার্ড বাসীর জন্য এ্যাম্বুলেন্স উপহার দিব; রসিকের কাউন্সিলর প্রার্থী তুহিন

সরকার রক্ত ঝরানোর খেলায় উন্মাদ হয়ে উঠেছে: মির্জা ফখরুল।

প্রকাশের সময় : ০৬:০৬:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

ক্ষমতার নড়বড়ে অবস্থা অনুধাবন করেই আওয়ামী সরকার রক্ত ঝরানোর খেলায় উন্মাদ হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে গিয়ে সরকার নিজ দলের সন্ত্রাসীদের দিয়ে বিরোধী মত ও বিশ্বাসের মানুষকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ কর্মী সভায় যাওয়ার পথে বিএনপির ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের গাড়িবহরে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে। শুধু তাই নয়, কৃষকদলের সহ-সভাপতি আবুল বাশার আকন্দের গাড়িসহ অন্যান্য নেতাদের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও নেতা-কর্মীদের আহত করা হয়েছে। শেরপুরে নেতা-কর্মীদের ওপর সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে তাদের আহত করাসহ মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মির্জা ফখরুলের দাবি, ময়মনসিংহের ফুলপুরে দক্ষিণ জেলা যুবদলের সভাপতি রোকনুজ্জামান সরকার, উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি শামসুল হক, উত্তর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সালমান ডুনন, সাধারণ সম্পাদক রায়হান শরীফ হলুদ, যুগ্ম সম্পাদক ফারুক হোসাইন, জেলা বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম ভূঁইয়া মনিকে আহত করেছে আওয়ামী দুষ্কৃতিকারীরা। আবার তাদের নাম উল্লেখ করে ৩০-৩৫ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয়েছে ময়মনসিংহ উত্তর জেলা কৃষকদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াজেদুল ইসলামকে।

এসব ঘটনা বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর চলমান জুলুম-নির্যাতনের খণ্ডচিত্র বলেও উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব।