ঢাকা ০১:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনের রুশ-অধিকৃত এলাকায় নাগরিক অধিকার দমন করা হয়েছে : জাতিসঙ্ঘ

জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, সমাবেশ এবং অন্যান্য নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার ক্রাইমিয়াসহ ইউক্রেনের রুশ-অধিকৃত এলাকায় সীমিত।

মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় ইউক্রেনের পরিস্থিতি সম্পর্কে তার সর্বসাম্প্রতিক প্রতিবেদন জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে জমা দিয়েছে।

জুলাইয়ে তাদের প্রতিবেদন সর্বশেষ হালনাগাদ করার পর থেকে, জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা ইউক্রেনের যুদ্ধে নাটকীয়ভাবে ধ্বংসযজ্ঞ বৃদ্ধির খবর দিয়েছেন। তারা বেসামরিক অবকাঠামোর ব্যাপক ধ্বংসের খবর নথিভুক্ত করেন এবং বিস্ফোরক অস্ত্র ব্যবহার করে জনবহুল এলাকায় রুশ হামলায় বেসামরিক হতাহতের খবর জানিয়েছেন। রাশিয়া বেসামরিক নাগরিকদের টার্গেট করার কথা অস্বীকার করেছে।

জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা বলছেন যে নির্যাতন ও দুর্ব্যবহার এবং বেসামরিক ও যুদ্ধবন্দী উভয়েরই জোরপূর্বক নিখোঁজ হওয়ার খবর আসা অব্যাহত রয়েছে। তারা আরো বলেছে যে কিছু মানবাধিকার লঙ্ঘন যুদ্ধাপরাধের সমান হতে পারে।

প্রতিবেদনে দেখা গেছে, বেসামরিক নাগরিকরা ক্রমাগত শত্রুতার শিকার হচ্ছেন। নথিভুক্ত করা হয়েছে যে ৬ হাজার ১১৪ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং ৯০০০ -এরও বেশি আহত হয়েছেন। তবে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে যে প্রকৃত পরিসংখ্যান যথেষ্ট বেশি হতে পারে।

ফিল্ড অপারেশনস অ্যান্ড টেকনিক্যাল কোঅপারেশন ডিভিশনের ডিরেক্টর ক্রিশ্চিয়ান সালাজার ভলকম্যান বলেছেন, জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা জানিয়েছেন যে মতামত, মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অধিকারগুলো রুশ ফেডারেশনের দখলকৃত বা রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী এবং অধিভুক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ইউক্রেনীয় টেলিভিশন চ্যানেল এবং রেডিও স্টেশনগুলোর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে এবং রুশ ফেডারেশন বা স্বঘোষিত প্রজাতন্ত্রের চ্যানেলগুলো প্রতিস্থাপন হয়েছে।
সূত্র : ভয়েস অফ আমেরিকা

Tag :
জনপ্রিয়

বোমা ফেলে থামানোর চেষ্টা বিশ্বের বৃহত্তম জীবন্ত আগ্নেয়গিরির লাভাস্রোত!

ইউক্রেনের রুশ-অধিকৃত এলাকায় নাগরিক অধিকার দমন করা হয়েছে : জাতিসঙ্ঘ

প্রকাশের সময় : ০৫:৩০:৪৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, সমাবেশ এবং অন্যান্য নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার ক্রাইমিয়াসহ ইউক্রেনের রুশ-অধিকৃত এলাকায় সীমিত।

মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় ইউক্রেনের পরিস্থিতি সম্পর্কে তার সর্বসাম্প্রতিক প্রতিবেদন জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে জমা দিয়েছে।

জুলাইয়ে তাদের প্রতিবেদন সর্বশেষ হালনাগাদ করার পর থেকে, জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা ইউক্রেনের যুদ্ধে নাটকীয়ভাবে ধ্বংসযজ্ঞ বৃদ্ধির খবর দিয়েছেন। তারা বেসামরিক অবকাঠামোর ব্যাপক ধ্বংসের খবর নথিভুক্ত করেন এবং বিস্ফোরক অস্ত্র ব্যবহার করে জনবহুল এলাকায় রুশ হামলায় বেসামরিক হতাহতের খবর জানিয়েছেন। রাশিয়া বেসামরিক নাগরিকদের টার্গেট করার কথা অস্বীকার করেছে।

জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা বলছেন যে নির্যাতন ও দুর্ব্যবহার এবং বেসামরিক ও যুদ্ধবন্দী উভয়েরই জোরপূর্বক নিখোঁজ হওয়ার খবর আসা অব্যাহত রয়েছে। তারা আরো বলেছে যে কিছু মানবাধিকার লঙ্ঘন যুদ্ধাপরাধের সমান হতে পারে।

প্রতিবেদনে দেখা গেছে, বেসামরিক নাগরিকরা ক্রমাগত শত্রুতার শিকার হচ্ছেন। নথিভুক্ত করা হয়েছে যে ৬ হাজার ১১৪ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং ৯০০০ -এরও বেশি আহত হয়েছেন। তবে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে যে প্রকৃত পরিসংখ্যান যথেষ্ট বেশি হতে পারে।

ফিল্ড অপারেশনস অ্যান্ড টেকনিক্যাল কোঅপারেশন ডিভিশনের ডিরেক্টর ক্রিশ্চিয়ান সালাজার ভলকম্যান বলেছেন, জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকরা জানিয়েছেন যে মতামত, মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অধিকারগুলো রুশ ফেডারেশনের দখলকৃত বা রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী এবং অধিভুক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ইউক্রেনীয় টেলিভিশন চ্যানেল এবং রেডিও স্টেশনগুলোর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে এবং রুশ ফেডারেশন বা স্বঘোষিত প্রজাতন্ত্রের চ্যানেলগুলো প্রতিস্থাপন হয়েছে।
সূত্র : ভয়েস অফ আমেরিকা