ঢাকা ০৩:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইয়েমেন ও সৌদির মধ্যে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ যেকোনো সময় শুরু হতে পারে সংঘাত, হতাশ জাতিসঙ্ঘ

ইয়েমেন ও সৌদি আরব নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক।

গতকাল (মঙ্গলবার) নিউ ইয়র্কে জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘দুই পক্ষ নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়নি, তবে এখনো আলোচনা শেষ হয়ে যায়নি। দুই পক্ষ এখনো আলোচনা চালাচ্ছে যাতে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো যায় এবং এ ব্যাপারে মধ্যস্থতা করছেন ইয়েমেন বিষয়ক জাতিসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি হ্যান্স গ্রান্ডবার্গ।

জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের মুখপাত্র ডুজারিক ইয়েমেন এবং সৌদি আরব- দু পক্ষকেই যেকোনো ধরনের উসকানিমূলক তৎপরতা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, সামান্য উসকানি থেকেই বড় রকমের সহিংসতা শুরু হতে পারে অথচ দু পক্ষই শান্তি চায়।

ডুজারিক আরো বলেন, যুদ্ধবিরতির মেয়াদ না বাড়ানোর কারণে জাতিসঙ্ঘ হতাশ হলেও আমরা বিশ্বাস করি যে, এখানেই রাস্তার প্রান্ত সীমা নয় বরং যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সামনে আরো সময় রয়েছে।

গত এপ্রিল মাসে সর্বপ্রথম জাতিসঙ্ঘের মধ্যস্থতায় ইয়েমেন এবং সৌদি আরবের মধ্যে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠিত হয় যার মেয়াদ জুন মাসে দ্বিতীয় দফায় বাড়ানো হয়। সর্বশেষ যুদ্ধবিরতির মেয়াদ গত রোববার শেষ হয়ে গেছে। এখন যদি দ্রুতই নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো না যায় তাহলে যেকোনো সময় সংঘাত শুরু হতে পারে যার প্রধান শিকার হবে দুই পক্ষের সাধারণ মানুষ।
সূত্র : পার্সটুডে

Tag :
জনপ্রিয়

আগামী বছর থেকে বিদ্যুৎ সংকট অনেকটাই কেটে যাবে: জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

ইয়েমেন ও সৌদির মধ্যে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ যেকোনো সময় শুরু হতে পারে সংঘাত, হতাশ জাতিসঙ্ঘ

প্রকাশের সময় : ০৫:০৭:২৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

ইয়েমেন ও সৌদি আরব নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক।

গতকাল (মঙ্গলবার) নিউ ইয়র্কে জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘দুই পক্ষ নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়নি, তবে এখনো আলোচনা শেষ হয়ে যায়নি। দুই পক্ষ এখনো আলোচনা চালাচ্ছে যাতে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো যায় এবং এ ব্যাপারে মধ্যস্থতা করছেন ইয়েমেন বিষয়ক জাতিসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি হ্যান্স গ্রান্ডবার্গ।

জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের মুখপাত্র ডুজারিক ইয়েমেন এবং সৌদি আরব- দু পক্ষকেই যেকোনো ধরনের উসকানিমূলক তৎপরতা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, সামান্য উসকানি থেকেই বড় রকমের সহিংসতা শুরু হতে পারে অথচ দু পক্ষই শান্তি চায়।

ডুজারিক আরো বলেন, যুদ্ধবিরতির মেয়াদ না বাড়ানোর কারণে জাতিসঙ্ঘ হতাশ হলেও আমরা বিশ্বাস করি যে, এখানেই রাস্তার প্রান্ত সীমা নয় বরং যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সামনে আরো সময় রয়েছে।

গত এপ্রিল মাসে সর্বপ্রথম জাতিসঙ্ঘের মধ্যস্থতায় ইয়েমেন এবং সৌদি আরবের মধ্যে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠিত হয় যার মেয়াদ জুন মাসে দ্বিতীয় দফায় বাড়ানো হয়। সর্বশেষ যুদ্ধবিরতির মেয়াদ গত রোববার শেষ হয়ে গেছে। এখন যদি দ্রুতই নতুন করে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো না যায় তাহলে যেকোনো সময় সংঘাত শুরু হতে পারে যার প্রধান শিকার হবে দুই পক্ষের সাধারণ মানুষ।
সূত্র : পার্সটুডে