ঢাকা ০২:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পত্নীতলায় দূর্গা পুজা উদযাপন উপলক্ষে ব্রিফিং

মাসুদ রানা, পত্নীতলা( নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

পত্নীতলা থানা এলাকায় আসন্ন শারদীয় দূর্গাউদযাপন উপলক্ষে ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার সকালে পত্নীতলা থানার আয়োজনে থানা অডিটরিয়ামে ব্রিফ করেন পত্নীতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আফরোজ ও ওসি শামসুল আলম শাহ্। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পত্নীতলা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অর্পণ কুমার দাস এসআই নজরুল ইসলাম সহ অন্যান্য পুলিশ সদস্য ও আনসার ভিডিপি সদস্য বৃন্দ।

আসন্ন শারদীয় দূর্গাপুজা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উদযাপনের জন্য নিঃ ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে পত্নীতলায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক ও নির্দেশনা দেওয়া হয়।

শনিবার ( ১ অক্টোবর) মহা ষষ্ঠীর পূজা অর্চনার মধ্য দিয়ে শুরু হবে শারদীয় দুর্গাপূজা এবং সপ্তমী, অষ্টমী ও নববমী শেষে বুধবার (৫ অক্টোবর) বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে সমাপ্ত হবে এ উৎসবের। এদিকে হিন্দু পল্লী গুলোতে সাজ সজ্জায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে, ঘর বাড়ী পরিস্কার পরিচ্ছন্ন বিভিন্ন আলপনার ছাঁপ ও নতুন কাপড় কেনাকাটা। দেবীকে বরণ করে নিতে বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে পত্নীতলার স্থায়ী-অস্থায়ী মণ্ডপগুলোতে। আর মাত্র একদিন পরে ই ঢাকের তালে আরতি আর উলুধ্বনিত মুখরিত হবে মণ্ডপগুলো।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায় এবার উপজেলায় ১১ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভায় মোট ৮৬টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নজিপুর পৌরসভা এলাকায় ১৬ টি
পত্নীতলা ইউনিয়ন ১০ টি,দিবর ইউনিয়ন ০৪ টি, আকবরপুর ইউনিয়ন ০৪ টি, মাটিন্দর ইউনিয়ন ০৫ টি, কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন ০৫ টি, পাটিচড়া ইউনিয়ন ০৮ টি, নজিপুর ইউনিয়ন ১৫ টি, ঘোষনগর ইউনিয়ন ০৬ টি, আমাইড় ইউনিয়ন ১৩ টি

পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শামসুল আলম শাহ বলেন আসন্ন দূর্গা পুজা উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কয়েকটি স্তরের নিরাপত্তা বেষ্টনী থাকবে। পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি আনসার ভিডিপি থাকবে এছাড়া প্রধান পয়েন্ট গুলোতে বিট অনুযায়ী এসআই এএসআই রাংকের পুলিশের চৌকস অফিসার থাকবে এবং পোশাকে ৩টি মোবাইল টিম থাকবে। সদা পোশাকের পুলিশ থাকবে অধিক গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপে ৮ জন গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপে ৬ জন সাধারণগুলো প্রতিটিতে ৪ জন করে মোট ৫১৮ জন আনসার সদস্য থাকবে, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পুজা উদযাপনে নিরাপত্তায় আমরা সবসময় তৎপর থাকবো। এখন পর্যন্ত কোন প্রতিমা ভাঙচুর বা বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায় নি।

ইউএনও রুমানা আফরোজ বলেন মটর সাইকেল চলাচলে সাবধানতা অবলম্বন, মাদক মুক্ত পরিবেশ ও সম্প্রীতির বন্ধনে পূজা উদযাপনের জন্য আহবান জানানো হয়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি ইউনিয়ন ভিত্তিক ট্যাগ অফিসার থাকবে, কোনরকম বিশৃঙ্খলা সহিংসতা করলে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আশা করছি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পুজা উদযাপন হবে।

Tag :
জনপ্রিয়

বোমা ফেলে থামানোর চেষ্টা বিশ্বের বৃহত্তম জীবন্ত আগ্নেয়গিরির লাভাস্রোত!

পত্নীতলায় দূর্গা পুজা উদযাপন উপলক্ষে ব্রিফিং

প্রকাশের সময় : ০৩:৪৭:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

মাসুদ রানা, পত্নীতলা( নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

পত্নীতলা থানা এলাকায় আসন্ন শারদীয় দূর্গাউদযাপন উপলক্ষে ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার সকালে পত্নীতলা থানার আয়োজনে থানা অডিটরিয়ামে ব্রিফ করেন পত্নীতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আফরোজ ও ওসি শামসুল আলম শাহ্। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পত্নীতলা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অর্পণ কুমার দাস এসআই নজরুল ইসলাম সহ অন্যান্য পুলিশ সদস্য ও আনসার ভিডিপি সদস্য বৃন্দ।

আসন্ন শারদীয় দূর্গাপুজা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উদযাপনের জন্য নিঃ ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে পত্নীতলায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক ও নির্দেশনা দেওয়া হয়।

শনিবার ( ১ অক্টোবর) মহা ষষ্ঠীর পূজা অর্চনার মধ্য দিয়ে শুরু হবে শারদীয় দুর্গাপূজা এবং সপ্তমী, অষ্টমী ও নববমী শেষে বুধবার (৫ অক্টোবর) বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে সমাপ্ত হবে এ উৎসবের। এদিকে হিন্দু পল্লী গুলোতে সাজ সজ্জায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে, ঘর বাড়ী পরিস্কার পরিচ্ছন্ন বিভিন্ন আলপনার ছাঁপ ও নতুন কাপড় কেনাকাটা। দেবীকে বরণ করে নিতে বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে পত্নীতলার স্থায়ী-অস্থায়ী মণ্ডপগুলোতে। আর মাত্র একদিন পরে ই ঢাকের তালে আরতি আর উলুধ্বনিত মুখরিত হবে মণ্ডপগুলো।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায় এবার উপজেলায় ১১ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভায় মোট ৮৬টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নজিপুর পৌরসভা এলাকায় ১৬ টি
পত্নীতলা ইউনিয়ন ১০ টি,দিবর ইউনিয়ন ০৪ টি, আকবরপুর ইউনিয়ন ০৪ টি, মাটিন্দর ইউনিয়ন ০৫ টি, কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন ০৫ টি, পাটিচড়া ইউনিয়ন ০৮ টি, নজিপুর ইউনিয়ন ১৫ টি, ঘোষনগর ইউনিয়ন ০৬ টি, আমাইড় ইউনিয়ন ১৩ টি

পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শামসুল আলম শাহ বলেন আসন্ন দূর্গা পুজা উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কয়েকটি স্তরের নিরাপত্তা বেষ্টনী থাকবে। পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি আনসার ভিডিপি থাকবে এছাড়া প্রধান পয়েন্ট গুলোতে বিট অনুযায়ী এসআই এএসআই রাংকের পুলিশের চৌকস অফিসার থাকবে এবং পোশাকে ৩টি মোবাইল টিম থাকবে। সদা পোশাকের পুলিশ থাকবে অধিক গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপে ৮ জন গুরুত্বপূর্ণ মণ্ডপে ৬ জন সাধারণগুলো প্রতিটিতে ৪ জন করে মোট ৫১৮ জন আনসার সদস্য থাকবে, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পুজা উদযাপনে নিরাপত্তায় আমরা সবসময় তৎপর থাকবো। এখন পর্যন্ত কোন প্রতিমা ভাঙচুর বা বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায় নি।

ইউএনও রুমানা আফরোজ বলেন মটর সাইকেল চলাচলে সাবধানতা অবলম্বন, মাদক মুক্ত পরিবেশ ও সম্প্রীতির বন্ধনে পূজা উদযাপনের জন্য আহবান জানানো হয়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি ইউনিয়ন ভিত্তিক ট্যাগ অফিসার থাকবে, কোনরকম বিশৃঙ্খলা সহিংসতা করলে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আশা করছি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পুজা উদযাপন হবে।