ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পঞ্চগড় থেকে দিনাজপুরে ভেসে এলো ৭ মরদেহ

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ সাত জনের মরদেহ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ ও খানসামা উপজেলার নদী থেকে উদ্ধার হয়েছে। সোমবার সকাল থেকে বীরগঞ্জ ও খানসামা উপজেলার আত্রাই নদী থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে তিন শিশু এবং চার জন নারী রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি) জানান, উদ্ধার মরদেহগুলো পঞ্চগড়ের বোদায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজদের। মরদেহগুলো নদীর স্রোতে ভেসে এসেছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত সরকার জানান, তারা বীরগঞ্জ আত্রাই নদীর কাশিমনগর বাদলা ঘাট থেকে একটি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছেন। শিশুটির নাম সুব্রত রায়। বয়স আড়াই বছর। সে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার মাড়েয়া গ্রামের প্রফুল্ল রায়ের ছেলে।

খানসামা থানার ওসি চিত্তরঞ্জন জানান, তারা খানসামায় আত্রাই নদীর জিয়া সেতুর কাছ থেকে চার নারী ও দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছেন। তাদের নাম-পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

দিনাজপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মমিনুল করিম জানান, যেসব মরদেহ উদ্ধার করা হচ্ছে তাদের নাম ও পরিচয় সংগ্রহ করে পুলিশের মাধ্যমে আত্মীয়-স্বজনদের কাছে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, নৌকাডুবির ঘটনায় গতকাল ২৫ এবং সোমবার সকালে এক শিশুসহ আরও সাত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃতদের মধ্যে ৩১ জনকে শনাক্ত করা গেছে। তাদের মধ্যে নারী ১৬, শিশু ১০ ও পুরুষ ৫ জন। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন কমপক্ষে ৫৮ জন। ঘটনাস্থলের আশেপাশে দ্বিতীয় দিনের মতো উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দলের তিনটি ইউনিট।

Tag :
জনপ্রিয়

বীরমুক্তিযোদ্ধা ভূপেশ কুমার দাস রায় আর নেই : বিভিন্ন মহলে শোক

পঞ্চগড় থেকে দিনাজপুরে ভেসে এলো ৭ মরদেহ

প্রকাশের সময় : ০৮:২০:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ সাত জনের মরদেহ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ ও খানসামা উপজেলার নদী থেকে উদ্ধার হয়েছে। সোমবার সকাল থেকে বীরগঞ্জ ও খানসামা উপজেলার আত্রাই নদী থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে তিন শিশু এবং চার জন নারী রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি) জানান, উদ্ধার মরদেহগুলো পঞ্চগড়ের বোদায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজদের। মরদেহগুলো নদীর স্রোতে ভেসে এসেছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত সরকার জানান, তারা বীরগঞ্জ আত্রাই নদীর কাশিমনগর বাদলা ঘাট থেকে একটি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছেন। শিশুটির নাম সুব্রত রায়। বয়স আড়াই বছর। সে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার মাড়েয়া গ্রামের প্রফুল্ল রায়ের ছেলে।

খানসামা থানার ওসি চিত্তরঞ্জন জানান, তারা খানসামায় আত্রাই নদীর জিয়া সেতুর কাছ থেকে চার নারী ও দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছেন। তাদের নাম-পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

দিনাজপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মমিনুল করিম জানান, যেসব মরদেহ উদ্ধার করা হচ্ছে তাদের নাম ও পরিচয় সংগ্রহ করে পুলিশের মাধ্যমে আত্মীয়-স্বজনদের কাছে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, নৌকাডুবির ঘটনায় গতকাল ২৫ এবং সোমবার সকালে এক শিশুসহ আরও সাত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃতদের মধ্যে ৩১ জনকে শনাক্ত করা গেছে। তাদের মধ্যে নারী ১৬, শিশু ১০ ও পুরুষ ৫ জন। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন কমপক্ষে ৫৮ জন। ঘটনাস্থলের আশেপাশে দ্বিতীয় দিনের মতো উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দলের তিনটি ইউনিট।