ঢাকা ০৭:১৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বদলে যাচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্রের দিন

চলচ্চিত্র বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম। একটা সময় ছিলো যখন নতুন নতুন চলচ্চিত্র দেখার জন্য মুখিয়ে থাকতেন। নায়ক-নায়কিদের মত করে নিজেদের সাজাতো। চলচ্চিত্রের সেই সোনালি সময় আজ শুধুই অতীত। দীর্ঘ সময় ধরে চলচ্চিত্রের অবস্থা বেশ খারাপ। নির্মিত হচ্ছে না ভালো মানের চলচ্চিত্র। কমছে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা। দর্শক হচ্ছেন হলবিমুখ। চলচ্চিত্রের এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে নানা চেষ্টা।

গত রোজার ঈদেও তেমন ভাবে দর্শকদের হলমুখি হতে দেয়া যায়নি। তবে এবারের ঈদে প্রেক্ষাগৃহের চিত্র বদলে গিয়েছে পুরোপুরি। দীর্ঘদিন পর দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে বইতে শুরু করেছে সুবাতাস। ফিরছে বাংলা সিনেমার হাল, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রি, প্রেক্ষাগৃহে ফিরছে দর্শক, আশা জাগাচ্ছে সিনেমা।

এবার ঈদে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’ ও ‘সাইকো’ নামের তিনটি সিনেমা। তিনটি সিনেমার মাঝে দর্শকদের মাঝে প্রশংসিত হয়েছে ‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’। দুইটি ছবিই দেশে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর বিদেশের মাটিতেও প্রশংসা কুড়াচ্ছে। মূলত এই দুই চলচ্চিত্র দিয়েই বদলে যাওয়ার শুরুটা হয়।

‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’ ছবির মুক্তির পর পরই মুক্তি পায় ‘হাওয়া’ ছবিটি। ‘হাওয়া’ সিনেমার গল্প মাঝসমুদ্রে গন্তব্যহীন একটি মাছ ধরার ট্রলারে আটকে পড়া আট জন মাঝি-মাল্লা এবং এক রহস্যময় বেদেনিকে ঘিরে কাহিনি আবর্তিত হয়েছে। মিস্ট্রি ড্রামা ঘরানার ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রটি মূলত এ কালের রূপকথা। রূপকথানির্ভর সিনেমার প্রচলিত এ ফর্মটি সিনেমার পর্দায় নতুন আঙ্গিকে দেখতে পাবেন দর্শকেরা বলে জানাচ্ছে সিনেমাটির প্রযোজনা সংস্থা। মেজবাউর রহমান সুমনের কাহিনি এবং সংলাপে চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখেছেন মেজবাউর রহমান সুমন, সুকর্ণ সাহেদ ধীমান এবং জাহিন ফারুক আমিন। এই ছবিটিও দর্শক মহলে সাড়া ফেলেছে। এমনি ছবিটি ৯৫তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ‘বিদেশি ভাষার সিনেমা’ বিভাগের জন্য বাংলাদেশ থেকে মনোনয়নও পেয়েছে।

চলতি সপ্তাহে ৩৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্য ও সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বনভূমি সুন্দরবনকে জলদস্যু ও বনদস্যুমুক্ত করার প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমা। তারকাবহুল এই সিনেমা মুক্তির প্রথম দিনে ঢাকায় দর্শক টেনেছে। অন্তর্জালে প্রশংসা পাচ্ছে সিনেমাটির গল্প ও নির্মাণ। দেশের সবচেয়ে অত্যাধুনিক স্টার সিনেপ্লেক্সের সবগুলো শাখা মিলে দৈনিক ২০টির অধিক শো চলছে সিনেমাটির। সেখানে মুক্তির প্রথম দিনে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ কেমন দর্শক দেখছে?

রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রথম দিন থেকেই ভালো দর্শক আসছে এখন পর্যন্ত। বিকেল আর সন্ধ্যার বেশ কয়েকটি শো আমরা হাউসফুল পাচ্ছি। এমন ভালো মানের সিনেমার জন্য আমরা আরও দর্শক আশা করছি।

দীপংকর দীপনের পরিচালনায় সুন্দরবনকে জলদুস্যমুক্ত করার অভিযানের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’; বন্যজীবন নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম রোমাঞ্চকর কাহিনিচিত্র এটি।

এদিকে একই দিনে মুক্তি পেয়েছে ১৯টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে বহুল আলোচিত ও প্রতীক্ষিত মাহমুদ দিদার নির্মিত চলচ্চিত্র বিউটি সার্কাস। পাঁচ বছরের নির্মাণযাত্রা শেষে মুক্তি পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, ফেরদৌস আহমেদ, তৌকির আহমেদ, এবিএম সুমন, গাজী নির্মাতা বলেন, বিউটি সার্কাস ভরপুর বিনোদন ও প্রতিশোধের এক গল্প।

সার্কাসকে কেন্দ্র করে এক সাহসী নারীর লড়াই। চলচ্চিত্রটি পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করার মতো একটি ছবি। প্রায় দুই শতাধিক নির্মাণসঙ্গী নিয়ে দুই হাজার গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে নওগাঁর সাঁপাহার গ্রামে চিত্রায়িত হয় দেশের সার্কাস শিল্প ঘিরে নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘বিউটি সার্কাস’।

ছবিটি মুক্তির প্রথম দিন প্রথম শো’তেই রাজধানীর বসুন্ধরা শপিংয়ের স্টার সিনেপ্লেক্সে হাজির হন বিউটি তথা জয়া আহসান। সঙ্গে ছিলেন নায়ক রঙলাল চরিত্রের এবিএম সুমনসহ অন্যরা। ছবিটি দেখার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জয়া আহসান বললেন, আমাদের কষ্ট সার্থক হয়েছে। যদিও কিছুটা হতাশার কথা ইঙ্গিত তিনি বলেন, সিনেপ্লেক্সে সাধারণত সান্ধ্য শোয়ে দর্শক তুলনামূলক বেশি থাকে। অথচ সন্ধ্যার শোয়ে ‘বিউটি সার্কাস’ জায়গা না পেলেও পেয়েছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

জয়া আরও বলেন, দেখুন মানুষ তো দিনের বেলায় সিনেমা দেখার সময়-সুযোগ অতটা পায় না। অথচ সন্ধ্যেবেলায় আমাদের সেরকম কোনো শো নেই। এখানে বোধহয় ‘অন্য কোনো বিষয়’ আছে! আমি বলব একই যাত্রায় আলাদা ‘অন্যকিছু’ থাকতে পারে না। দুটো সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। দুটোই সমান সুযোগ পাক, দুটোই ভালো করুক—সেটা আমি চাই। বাকিটা তো দর্শকরা রায় দেবেন। কিন্তু দর্শকদের দেখার সুযোগটা তো আমাদের দিতে হবে। তবু স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, ‘অন্য কিছু’র পরেও তারা দিনের বেলায় আমাদের সিনেমার জন্য অনেকগুলো শো রেখেছেন।

এদিকে আগামী মাসে আরও বেশ কিছু চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে যাচ্ছে যার মাঝে নির্মাতা রায়হান রাফির ‘দামাল’ ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত নির্মাতা মুসতাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘যাও পাখি বলো তাঁরে’। ছবি দুইটির প্রচারণা ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে বেশ আশাবাদী ছবি দুইটির সংশ্লিষ্টরা।

Tag :
জনপ্রিয়

রসিক নির্বাচন ; আ’লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার গণসংযোগ অনুষ্ঠিত

বদলে যাচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্রের দিন

প্রকাশের সময় : ০৭:৪৭:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

চলচ্চিত্র বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম। একটা সময় ছিলো যখন নতুন নতুন চলচ্চিত্র দেখার জন্য মুখিয়ে থাকতেন। নায়ক-নায়কিদের মত করে নিজেদের সাজাতো। চলচ্চিত্রের সেই সোনালি সময় আজ শুধুই অতীত। দীর্ঘ সময় ধরে চলচ্চিত্রের অবস্থা বেশ খারাপ। নির্মিত হচ্ছে না ভালো মানের চলচ্চিত্র। কমছে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা। দর্শক হচ্ছেন হলবিমুখ। চলচ্চিত্রের এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে নানা চেষ্টা।

গত রোজার ঈদেও তেমন ভাবে দর্শকদের হলমুখি হতে দেয়া যায়নি। তবে এবারের ঈদে প্রেক্ষাগৃহের চিত্র বদলে গিয়েছে পুরোপুরি। দীর্ঘদিন পর দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে বইতে শুরু করেছে সুবাতাস। ফিরছে বাংলা সিনেমার হাল, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রি, প্রেক্ষাগৃহে ফিরছে দর্শক, আশা জাগাচ্ছে সিনেমা।

এবার ঈদে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’ ও ‘সাইকো’ নামের তিনটি সিনেমা। তিনটি সিনেমার মাঝে দর্শকদের মাঝে প্রশংসিত হয়েছে ‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’। দুইটি ছবিই দেশে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর বিদেশের মাটিতেও প্রশংসা কুড়াচ্ছে। মূলত এই দুই চলচ্চিত্র দিয়েই বদলে যাওয়ার শুরুটা হয়।

‘পরাণ’, ‘দিন: দ্য ডে’ ছবির মুক্তির পর পরই মুক্তি পায় ‘হাওয়া’ ছবিটি। ‘হাওয়া’ সিনেমার গল্প মাঝসমুদ্রে গন্তব্যহীন একটি মাছ ধরার ট্রলারে আটকে পড়া আট জন মাঝি-মাল্লা এবং এক রহস্যময় বেদেনিকে ঘিরে কাহিনি আবর্তিত হয়েছে। মিস্ট্রি ড্রামা ঘরানার ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রটি মূলত এ কালের রূপকথা। রূপকথানির্ভর সিনেমার প্রচলিত এ ফর্মটি সিনেমার পর্দায় নতুন আঙ্গিকে দেখতে পাবেন দর্শকেরা বলে জানাচ্ছে সিনেমাটির প্রযোজনা সংস্থা। মেজবাউর রহমান সুমনের কাহিনি এবং সংলাপে চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখেছেন মেজবাউর রহমান সুমন, সুকর্ণ সাহেদ ধীমান এবং জাহিন ফারুক আমিন। এই ছবিটিও দর্শক মহলে সাড়া ফেলেছে। এমনি ছবিটি ৯৫তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ‘বিদেশি ভাষার সিনেমা’ বিভাগের জন্য বাংলাদেশ থেকে মনোনয়নও পেয়েছে।

চলতি সপ্তাহে ৩৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্য ও সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বনভূমি সুন্দরবনকে জলদস্যু ও বনদস্যুমুক্ত করার প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমা। তারকাবহুল এই সিনেমা মুক্তির প্রথম দিনে ঢাকায় দর্শক টেনেছে। অন্তর্জালে প্রশংসা পাচ্ছে সিনেমাটির গল্প ও নির্মাণ। দেশের সবচেয়ে অত্যাধুনিক স্টার সিনেপ্লেক্সের সবগুলো শাখা মিলে দৈনিক ২০টির অধিক শো চলছে সিনেমাটির। সেখানে মুক্তির প্রথম দিনে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ কেমন দর্শক দেখছে?

রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রথম দিন থেকেই ভালো দর্শক আসছে এখন পর্যন্ত। বিকেল আর সন্ধ্যার বেশ কয়েকটি শো আমরা হাউসফুল পাচ্ছি। এমন ভালো মানের সিনেমার জন্য আমরা আরও দর্শক আশা করছি।

দীপংকর দীপনের পরিচালনায় সুন্দরবনকে জলদুস্যমুক্ত করার অভিযানের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’; বন্যজীবন নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম রোমাঞ্চকর কাহিনিচিত্র এটি।

এদিকে একই দিনে মুক্তি পেয়েছে ১৯টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে বহুল আলোচিত ও প্রতীক্ষিত মাহমুদ দিদার নির্মিত চলচ্চিত্র বিউটি সার্কাস। পাঁচ বছরের নির্মাণযাত্রা শেষে মুক্তি পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, ফেরদৌস আহমেদ, তৌকির আহমেদ, এবিএম সুমন, গাজী নির্মাতা বলেন, বিউটি সার্কাস ভরপুর বিনোদন ও প্রতিশোধের এক গল্প।

সার্কাসকে কেন্দ্র করে এক সাহসী নারীর লড়াই। চলচ্চিত্রটি পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করার মতো একটি ছবি। প্রায় দুই শতাধিক নির্মাণসঙ্গী নিয়ে দুই হাজার গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে নওগাঁর সাঁপাহার গ্রামে চিত্রায়িত হয় দেশের সার্কাস শিল্প ঘিরে নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘বিউটি সার্কাস’।

ছবিটি মুক্তির প্রথম দিন প্রথম শো’তেই রাজধানীর বসুন্ধরা শপিংয়ের স্টার সিনেপ্লেক্সে হাজির হন বিউটি তথা জয়া আহসান। সঙ্গে ছিলেন নায়ক রঙলাল চরিত্রের এবিএম সুমনসহ অন্যরা। ছবিটি দেখার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জয়া আহসান বললেন, আমাদের কষ্ট সার্থক হয়েছে। যদিও কিছুটা হতাশার কথা ইঙ্গিত তিনি বলেন, সিনেপ্লেক্সে সাধারণত সান্ধ্য শোয়ে দর্শক তুলনামূলক বেশি থাকে। অথচ সন্ধ্যার শোয়ে ‘বিউটি সার্কাস’ জায়গা না পেলেও পেয়েছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

জয়া আরও বলেন, দেখুন মানুষ তো দিনের বেলায় সিনেমা দেখার সময়-সুযোগ অতটা পায় না। অথচ সন্ধ্যেবেলায় আমাদের সেরকম কোনো শো নেই। এখানে বোধহয় ‘অন্য কোনো বিষয়’ আছে! আমি বলব একই যাত্রায় আলাদা ‘অন্যকিছু’ থাকতে পারে না। দুটো সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। দুটোই সমান সুযোগ পাক, দুটোই ভালো করুক—সেটা আমি চাই। বাকিটা তো দর্শকরা রায় দেবেন। কিন্তু দর্শকদের দেখার সুযোগটা তো আমাদের দিতে হবে। তবু স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, ‘অন্য কিছু’র পরেও তারা দিনের বেলায় আমাদের সিনেমার জন্য অনেকগুলো শো রেখেছেন।

এদিকে আগামী মাসে আরও বেশ কিছু চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে যাচ্ছে যার মাঝে নির্মাতা রায়হান রাফির ‘দামাল’ ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত নির্মাতা মুসতাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘যাও পাখি বলো তাঁরে’। ছবি দুইটির প্রচারণা ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে বেশ আশাবাদী ছবি দুইটির সংশ্লিষ্টরা।