ঢাকা ০৯:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাটুরিয়া উপজেলার পূজা মন্ডপগুলোতে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।

সনাতনী সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা।এই উৎসবকে ঘিরে সাটুরিয়া উপজেলা ৭৮টি পুজা মন্ডপে পুজা অনুষ্ঠিত হবে।এ উপলক্ষে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা।পুজা মন্ডপে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।

করোনা মহামারির কারণে গতকয়েক বছর ধরে ভালোভাবে পুজা উদযাপন করতে না পারলেও এ বছর ভাল ভাবে পুজা উদযাপন করার আশা মন্দির কমিটির।

মৃৎশিল্পীরা জানান,পুজার দিন যত ঘনিয়ে আসছে,ততই ব্যস্ততা বেড়ে চলেছে। প্রতিমার কাজ শেষ করতে দিন রাত পুরোদমে কাজ করছেন ।প্রায় ৮৫ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।রং তুলির আঁচড়ের মধ্য দিয়ে কাজ সম্পন্ন হবে।তারা বলেন প্রতিবছর এ কাজের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে থাকি।তাই যতই পূজা বাড়বে ততই আমাদের আয় রোজগার বাড়বে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটি সাটুরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রদ্যোত কুমার ঘোষ এ্যাপোলো বলেন,আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজায় প্রতিবছর মতো এবারেও আমাদের পূজা শান্তিপু্র্ণৃভাবে অনুষ্ঠিত হবে।আমাদের পুজা মণ্ডপগুলোতে প্রতিবছরের মতো এবছরও প্রতিনিয়ত মনিটরিং করছে প্রশাসন ।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটি সাটুরিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি সমরেন্ধু সাহা লাহোর জানান,প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও আমরা জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সাথে শারদীয় দুর্গা পূজার প্রস্তুতিসহ সার্বিক বিষয়ে মতবিনিময় করছি।আশা করি এবছরেও ভক্তি, শ্রদ্ধা ও উৎসব মুখর পরিবেশে পূজা অনুষ্ঠিত হবে।দেবী দুর্গার আগমনী বার্তা ভক্তদের মাঝে বিরাজ করছে উল্লাসের।তবে এবছর পুজা মন্ডপে ডিজে পরিহার ও সিসিটিভি ক্যামরা বসানোর বিষয়ে প্রতিটি মন্ডপে অনুরোধ জানিয়েছি।

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুকুমার বিশ্বাস বলেন, সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা হয়েছে।আশা করি আমার থানাধীন পূজা উদযাপনে কোন ত্রুুটি হবে না।যদি কেউ পূজা নিয়ে আইন শৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটানোর চেষ্টা করে, তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে‌।

Tag :
জনপ্রিয়

করোনা মোকাবিলার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে স্বাস্থ্যখাতের মানোন্নয়ন করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সাটুরিয়া উপজেলার পূজা মন্ডপগুলোতে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।

প্রকাশের সময় : ১১:৪৬:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সনাতনী সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা।এই উৎসবকে ঘিরে সাটুরিয়া উপজেলা ৭৮টি পুজা মন্ডপে পুজা অনুষ্ঠিত হবে।এ উপলক্ষে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা।পুজা মন্ডপে চলছে শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।

করোনা মহামারির কারণে গতকয়েক বছর ধরে ভালোভাবে পুজা উদযাপন করতে না পারলেও এ বছর ভাল ভাবে পুজা উদযাপন করার আশা মন্দির কমিটির।

মৃৎশিল্পীরা জানান,পুজার দিন যত ঘনিয়ে আসছে,ততই ব্যস্ততা বেড়ে চলেছে। প্রতিমার কাজ শেষ করতে দিন রাত পুরোদমে কাজ করছেন ।প্রায় ৮৫ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।রং তুলির আঁচড়ের মধ্য দিয়ে কাজ সম্পন্ন হবে।তারা বলেন প্রতিবছর এ কাজের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে থাকি।তাই যতই পূজা বাড়বে ততই আমাদের আয় রোজগার বাড়বে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটি সাটুরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রদ্যোত কুমার ঘোষ এ্যাপোলো বলেন,আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজায় প্রতিবছর মতো এবারেও আমাদের পূজা শান্তিপু্র্ণৃভাবে অনুষ্ঠিত হবে।আমাদের পুজা মণ্ডপগুলোতে প্রতিবছরের মতো এবছরও প্রতিনিয়ত মনিটরিং করছে প্রশাসন ।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটি সাটুরিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি সমরেন্ধু সাহা লাহোর জানান,প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও আমরা জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সাথে শারদীয় দুর্গা পূজার প্রস্তুতিসহ সার্বিক বিষয়ে মতবিনিময় করছি।আশা করি এবছরেও ভক্তি, শ্রদ্ধা ও উৎসব মুখর পরিবেশে পূজা অনুষ্ঠিত হবে।দেবী দুর্গার আগমনী বার্তা ভক্তদের মাঝে বিরাজ করছে উল্লাসের।তবে এবছর পুজা মন্ডপে ডিজে পরিহার ও সিসিটিভি ক্যামরা বসানোর বিষয়ে প্রতিটি মন্ডপে অনুরোধ জানিয়েছি।

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুকুমার বিশ্বাস বলেন, সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা হয়েছে।আশা করি আমার থানাধীন পূজা উদযাপনে কোন ত্রুুটি হবে না।যদি কেউ পূজা নিয়ে আইন শৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটানোর চেষ্টা করে, তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে‌।