ঢাকা ০৮:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আউলিয়া ঘাটে লাশের সারি

গতকাল ছিল মহালয়ার ক্ষণ। ক’দিন পরেই হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা। উৎসবের আমেজ নিয়ে একত্রিত হয়েছিলেন পঞ্চগড়ের কয়েকটি হিন্দু পরিবার। উদ্দেশ্য মহালয়া উপলক্ষে ধর্মসভায় যোগ দেয়া। নৌকা ভাড়া করে বদেশ্বরী  মন্দিরের পথে রওনা করেছিল তারা। কিন্তু সেই উৎসবের ক্ষণে দেখা দিলো বিষাদের ছায়া। চোখের নিমিষেই সব খুশি যেন মিলিয়ে গেল। ধারণক্ষমতার চেয়ে বেশি যাত্রী ওঠায় নৌকাটি ডুবে যায়। প্রাণহানি হয়েছে ২৫ জনের। নিখোঁজ রয়েছে প্রায় অর্ধশত।

নিখোঁজদের সন্ধানে করতোয়ার পাড়ে ভিড় জমিয়েছেন স্বজনরা। তাদের আহাজারিতে বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। গতকাল পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাট এলাকায় করতোয়া নদীতে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিখোঁজদের অপেক্ষায় স্বজনরা নদীর পাড়ে অপেক্ষা করছে। মারা যাওয়ার মধ্যে নারী ১২ জন, শিশু ৮ জন ও পুরুষ ৫ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন উদ্ধারকর্মীরা। ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহত সদস্যের প্রতিটি পরিবারকে লাশ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। 

বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদে জরুরি তথ্যকেন্দ্র খোলা হয়েছে। যেকোনো প্রয়োজনে ০১৭০৮-৩৯৭৭১৮ ও ০১৭১৯-৩৪৭১৭৩ এই নম্বরে যোগাযোগ করতে বলেছে জেলা প্রশাসন। নিহতদের মধ্যে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে তারা হলেন বোদা উপজেলার মাড়েয়া ফুটকিবাড়ী গ্রামের কলি রানী (১৪), দেবীগঞ্জ উপজেলার শালডাঙ্গা হাতিডোবা গ্রামের লক্ষ্মী রানী (২৫), পশ্চিম শিকারপুর গ্রামের অমল চন্দ্র (৩৫), বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট গ্রামের শোভা রানী (২৭), দেবীগঞ্জের শালডাঙ্গা হাতিডোবা গ্রামের দীপংকর (৩), বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনপাড়া গ্রামের প্রিয়ন্ত (আড়াই বছর), দেবীগঞ্জের লক্ষ্মীগড় ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের প্রমিলা রানী (৫৫), ছত্র শিকারপুর গ্রামের তারা রানী (২৪), পাঁচপীর বংশিধর পুজারী গ্রামের সনেকা রানী (৬০), সাকোয়া শিকারপুর প্রধানপাড়া গ্রামের ফাল্গুনী রানী (৫৫), পাঁচপীর জয়নন্দবড়ুয়া গ্রামের প্রমিলা রানী (৭০), দেবীগঞ্জ শালাডাঙ্গা তেলীপাড়া গ্রামের ধনো বালা (৫৭), পাঁচপীর ইউনিয়নের বংশিধর গ্রামের সুমিত্রা রানী (৫৭), ময়দানদিঘী গ্রামের সফলতা রানী (৫০), খুশি রানী (৩৬), মাড়েয়া বামনহাট গ্রামের শিমলা রানী (৩৫), বড়শশি ইউনিয়নের কুমারপাড়া গ্রামের হাসান আলী (৫২), মাড়েয়া আলোকপাড়া গ্রামের উশশি (শিশু), হাতিডোবা গ্রামের তনুশী (শিশু) পাঁচপীর মদনহার গ্রামের শ্রেয়শী (শিশু)।

বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ সুজয় কুমার রায় জানান, যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে তাদের স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।  নৌকাডুবির আগ মুহূর্তের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘুরছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, নৌকাটি ভারসাম্য রাখতে পারছে না। যাত্রীরা চিৎকার করছেন। নদীর দুই পাড়ে উৎসুক জনতার ভিড়। তাদের মধ্যে অনেকেই ঘটনার ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করছিলেন। এরমধ্যে একজন হ্যান্ড মাইকে বলছেন, এই মাঝি সাবধানতা অবলম্বন করেন, সাবধানতা অবলম্বন  করেন। এই আওয়াজের ৭ সেকেন্ডের মধ্যেই নৌকাটি উল্টে যায়। নদীর দুই পাড়ের লোকজন চিৎকার শুরু করে। কয়েকজনকে নদীতে ঝাঁপ দিতে দেখা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নদীর অপর পাড়ে মহালয়া উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরে ধর্মসভার আয়োজন করা হয়। নদীতে কোনো সেতু না থাকায় গতকাল দুপুরের দিকে ওই ধর্মসভায় যোগ দিতে শতাধিক যাত্রী একটি মাত্র নৌকা যোগে নদী পার হচ্ছিল। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে নদীর মাঝপথে নৌকাটি ডুবে যায়। অনেকে সাঁতার জানায় তীরে আসতে পারলেও সাঁতার না জানা বিশেষ করে নারী ও শিশুরা পানিতে ডুবে যায়।

গত দু’দিন ধরে ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা ঢলের কারণে নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীতে বেশি পানি ও নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বহন করার কারণে এত বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা উদ্ধার কাজ শুরু করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আমরা ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়েছি। এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। উদ্ধার অভিযান চলছে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের প্রতি পরিবারকে লাশ সৎকারের জন্য ২০ হাজার করে টাকা দেয়া হচ্ছে। এডিএমকে আহ্বায়ক করে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বোদা উপজেলার আউলিয়া ঘাটে নৌকাডুবিতে ২৫ জন নিহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক শোকবার্তায় প্রেসিডেন্ট নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং আহতদের আশু আরোগ্য কামনা করেন। যুক্তরাষ্ট্রে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকাডুবির ঘটনায় প্রাণহানিতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।  নৌকাডুবির ঘটনায় শোক প্রকাশ করে বার্তা দিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রী এডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজন এমপি। শোক বার্তায় তিনি বলেন, তার নির্বাচনী এলাকায় নৌকাডুবিতে ২৫ জন নিহত ও আরও অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। যাত্রীগণ মহালয়া উপলক্ষে পূজা অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য শ্রী শ্রী বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। অতিরিক্ত যাত্রী থাকায় নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি জানান। শোক বার্তায় তিনি নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা এবং তাদের পরিবারবর্গের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Tag :
জনপ্রিয়

সংবাদ প্রকাশের জেরে তিন সাংবাদিকসহ ৫জনের নামে চোরাকারবারির মামলা

আউলিয়া ঘাটে লাশের সারি

প্রকাশের সময় : ১০:১৩:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

গতকাল ছিল মহালয়ার ক্ষণ। ক’দিন পরেই হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা। উৎসবের আমেজ নিয়ে একত্রিত হয়েছিলেন পঞ্চগড়ের কয়েকটি হিন্দু পরিবার। উদ্দেশ্য মহালয়া উপলক্ষে ধর্মসভায় যোগ দেয়া। নৌকা ভাড়া করে বদেশ্বরী  মন্দিরের পথে রওনা করেছিল তারা। কিন্তু সেই উৎসবের ক্ষণে দেখা দিলো বিষাদের ছায়া। চোখের নিমিষেই সব খুশি যেন মিলিয়ে গেল। ধারণক্ষমতার চেয়ে বেশি যাত্রী ওঠায় নৌকাটি ডুবে যায়। প্রাণহানি হয়েছে ২৫ জনের। নিখোঁজ রয়েছে প্রায় অর্ধশত।

নিখোঁজদের সন্ধানে করতোয়ার পাড়ে ভিড় জমিয়েছেন স্বজনরা। তাদের আহাজারিতে বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। গতকাল পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাট এলাকায় করতোয়া নদীতে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিখোঁজদের অপেক্ষায় স্বজনরা নদীর পাড়ে অপেক্ষা করছে। মারা যাওয়ার মধ্যে নারী ১২ জন, শিশু ৮ জন ও পুরুষ ৫ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন উদ্ধারকর্মীরা। ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহত সদস্যের প্রতিটি পরিবারকে লাশ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। 

বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদে জরুরি তথ্যকেন্দ্র খোলা হয়েছে। যেকোনো প্রয়োজনে ০১৭০৮-৩৯৭৭১৮ ও ০১৭১৯-৩৪৭১৭৩ এই নম্বরে যোগাযোগ করতে বলেছে জেলা প্রশাসন। নিহতদের মধ্যে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে তারা হলেন বোদা উপজেলার মাড়েয়া ফুটকিবাড়ী গ্রামের কলি রানী (১৪), দেবীগঞ্জ উপজেলার শালডাঙ্গা হাতিডোবা গ্রামের লক্ষ্মী রানী (২৫), পশ্চিম শিকারপুর গ্রামের অমল চন্দ্র (৩৫), বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট গ্রামের শোভা রানী (২৭), দেবীগঞ্জের শালডাঙ্গা হাতিডোবা গ্রামের দীপংকর (৩), বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনপাড়া গ্রামের প্রিয়ন্ত (আড়াই বছর), দেবীগঞ্জের লক্ষ্মীগড় ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের প্রমিলা রানী (৫৫), ছত্র শিকারপুর গ্রামের তারা রানী (২৪), পাঁচপীর বংশিধর পুজারী গ্রামের সনেকা রানী (৬০), সাকোয়া শিকারপুর প্রধানপাড়া গ্রামের ফাল্গুনী রানী (৫৫), পাঁচপীর জয়নন্দবড়ুয়া গ্রামের প্রমিলা রানী (৭০), দেবীগঞ্জ শালাডাঙ্গা তেলীপাড়া গ্রামের ধনো বালা (৫৭), পাঁচপীর ইউনিয়নের বংশিধর গ্রামের সুমিত্রা রানী (৫৭), ময়দানদিঘী গ্রামের সফলতা রানী (৫০), খুশি রানী (৩৬), মাড়েয়া বামনহাট গ্রামের শিমলা রানী (৩৫), বড়শশি ইউনিয়নের কুমারপাড়া গ্রামের হাসান আলী (৫২), মাড়েয়া আলোকপাড়া গ্রামের উশশি (শিশু), হাতিডোবা গ্রামের তনুশী (শিশু) পাঁচপীর মদনহার গ্রামের শ্রেয়শী (শিশু)।

বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ সুজয় কুমার রায় জানান, যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে তাদের স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।  নৌকাডুবির আগ মুহূর্তের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘুরছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, নৌকাটি ভারসাম্য রাখতে পারছে না। যাত্রীরা চিৎকার করছেন। নদীর দুই পাড়ে উৎসুক জনতার ভিড়। তাদের মধ্যে অনেকেই ঘটনার ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করছিলেন। এরমধ্যে একজন হ্যান্ড মাইকে বলছেন, এই মাঝি সাবধানতা অবলম্বন করেন, সাবধানতা অবলম্বন  করেন। এই আওয়াজের ৭ সেকেন্ডের মধ্যেই নৌকাটি উল্টে যায়। নদীর দুই পাড়ের লোকজন চিৎকার শুরু করে। কয়েকজনকে নদীতে ঝাঁপ দিতে দেখা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নদীর অপর পাড়ে মহালয়া উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরে ধর্মসভার আয়োজন করা হয়। নদীতে কোনো সেতু না থাকায় গতকাল দুপুরের দিকে ওই ধর্মসভায় যোগ দিতে শতাধিক যাত্রী একটি মাত্র নৌকা যোগে নদী পার হচ্ছিল। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে নদীর মাঝপথে নৌকাটি ডুবে যায়। অনেকে সাঁতার জানায় তীরে আসতে পারলেও সাঁতার না জানা বিশেষ করে নারী ও শিশুরা পানিতে ডুবে যায়।

গত দু’দিন ধরে ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা ঢলের কারণে নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীতে বেশি পানি ও নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বহন করার কারণে এত বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা উদ্ধার কাজ শুরু করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আমরা ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়েছি। এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। উদ্ধার অভিযান চলছে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের প্রতি পরিবারকে লাশ সৎকারের জন্য ২০ হাজার করে টাকা দেয়া হচ্ছে। এডিএমকে আহ্বায়ক করে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বোদা উপজেলার আউলিয়া ঘাটে নৌকাডুবিতে ২৫ জন নিহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক শোকবার্তায় প্রেসিডেন্ট নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং আহতদের আশু আরোগ্য কামনা করেন। যুক্তরাষ্ট্রে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকাডুবির ঘটনায় প্রাণহানিতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।  নৌকাডুবির ঘটনায় শোক প্রকাশ করে বার্তা দিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রী এডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজন এমপি। শোক বার্তায় তিনি বলেন, তার নির্বাচনী এলাকায় নৌকাডুবিতে ২৫ জন নিহত ও আরও অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। যাত্রীগণ মহালয়া উপলক্ষে পূজা অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য শ্রী শ্রী বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। অতিরিক্ত যাত্রী থাকায় নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি জানান। শোক বার্তায় তিনি নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা এবং তাদের পরিবারবর্গের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।