ঢাকা ০৯:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উদ্বোধনের অপেক্ষায় ফেচকা ব্রিজ

বর্ষার অতিরিক্ত পানি দ্রুত গতিতে নিষ্কাশনের লক্ষে পানি উন্নয়ন বোর্ড জয়পুরহাটের পাঁচবিবির উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া তুলসীগঙ্গা নদীর তলদেশ খননের কাজ করেন। পাঁচবিবি শহরের পূর্বদিকে বালিঘাটা ইউপির ফেচকা এলাকায় মানুষ ও সকল প্রকার যানবাহন চলাচলের নিমিত্তে ব্রিটিশ আমলে ওই নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ করেছিলেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিয়োজিত ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ভ্যেকু মেশিন দ্বারা নদী খননের সময় অসাবধনতাভাবে ব্রিজটির পিলারের গোড়ার চারপাশ থেকে অতিরিক্ত মাটি অপসারণ করে। এমতাবস্থায় ব্রিজটির উপর দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করায় পিলারের গোড়া ভেঙ্গে যায়। ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় উপজেলা প্রশাসন সকলের চলাচল বন্ধ করে দেয়।

স্থানীয় সোবহান মহুড়ী বলেন, দীর্ঘদিনের মজবুত ব্রিজটি শুধু মাটি খনন করতে ভেঙ্গে ফেলল। সঠিকভাবে যদি পিলারের গোড়া থেকে মাটি সরাত তাহলে ব্রিজটি ভাঙ্গত না আরো অনেক দিন টিকত বলেও জানান তিনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুসুম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জিহাদ মন্ডল বলেন, ওই ব্রিজের উপর দিয়েই প্রতিনিয়ত গ্রামের বাড়ি ও পরিষদে যাতায়াত করি। ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পাশে নির্মিত কাঠের সরু সাঁকো দিয়ে পারাপার হচ্ছি। স্থানীয় সাংসদ এডভোকেট সামছুল আলম দুদু এমপির কল্যাণে নতুন ব্রিজের বরাদ্দ আসে এবং নির্মাণ কাজও শেষের পথে বলেও জানান জিহাদ।

উপজেলা প্রকৌশলী মো. ওয়ালিউল্লাহ্ সেখ বলেন, প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬০ মিঃ গার্ডার ব্রিজের মুল নির্মাণ কাজ শেষ। ব্রিজটির উভয় পাশ মুল সড়কের সঙ্গে সংযোগ কাজ শুধু বাঁকি আছে। নওগাঁর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স বসুন্ধরা বির্ল্ডার্স ব্রিজটির নির্মাণ কাজ করছেন।

Tag :
জনপ্রিয়

নিরব-আরিয়ানা জামানের ‘স্পর্শ’

উদ্বোধনের অপেক্ষায় ফেচকা ব্রিজ

প্রকাশের সময় : ০৯:৫২:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

বর্ষার অতিরিক্ত পানি দ্রুত গতিতে নিষ্কাশনের লক্ষে পানি উন্নয়ন বোর্ড জয়পুরহাটের পাঁচবিবির উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া তুলসীগঙ্গা নদীর তলদেশ খননের কাজ করেন। পাঁচবিবি শহরের পূর্বদিকে বালিঘাটা ইউপির ফেচকা এলাকায় মানুষ ও সকল প্রকার যানবাহন চলাচলের নিমিত্তে ব্রিটিশ আমলে ওই নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ করেছিলেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিয়োজিত ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ভ্যেকু মেশিন দ্বারা নদী খননের সময় অসাবধনতাভাবে ব্রিজটির পিলারের গোড়ার চারপাশ থেকে অতিরিক্ত মাটি অপসারণ করে। এমতাবস্থায় ব্রিজটির উপর দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করায় পিলারের গোড়া ভেঙ্গে যায়। ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় উপজেলা প্রশাসন সকলের চলাচল বন্ধ করে দেয়।

স্থানীয় সোবহান মহুড়ী বলেন, দীর্ঘদিনের মজবুত ব্রিজটি শুধু মাটি খনন করতে ভেঙ্গে ফেলল। সঠিকভাবে যদি পিলারের গোড়া থেকে মাটি সরাত তাহলে ব্রিজটি ভাঙ্গত না আরো অনেক দিন টিকত বলেও জানান তিনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুসুম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জিহাদ মন্ডল বলেন, ওই ব্রিজের উপর দিয়েই প্রতিনিয়ত গ্রামের বাড়ি ও পরিষদে যাতায়াত করি। ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পাশে নির্মিত কাঠের সরু সাঁকো দিয়ে পারাপার হচ্ছি। স্থানীয় সাংসদ এডভোকেট সামছুল আলম দুদু এমপির কল্যাণে নতুন ব্রিজের বরাদ্দ আসে এবং নির্মাণ কাজও শেষের পথে বলেও জানান জিহাদ।

উপজেলা প্রকৌশলী মো. ওয়ালিউল্লাহ্ সেখ বলেন, প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬০ মিঃ গার্ডার ব্রিজের মুল নির্মাণ কাজ শেষ। ব্রিজটির উভয় পাশ মুল সড়কের সঙ্গে সংযোগ কাজ শুধু বাঁকি আছে। নওগাঁর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স বসুন্ধরা বির্ল্ডার্স ব্রিজটির নির্মাণ কাজ করছেন।