ঢাকা ০৩:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘বিতর্কিত’ নান্নুর জন্মদিন আজ, কেমন ছিল তার ক্যারিয়ার?

বাংলাদেশ ক্রিকেটের বেশ বিতর্কিত এক চরিত্র মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। সাবেক এই টাইগার ব্যাটিং অলরাউন্ডারের জন্মদিন আজ। আজ ৫৮-তে পা রাখলেন বিসিবির প্রধান নির্বাচক। ১৯৬৫ সালের এই দিনে চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন নান্নু। জাতীয় দলে নিজেকে মেলে ধরতে না পারলেও নিজ সময়ে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে বেশ নামডাক ছিল এই সাবেক ক্রিকেটারের।

বাংলাদেশের জার্সিতে নান্নুর অভিষেক হয় ১৯৮৬ সালে, পাকিস্তানের বিপক্ষে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচও খেলেছেন তাদের বিপক্ষেই, ১৯৯৯ বিশ্বকাপে তারকাবহুল পাকিস্তান বধের ঐতিহাসিক ম্যাচই ছিল তার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ।

জাতীয় দলের হয়ে ২৭টি ওয়ানডেতে ১৮.৮৭ গড়ে ৪৫৩ রান করেন নান্নু। ডানহাতি অফস্পিনে ১৩ উইকেটও নিয়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেটের সাবেক এই তারকা। ৩৯ রানে ২ উইকেট তার সেরা বোলিং ফিগার।

১৯৯৯ বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার উঠেছিল নান্নুর হাতে। ১১৬ বলে হার না মানা ৬৮ রানের ইনিংসের পর নিয়েছিলেন ১ উইকেট। শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করেছিলেন অপরাজিত ৫৩ রান।

এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের ম্যাচেও রেখেছিলেন অবদান। ব্যাট হাতে ১৪ রানের পাশাপাশি বল হাতে ৭ ওভারে ২৯ রান খরচায় নেন ১ উইকেট নিয়েছিলেন বর্তমান প্রধান নির্বাচক।

ক্যারিয়ারজুড়ে নান্নু ব্যাট করেছেন খুবই নিম্ন স্ট্রাইক রেটে। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৫০ এরও নিচে, মাত্র ৪৯.৮৩। তৎকালীন সময়ে এখনকার মতো রানের ফুলঝুরি না ছুটলেও সমসাময়িক অন্যান্য টপ অর্ডার ব্যাটারের তুলনায় এক্ষেত্রে বেশ পিছিয়ে ছিলেন নান্নু।

অভিষেক ম্যাচে ব্যাট হাতে করেছিলেন ২৩ বলে ৬ রান। সেই ম্যাচে কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরামের বলে আউট হয়েছিলেন তিনি।

ওয়ানডেতে অবশ্য নান্নুর দু’টি অর্ধশতক আছে, দু’টিই ১৯৯৯ বিশ্বকাপে। কোনো ছক্কা না হাঁকালেও নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তিনি মেরেছেন ২৬টি চার। তবে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটার নান্নু। ২৪ ম্যাচে করেছিলেন ১৭০৯ রান, গড় ৫০ এর ওপরে। তবে এমন দাপুটে পরিসংখ্যানের পরও বাংলাদেশের সাদা জার্সিটা গায়ে জড়ানো হয়নি নান্নুর।

Tag :
জনপ্রিয়

সাটুরিয়ায় নিয়োগ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন

‘বিতর্কিত’ নান্নুর জন্মদিন আজ, কেমন ছিল তার ক্যারিয়ার?

প্রকাশের সময় : ০৮:২৩:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

বাংলাদেশ ক্রিকেটের বেশ বিতর্কিত এক চরিত্র মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। সাবেক এই টাইগার ব্যাটিং অলরাউন্ডারের জন্মদিন আজ। আজ ৫৮-তে পা রাখলেন বিসিবির প্রধান নির্বাচক। ১৯৬৫ সালের এই দিনে চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন নান্নু। জাতীয় দলে নিজেকে মেলে ধরতে না পারলেও নিজ সময়ে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে বেশ নামডাক ছিল এই সাবেক ক্রিকেটারের।

বাংলাদেশের জার্সিতে নান্নুর অভিষেক হয় ১৯৮৬ সালে, পাকিস্তানের বিপক্ষে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচও খেলেছেন তাদের বিপক্ষেই, ১৯৯৯ বিশ্বকাপে তারকাবহুল পাকিস্তান বধের ঐতিহাসিক ম্যাচই ছিল তার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ।

জাতীয় দলের হয়ে ২৭টি ওয়ানডেতে ১৮.৮৭ গড়ে ৪৫৩ রান করেন নান্নু। ডানহাতি অফস্পিনে ১৩ উইকেটও নিয়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেটের সাবেক এই তারকা। ৩৯ রানে ২ উইকেট তার সেরা বোলিং ফিগার।

১৯৯৯ বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার উঠেছিল নান্নুর হাতে। ১১৬ বলে হার না মানা ৬৮ রানের ইনিংসের পর নিয়েছিলেন ১ উইকেট। শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করেছিলেন অপরাজিত ৫৩ রান।

এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের ম্যাচেও রেখেছিলেন অবদান। ব্যাট হাতে ১৪ রানের পাশাপাশি বল হাতে ৭ ওভারে ২৯ রান খরচায় নেন ১ উইকেট নিয়েছিলেন বর্তমান প্রধান নির্বাচক।

ক্যারিয়ারজুড়ে নান্নু ব্যাট করেছেন খুবই নিম্ন স্ট্রাইক রেটে। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৫০ এরও নিচে, মাত্র ৪৯.৮৩। তৎকালীন সময়ে এখনকার মতো রানের ফুলঝুরি না ছুটলেও সমসাময়িক অন্যান্য টপ অর্ডার ব্যাটারের তুলনায় এক্ষেত্রে বেশ পিছিয়ে ছিলেন নান্নু।

অভিষেক ম্যাচে ব্যাট হাতে করেছিলেন ২৩ বলে ৬ রান। সেই ম্যাচে কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরামের বলে আউট হয়েছিলেন তিনি।

ওয়ানডেতে অবশ্য নান্নুর দু’টি অর্ধশতক আছে, দু’টিই ১৯৯৯ বিশ্বকাপে। কোনো ছক্কা না হাঁকালেও নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তিনি মেরেছেন ২৬টি চার। তবে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটার নান্নু। ২৪ ম্যাচে করেছিলেন ১৭০৯ রান, গড় ৫০ এর ওপরে। তবে এমন দাপুটে পরিসংখ্যানের পরও বাংলাদেশের সাদা জার্সিটা গায়ে জড়ানো হয়নি নান্নুর।