ঢাকা ০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

টাইট পোশাকে উপচে পড়ছে যৌবন, ৪১ বছরের এই সুন্দরীর বোল্ড লুকে ফিদা সাইবারবাসী

টিভির অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারিকে দেখে এটা বললে ভুল হবে না যে, তাঁর চেহারায় কোনওভাবেই বয়সের ছাপ প্রভাব ফেলতে পারেনি। কারণ শ্বেতা এখন তাঁর চল্লিশের কোঠায়।

 

কিন্তু যেন আজকাল তাঁর মেয়ে পলক তিওয়ারির থেকেও বেশি হট হয়ে উঠছেন। এই সময়েও শুধুই তাঁর ফ্যাশন সেন্স অসাধারণ নয়, বরং তাঁর গ্ল্যামারাস লুক দেখে এটা বোঝাও মুশলিক যে তাঁর দুজন সন্তানও আছে।

সম্প্রতি একটি কালো ড্রেসে ঠিক এভাবেই রাতের ঘুম কেড়ে নিলেন শ্বেতা তিওয়ারি। কালো বডিকন ড্রেসে তাঁকে এতটাই সুন্দর দেখাচ্ছিল যে, বোঝা মুশকিল, শ্বেতার আসল বয়স কত? চলুন দেখে নেওয়া যাক শ্বেতা তিওয়ারির সেই লুকের ছবি।

বার বার তাক লাগিয়েছেন শ্বেতা!

এটিও একটি বড় কারণ যে, তাঁর স্টাইলিশ লুকের প্রতিটি ছবি প্রায় প্রতিবারই অন্য সুন্দরীদের ছাপিয়ে যায়। এবারও তিনি একটি অসাধারণ এভারগ্রিন ড্রেস পরে একটি অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। এই সময়ে, তাঁর ব্যক্তিত্ব সবাইকে আকর্ষণ করছিল। তাঁর ড্রেসিংয়ের পাশাপাশি ব্যক্তিত্বও ছিল দেখার মতো!

যা শ্বেতার লুককে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। অসাধারণ দেখতে লাগছিল শ্বেতা তিওয়ারিকে। তাঁর এই সম্পূর্ণ লুকের অন্যতম হাতিয়ার ছিল আত্মবিশ্বাস। আত্মবিশ্বাসে ভর দিয়ে শ্বেতা তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। আর অন্যদের জন্যেও সেট করেছিলেন ফ্যাশন গোলস।

কালো ড্রেসে শ্বেতা তিওয়ারি

শ্বেতা তিওয়ারি তাঁর সহ-অভিনেতাদের সঙ্গে মুম্বইয়ে একটি ইভেন্টে অংশ নিতে এসেছিলেন। আসলে, এই পুরো ঘটনাটি সেই সময়ের। তিনি খুব সেক্সি একটি ড্রেস পরেছিলেন। যা তাঁর ফিগারকে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। এই ড্রেসে তাঁর অসাধারণ ট্রান্সফরমেশনটি হাইলাইট হয়েছিল। এমনকী তাঁর স্টাইলিংয়ের আবেদন দেখেও অবাক হয়েছিলেন মানুষ।

নিজের কার্ভি ফিগারকে হাইলাইট করার জন্য একটি কালো ড্রেসে স্টাইল করেছিলেন। আর এই সুন্দর ড্রেসে ভীষণ ভীষণ স্মার্ট দেখাচ্ছিল শ্বেতা তিওয়ারিকে।

উফ! তাঁর স্টাইলিং…

শ্বেতা তিওয়ারি এই লুকের জন্য, মুম্বইয়ের ফ্যাশন ডিজাইনার আশিস কুমারের ডিজাইন করা একটি কালো ফ্লোর লেন্থ গাউন পরেছিলেন। যা তাঁর স্লিম-ট্রিম ফিগারকে নিখুঁতভাবে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল।

এই পোশাকটি তৈরি করতে সি-থ্রু ফ্যাব্রিক সহ শিমারি ফ্যাব্রিকও ব্যবহার করা হয়েছিল। যা এক ধরনের ট্রান্সলুসেন্ট ফ্যাব্রিক। পোশাকের প্যাটার্নে একটি সাহসী টাচ রাখা হয়েছিল। যা বুকের নিচে হরাইজন্টাল হেমলাইনের সঙ্গে অসাধারণ ওমফ ফ্যাক্টর তৈরি করেছিল।

পোশাকের শিমারি এফেক্টের সঙ্গে মানানসই একটি লুক ক্যারি করেছিলেন শ্বেতা তিওয়ারি। পোজ দেওয়ার সময়ে নিজের সাইড কার্ভ হাইলাইট করতে ভোলেননি শ্বেতা। একটি টিজিং ইফেক্ট তৈরি করার জন্য একটি হাই থাই স্লিট যোগ করা হয়েছিল এই ড্রেসে। যা এই সম্পূর্ণ লুকের ফোকাস পয়েন্ট ছিল।

নজর গেল এদিকেও

শ্বেতার পোশাকের উপরের অংশের কথা আলোচনা করি। এটায় ওয়ান শোল্ডার নেকলাইন দেওয়া হয়েছিল। যা এই ড্রেসটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলেছিল। একই সময়ে, এর দৈর্ঘ্য গোড়ালির পর্যন্ত রাখা হয়েছিল। যার হেমলাইনকে একটি ফ্ল্যাট ফ্রি লুক দেওয়া হয়েছিল।

নিঃসন্দেহে, এই পোশাকে এমন অনেক হট এলিমেন্ট যোগ করা হয়েছিল। যে এলিমেন্ট শ্বেতার সৌন্দর্যকে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। শ্বেতার শোল্ডারের সঙ্গে একটি টেল যোগ করা হয়েছিল, যা এই ড্রেসের সৌন্দর্যকে কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছিল। এতে কোনও এমব্রয়ডারি ছিল না। তবে এর সিকুইন এফেক্ট পোশাকটিকে হট করে তুলেছিল।

 

সবাই করলেন এমন কমেন্ট!

এই সাহসী লুকের সঙ্গে একটি নিখুঁত ফিনিশিং দিতে, শ্বেতা খুব সুন্দর মেকআপ ক্যারি করেছেন। মাসকারা এবং বেসিক লাইনার দিয়ে তার চোখ হাইলাইট করেছেন।

একই সময়ে, তিনি তার চোখের পাতায় গাঢ় আইশ্যাডো প্রয়োগ করেছিলেন। বিমিং হাইলাইটার, সফট শিমারি লিপস ছিল দেখার মতো। সাইড স্লিক হেয়ারস্টাইলের আলাদা করে প্রশংসা করতেই হয়। শ্বেতার এই লুকটি কতটা হিট ছিল, তা আপনি সবার কমেন্ট পড়েই বুঝতে পারবেন!

Tag :
জনপ্রিয়

সাটুরিয়ায় নিয়োগ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন

টাইট পোশাকে উপচে পড়ছে যৌবন, ৪১ বছরের এই সুন্দরীর বোল্ড লুকে ফিদা সাইবারবাসী

প্রকাশের সময় : ০৭:৪১:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
টিভির অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারিকে দেখে এটা বললে ভুল হবে না যে, তাঁর চেহারায় কোনওভাবেই বয়সের ছাপ প্রভাব ফেলতে পারেনি। কারণ শ্বেতা এখন তাঁর চল্লিশের কোঠায়।

 

কিন্তু যেন আজকাল তাঁর মেয়ে পলক তিওয়ারির থেকেও বেশি হট হয়ে উঠছেন। এই সময়েও শুধুই তাঁর ফ্যাশন সেন্স অসাধারণ নয়, বরং তাঁর গ্ল্যামারাস লুক দেখে এটা বোঝাও মুশলিক যে তাঁর দুজন সন্তানও আছে।

সম্প্রতি একটি কালো ড্রেসে ঠিক এভাবেই রাতের ঘুম কেড়ে নিলেন শ্বেতা তিওয়ারি। কালো বডিকন ড্রেসে তাঁকে এতটাই সুন্দর দেখাচ্ছিল যে, বোঝা মুশকিল, শ্বেতার আসল বয়স কত? চলুন দেখে নেওয়া যাক শ্বেতা তিওয়ারির সেই লুকের ছবি।

বার বার তাক লাগিয়েছেন শ্বেতা!

এটিও একটি বড় কারণ যে, তাঁর স্টাইলিশ লুকের প্রতিটি ছবি প্রায় প্রতিবারই অন্য সুন্দরীদের ছাপিয়ে যায়। এবারও তিনি একটি অসাধারণ এভারগ্রিন ড্রেস পরে একটি অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। এই সময়ে, তাঁর ব্যক্তিত্ব সবাইকে আকর্ষণ করছিল। তাঁর ড্রেসিংয়ের পাশাপাশি ব্যক্তিত্বও ছিল দেখার মতো!

যা শ্বেতার লুককে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। অসাধারণ দেখতে লাগছিল শ্বেতা তিওয়ারিকে। তাঁর এই সম্পূর্ণ লুকের অন্যতম হাতিয়ার ছিল আত্মবিশ্বাস। আত্মবিশ্বাসে ভর দিয়ে শ্বেতা তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। আর অন্যদের জন্যেও সেট করেছিলেন ফ্যাশন গোলস।

কালো ড্রেসে শ্বেতা তিওয়ারি

শ্বেতা তিওয়ারি তাঁর সহ-অভিনেতাদের সঙ্গে মুম্বইয়ে একটি ইভেন্টে অংশ নিতে এসেছিলেন। আসলে, এই পুরো ঘটনাটি সেই সময়ের। তিনি খুব সেক্সি একটি ড্রেস পরেছিলেন। যা তাঁর ফিগারকে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। এই ড্রেসে তাঁর অসাধারণ ট্রান্সফরমেশনটি হাইলাইট হয়েছিল। এমনকী তাঁর স্টাইলিংয়ের আবেদন দেখেও অবাক হয়েছিলেন মানুষ।

নিজের কার্ভি ফিগারকে হাইলাইট করার জন্য একটি কালো ড্রেসে স্টাইল করেছিলেন। আর এই সুন্দর ড্রেসে ভীষণ ভীষণ স্মার্ট দেখাচ্ছিল শ্বেতা তিওয়ারিকে।

উফ! তাঁর স্টাইলিং…

শ্বেতা তিওয়ারি এই লুকের জন্য, মুম্বইয়ের ফ্যাশন ডিজাইনার আশিস কুমারের ডিজাইন করা একটি কালো ফ্লোর লেন্থ গাউন পরেছিলেন। যা তাঁর স্লিম-ট্রিম ফিগারকে নিখুঁতভাবে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল।

এই পোশাকটি তৈরি করতে সি-থ্রু ফ্যাব্রিক সহ শিমারি ফ্যাব্রিকও ব্যবহার করা হয়েছিল। যা এক ধরনের ট্রান্সলুসেন্ট ফ্যাব্রিক। পোশাকের প্যাটার্নে একটি সাহসী টাচ রাখা হয়েছিল। যা বুকের নিচে হরাইজন্টাল হেমলাইনের সঙ্গে অসাধারণ ওমফ ফ্যাক্টর তৈরি করেছিল।

পোশাকের শিমারি এফেক্টের সঙ্গে মানানসই একটি লুক ক্যারি করেছিলেন শ্বেতা তিওয়ারি। পোজ দেওয়ার সময়ে নিজের সাইড কার্ভ হাইলাইট করতে ভোলেননি শ্বেতা। একটি টিজিং ইফেক্ট তৈরি করার জন্য একটি হাই থাই স্লিট যোগ করা হয়েছিল এই ড্রেসে। যা এই সম্পূর্ণ লুকের ফোকাস পয়েন্ট ছিল।

নজর গেল এদিকেও

শ্বেতার পোশাকের উপরের অংশের কথা আলোচনা করি। এটায় ওয়ান শোল্ডার নেকলাইন দেওয়া হয়েছিল। যা এই ড্রেসটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলেছিল। একই সময়ে, এর দৈর্ঘ্য গোড়ালির পর্যন্ত রাখা হয়েছিল। যার হেমলাইনকে একটি ফ্ল্যাট ফ্রি লুক দেওয়া হয়েছিল।

নিঃসন্দেহে, এই পোশাকে এমন অনেক হট এলিমেন্ট যোগ করা হয়েছিল। যে এলিমেন্ট শ্বেতার সৌন্দর্যকে কমপ্লিমেন্ট দিচ্ছিল। শ্বেতার শোল্ডারের সঙ্গে একটি টেল যোগ করা হয়েছিল, যা এই ড্রেসের সৌন্দর্যকে কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছিল। এতে কোনও এমব্রয়ডারি ছিল না। তবে এর সিকুইন এফেক্ট পোশাকটিকে হট করে তুলেছিল।

 

সবাই করলেন এমন কমেন্ট!

এই সাহসী লুকের সঙ্গে একটি নিখুঁত ফিনিশিং দিতে, শ্বেতা খুব সুন্দর মেকআপ ক্যারি করেছেন। মাসকারা এবং বেসিক লাইনার দিয়ে তার চোখ হাইলাইট করেছেন।

একই সময়ে, তিনি তার চোখের পাতায় গাঢ় আইশ্যাডো প্রয়োগ করেছিলেন। বিমিং হাইলাইটার, সফট শিমারি লিপস ছিল দেখার মতো। সাইড স্লিক হেয়ারস্টাইলের আলাদা করে প্রশংসা করতেই হয়। শ্বেতার এই লুকটি কতটা হিট ছিল, তা আপনি সবার কমেন্ট পড়েই বুঝতে পারবেন!