ঢাকা ১১:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কালীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ

গাজীপুরের কালীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারী বিয়ের দাবিতে সকাল থেকেই প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন।
প্রেমিকাকে বাড়িতে আসতে দেখে প্রেমিক রহিম ও তার পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওর্য়াড বিনিরাইল দক্ষিণপাড়ায় সেকান্দর আলী শেখের বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।
অভিযুক্ত প্রেমিক (ধর্ষক) রহিম শেখ একই গ্রামের (বিনিরাইল) দক্ষিণপাড়ার সেকান্দর আলী শেখের ছেলে।

এ বিষয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেম্বার শফিকুল ইসলাম দর্জি বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক! তবে তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হোক।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী জানান, ৭ বছর আগে প্রতিবেশী ফুফাতো ভাই মালয়েশিয়া প্রবাসী হিমন খরাদীর সাথে পারিবারিকভাবে তার বিয়ে হয়। বিয়ের ৫ বছর পর একই গ্রামের সেকান্দর আলীর ছেলে রহিম শেখের সাথে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। তারপর থেকেই তাদের মাঝে গড়ে উঠে গভীর প্রেমের সম্পর্কে। সম্পর্কের একপর্যায়ে রহিম শেখ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ভুক্তভোগী ওই নারী বিয়ের জন্য প্রেমিক রহিমকে চাপ প্রয়োগ করলে সে বিভিন্নভাবে টালবাহানা করতে থাকে এবং প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিতে বলে। সরল বিশ্বাসে তার কথামতো স্বামীকে ডিভোর্স দেন ওই নারী। ডিভোর্স দেওয়ার পর ওই নারীকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছে বলেও অভিযোগ উঠেছে রহিমের বিরুদ্ধে। কোনো উপায়ন্তর না দেখে শুক্রবার সকালে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন তিনি।

ভিকটিমের পরিবার জানায়, মেয়ের সুখের সংসার রহিম ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে। আমরা তার সুবিচার চাই। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে শুক্রবার বিকালে সরেজমিন দেখা যায়- ভিকটিম তার প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন। অপরদিকে অভিযুক্ত রহিমসহ তার পরিবারের লোকজন বাড়িতে না থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Tag :
জনপ্রিয়

রসিক নির্বাচনে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে; ডালিয়া

কালীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ

প্রকাশের সময় : ১২:৫৭:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

গাজীপুরের কালীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারী বিয়ের দাবিতে সকাল থেকেই প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন।
প্রেমিকাকে বাড়িতে আসতে দেখে প্রেমিক রহিম ও তার পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওর্য়াড বিনিরাইল দক্ষিণপাড়ায় সেকান্দর আলী শেখের বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।
অভিযুক্ত প্রেমিক (ধর্ষক) রহিম শেখ একই গ্রামের (বিনিরাইল) দক্ষিণপাড়ার সেকান্দর আলী শেখের ছেলে।

এ বিষয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেম্বার শফিকুল ইসলাম দর্জি বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক! তবে তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হোক।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী জানান, ৭ বছর আগে প্রতিবেশী ফুফাতো ভাই মালয়েশিয়া প্রবাসী হিমন খরাদীর সাথে পারিবারিকভাবে তার বিয়ে হয়। বিয়ের ৫ বছর পর একই গ্রামের সেকান্দর আলীর ছেলে রহিম শেখের সাথে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। তারপর থেকেই তাদের মাঝে গড়ে উঠে গভীর প্রেমের সম্পর্কে। সম্পর্কের একপর্যায়ে রহিম শেখ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ভুক্তভোগী ওই নারী বিয়ের জন্য প্রেমিক রহিমকে চাপ প্রয়োগ করলে সে বিভিন্নভাবে টালবাহানা করতে থাকে এবং প্রথম স্বামীকে ডিভোর্স দিতে বলে। সরল বিশ্বাসে তার কথামতো স্বামীকে ডিভোর্স দেন ওই নারী। ডিভোর্স দেওয়ার পর ওই নারীকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছে বলেও অভিযোগ উঠেছে রহিমের বিরুদ্ধে। কোনো উপায়ন্তর না দেখে শুক্রবার সকালে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন তিনি।

ভিকটিমের পরিবার জানায়, মেয়ের সুখের সংসার রহিম ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে। আমরা তার সুবিচার চাই। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে শুক্রবার বিকালে সরেজমিন দেখা যায়- ভিকটিম তার প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন। অপরদিকে অভিযুক্ত রহিমসহ তার পরিবারের লোকজন বাড়িতে না থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।