ঢাকা ০২:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাফ জয়ের পর সাতক্ষীরায় পা রাখলেন সাবিনা: পৌঁছেই পেলেন উষ্ণ সংবর্ধনা।

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দক্ষিণ এশিয়ার নারী ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী করেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। এরপর থেকেই অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ বাকি খেলোয়াড়রা ভাসছেন প্রশংসার বন্যায়। সাফ জয়ের পর প্রথমবারের মতো সাতক্ষীরায় পা রাখলেন সাবিনা। পৌঁছেই পেলেন উষ্ণ সংবর্ধনা।

সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থা এই সংবর্ধনার আয়োজন করেছে। আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় সাতক্ষীরা সার্কিট হাউজে জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা শেষে সাতক্ষীরা শহরে এক ঘণ্টা দীর্ঘ এক শোভাযাত্রায় অংশ নেন সাবিনা খাতুন। পুরো শহর প্রদক্ষিণ শেষে সাবিনা কে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়।

সংবর্ধনা শেষে সাফজয়ী সাবিনা বলেন, ‘সাতক্ষীরার মানুষ এভাবে আমাকে সংবর্ধনা জানাবে এটা কখনো কল্পনা করতে পারিনি। আমার জন্য এত আয়োজন দেখে আমি অভিভূত।’

সাতক্ষীরাবাসীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘সাতক্ষীরা বাসীর কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে রইলাম। এমন সাফল্য দেশকে বিশ্বের কাছে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিলো।’

সাতক্ষীরার আরেকজন সাফজয়ী ফুটবলার মাসুরা খাতুন অবশ্য এখনো তার জেলায় পা রাখেননি। তিনি সাতক্ষীরা আসলে তাকেও সংবর্ধনা দেওয়া হবে। তাছাড়া সাবিনা ও মাসুরা কে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে।

Tag :
জনপ্রিয়

সাটুরিয়ায় নিয়োগ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন

সাফ জয়ের পর সাতক্ষীরায় পা রাখলেন সাবিনা: পৌঁছেই পেলেন উষ্ণ সংবর্ধনা।

প্রকাশের সময় : ০৭:৩৯:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দক্ষিণ এশিয়ার নারী ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী করেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। এরপর থেকেই অধিনায়ক সাবিনা খাতুনসহ বাকি খেলোয়াড়রা ভাসছেন প্রশংসার বন্যায়। সাফ জয়ের পর প্রথমবারের মতো সাতক্ষীরায় পা রাখলেন সাবিনা। পৌঁছেই পেলেন উষ্ণ সংবর্ধনা।

সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থা এই সংবর্ধনার আয়োজন করেছে। আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় সাতক্ষীরা সার্কিট হাউজে জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা শেষে সাতক্ষীরা শহরে এক ঘণ্টা দীর্ঘ এক শোভাযাত্রায় অংশ নেন সাবিনা খাতুন। পুরো শহর প্রদক্ষিণ শেষে সাবিনা কে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়।

সংবর্ধনা শেষে সাফজয়ী সাবিনা বলেন, ‘সাতক্ষীরার মানুষ এভাবে আমাকে সংবর্ধনা জানাবে এটা কখনো কল্পনা করতে পারিনি। আমার জন্য এত আয়োজন দেখে আমি অভিভূত।’

সাতক্ষীরাবাসীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘সাতক্ষীরা বাসীর কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে রইলাম। এমন সাফল্য দেশকে বিশ্বের কাছে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিলো।’

সাতক্ষীরার আরেকজন সাফজয়ী ফুটবলার মাসুরা খাতুন অবশ্য এখনো তার জেলায় পা রাখেননি। তিনি সাতক্ষীরা আসলে তাকেও সংবর্ধনা দেওয়া হবে। তাছাড়া সাবিনা ও মাসুরা কে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে।