ঢাকা ১২:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানে সমর্থন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদ ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানের প্রতি সমর্থন প্রদান করার কথা ঘোষণা করেছেন। জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বক্তৃতাকালে তিনি এই ঘোষণার পাশাপাশি ইরানকে পরমাণু বোমা তৈরী থেকে বিরত রাখার তেল আবিবের দৃঢ়প্রত্যয়ের কথাও আবারো জোরালভাবে প্রকাশ করেন।

কয়েক বছরের মধ্যে এই প্রথম ইসরাইলের কোনো প্রধানমন্ত্রী ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানকে সমর্থন করলেন।

লাপিদ বলেন, কিছু বাধা থাকলেও ফিলিস্তিনিদের সাথে দুই জনগণের জন্য দুই রাষ্ট্রভিত্তিক একটি চুক্তি ইসরাইলের নিরাপত্তা, ইসরাইলের অর্থনীতি ও আমাদের সন্তানদের ভবিষ্যতের জন্য সঠিক জিনিস হতে পারে।

তিনি বলেন, যেকোনো চুক্তির শর্ত হবে ইসরাইলের প্রতি হুমকি হবে না- এমন একটি শান্তিপূর্ণ ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র।

আগামী ১ নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় ইসরাইলি সাধারণ নির্বাচনকে সামনে রেখে এই বক্তৃতা করেন লাপিদ। ওই নির্বাচনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু আবার ক্ষমতায় ফিরতে পারেন। নেতানিয়াহু আবার দ্বিরাষ্ট্র সমাধানের বিরোধী।

ইসরাইল ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে পূর্ব জেরুসালেম দখল করে নেয়। তারপর ১৯৮০ সালে তারা পুরো নগরী নিজেদের করে নেয়। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কখনো এর স্বীকৃতি দেয়নি।

ইসরাইল মনে করে, পুরো জেরুসালেম তার অবিভক্ত রাজধানী। তবে আন্তর্জাতিকভাবে তা স্বীকৃত নয়। ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুসালেমকে রাজধানী করে তাদের ভবিষ্যত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

এদিকে ২০১৫ সালের ইরান পরমাণু চুক্তিতে যাতে প্রত্যাবর্তন করা না হয়, সেজন্য ইসরাইল যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানিকে রাজি করানোর চেষ্টা করছে।
লাপিদ জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদে বক্তৃতায় বলেন, ইরানকে পরমাণু বোমা বানানো থেকে বিরত রাখার একমাত্র উপায় হলো দেশটির ওপর সামরিক হামলা চালানোর বিশ্বাসযোগ্য হুমকি প্রদান করা।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ

Tag :

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ২ সহস্রাধিক, আক্রান্ত সাড়ে ৬ লাখ

ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানে সমর্থন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশের সময় : ০২:২৫:৪৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদ ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানের প্রতি সমর্থন প্রদান করার কথা ঘোষণা করেছেন। জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বক্তৃতাকালে তিনি এই ঘোষণার পাশাপাশি ইরানকে পরমাণু বোমা তৈরী থেকে বিরত রাখার তেল আবিবের দৃঢ়প্রত্যয়ের কথাও আবারো জোরালভাবে প্রকাশ করেন।

কয়েক বছরের মধ্যে এই প্রথম ইসরাইলের কোনো প্রধানমন্ত্রী ফিলিস্তিনের সাথে দ্বিরাষ্ট্র সমাধানকে সমর্থন করলেন।

লাপিদ বলেন, কিছু বাধা থাকলেও ফিলিস্তিনিদের সাথে দুই জনগণের জন্য দুই রাষ্ট্রভিত্তিক একটি চুক্তি ইসরাইলের নিরাপত্তা, ইসরাইলের অর্থনীতি ও আমাদের সন্তানদের ভবিষ্যতের জন্য সঠিক জিনিস হতে পারে।

তিনি বলেন, যেকোনো চুক্তির শর্ত হবে ইসরাইলের প্রতি হুমকি হবে না- এমন একটি শান্তিপূর্ণ ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র।

আগামী ১ নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় ইসরাইলি সাধারণ নির্বাচনকে সামনে রেখে এই বক্তৃতা করেন লাপিদ। ওই নির্বাচনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু আবার ক্ষমতায় ফিরতে পারেন। নেতানিয়াহু আবার দ্বিরাষ্ট্র সমাধানের বিরোধী।

ইসরাইল ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে পূর্ব জেরুসালেম দখল করে নেয়। তারপর ১৯৮০ সালে তারা পুরো নগরী নিজেদের করে নেয়। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কখনো এর স্বীকৃতি দেয়নি।

ইসরাইল মনে করে, পুরো জেরুসালেম তার অবিভক্ত রাজধানী। তবে আন্তর্জাতিকভাবে তা স্বীকৃত নয়। ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুসালেমকে রাজধানী করে তাদের ভবিষ্যত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

এদিকে ২০১৫ সালের ইরান পরমাণু চুক্তিতে যাতে প্রত্যাবর্তন করা না হয়, সেজন্য ইসরাইল যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানিকে রাজি করানোর চেষ্টা করছে।
লাপিদ জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদে বক্তৃতায় বলেন, ইরানকে পরমাণু বোমা বানানো থেকে বিরত রাখার একমাত্র উপায় হলো দেশটির ওপর সামরিক হামলা চালানোর বিশ্বাসযোগ্য হুমকি প্রদান করা।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ