ঢাকা ০৯:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গঙ্গাচড়ায় স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান মেয়ের

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় প্রেম করে বিয়ের পর ছেলের বাড়ি থেকে মেনে না নেওয়ায় স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে এক মেয়ে।

আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর ) উপজেলার আলম বিদিতর ইউনিয়নের পাইকান জেনে পাড়ায় এই ঘটনাটি ঘটে। বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় একই উপজেলার বড়বিল ইউনিয়নের মুন্সীপাড়া গ্রামের এক মেয়ে পাইকান জেনে পাড়ার সেরাজুল ইসলামের ছেলে আজিজুলের বাড়ির উঠানে স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে অবস্থান করছিল। এসময় আজিজুলের বাড়ির গেটে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। মেয়েটির আসার খবর পেয়ে আগে থেকেই তারা বাড়ি থেকে সড়ে পরে। উৎসুক জনতা মেয়েটিকে দেখার জন‍্য সেখানে ভিড় করছিল।

মেয়েটির সাথে এবিষয়ে কথা হলে তিনি আলোকিত সকালকে বলেন, দুই বছর আগে আজিজুলের সাথে তার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয়ে প্রেম হয়, এরপর গত তিন সপ্তাহ আগে মেয়েটির বাড়িতে তাদের বিয়ে হয়। জনৈক মিলন কাজী নামের কাজী তাদের বিবাহ পড়ান। কিন্তু বিয়ের পরে আজিজুলের বাড়ি থেকে তাদের এ বিয়ে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানায়। গত কয়েক দিন থেকে আজিজুলও তার মুঠো ফোন বন্ধ করে রাখে। উপায় না পেয়ে মেয়েটি আজ শুক্রবার নামাজ বাদ আজিজুলের বাড়িতে অবস্থান নেয়। এসময় আজিজুলের বাড়িতে কেউ না থাকায় তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তবে আজিজুলের খালা পরিচয় দানকারী ময়না পক্ষান্তরে বিয়ের কথা স্বীকার করে বলেন, মেয়েটির আরও একটি যায়গায় বিবাহ হয়েছিল বলে ঐ মেয়েকে মেনে নিবেনা বলে তাকে জানিয়েছে ভাগিনা।

এবিষয়ে মেয়েটির পরিবার ও এলাকার লোকজনের কাছ থেকে জানা যায় মেয়েটির অন‍্যখানে বিয়ে অবস্থায় আজিজুলের সাথে প্রেম হয়। এবং তিন সপ্তাহ আগে পুরাতন স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর পরের দিন তাদের দুজনের বিয়ে হয়। এবিষয়ে মিলন কাজীর সাথে যোগাযোগ করে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Tag :

জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়ের ঘটনা বিদ্যুৎ খাতসহ সরকারের সার্বিক ব্যর্থতা: মির্জা ফখরুল।

গঙ্গাচড়ায় স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান মেয়ের

প্রকাশের সময় : ০১:৪০:২৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় প্রেম করে বিয়ের পর ছেলের বাড়ি থেকে মেনে না নেওয়ায় স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে এক মেয়ে।

আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর ) উপজেলার আলম বিদিতর ইউনিয়নের পাইকান জেনে পাড়ায় এই ঘটনাটি ঘটে। বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় একই উপজেলার বড়বিল ইউনিয়নের মুন্সীপাড়া গ্রামের এক মেয়ে পাইকান জেনে পাড়ার সেরাজুল ইসলামের ছেলে আজিজুলের বাড়ির উঠানে স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে অবস্থান করছিল। এসময় আজিজুলের বাড়ির গেটে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। মেয়েটির আসার খবর পেয়ে আগে থেকেই তারা বাড়ি থেকে সড়ে পরে। উৎসুক জনতা মেয়েটিকে দেখার জন‍্য সেখানে ভিড় করছিল।

মেয়েটির সাথে এবিষয়ে কথা হলে তিনি আলোকিত সকালকে বলেন, দুই বছর আগে আজিজুলের সাথে তার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয়ে প্রেম হয়, এরপর গত তিন সপ্তাহ আগে মেয়েটির বাড়িতে তাদের বিয়ে হয়। জনৈক মিলন কাজী নামের কাজী তাদের বিবাহ পড়ান। কিন্তু বিয়ের পরে আজিজুলের বাড়ি থেকে তাদের এ বিয়ে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানায়। গত কয়েক দিন থেকে আজিজুলও তার মুঠো ফোন বন্ধ করে রাখে। উপায় না পেয়ে মেয়েটি আজ শুক্রবার নামাজ বাদ আজিজুলের বাড়িতে অবস্থান নেয়। এসময় আজিজুলের বাড়িতে কেউ না থাকায় তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তবে আজিজুলের খালা পরিচয় দানকারী ময়না পক্ষান্তরে বিয়ের কথা স্বীকার করে বলেন, মেয়েটির আরও একটি যায়গায় বিবাহ হয়েছিল বলে ঐ মেয়েকে মেনে নিবেনা বলে তাকে জানিয়েছে ভাগিনা।

এবিষয়ে মেয়েটির পরিবার ও এলাকার লোকজনের কাছ থেকে জানা যায় মেয়েটির অন‍্যখানে বিয়ে অবস্থায় আজিজুলের সাথে প্রেম হয়। এবং তিন সপ্তাহ আগে পুরাতন স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর পরের দিন তাদের দুজনের বিয়ে হয়। এবিষয়ে মিলন কাজীর সাথে যোগাযোগ করে কথা বলা সম্ভব হয়নি।