ঢাকা ১২:২৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মাদক মামলায় ৬ মাসের সাজা এড়াতে ৮ বছর পলাতক: অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেফতার।

মাদক মামলায় ৬ মাসের কারাদণ্ড এড়াতে ৮ বছর পলাতক থাকার পর চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন মো. জিয়া তৌহিদ।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) ভোরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আকবর শাহ্ থানার ফিরোজ শাহ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আকবর শাহ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওয়ালি উদ্দিন আকবর।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার জিয়া তৌহিদের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের ৯ সেপ্টেম্বর নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯(১) এর ৯(ক) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। এরপর ২০১৫ সালের ১৪ জানুয়ারি আদালত তাকে ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। এছাড়া ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত। তারপর থেকে পলাতক ছিলেন আসামি জিয়া। অবশেষে আজ ভোরে আকবর শাহ্ থানা পুলিশের একটি দল তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নগরীর ফিরোজ শাহ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

ওসি আরো বলেন, রায় ঘোষণার পর থেকে জিয়া বেশিরভাগ সময় ঢাকায় অবস্থান করেছেন। সেখানে চাকরিও করেছেন। চট্টগ্রামেও তার আসা যাওয়া ছিল।

Tag :

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ২ সহস্রাধিক, আক্রান্ত সাড়ে ৬ লাখ

মাদক মামলায় ৬ মাসের সাজা এড়াতে ৮ বছর পলাতক: অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেফতার।

প্রকাশের সময় : ০৮:০৭:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

মাদক মামলায় ৬ মাসের কারাদণ্ড এড়াতে ৮ বছর পলাতক থাকার পর চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন মো. জিয়া তৌহিদ।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) ভোরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আকবর শাহ্ থানার ফিরোজ শাহ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আকবর শাহ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওয়ালি উদ্দিন আকবর।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার জিয়া তৌহিদের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের ৯ সেপ্টেম্বর নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯(১) এর ৯(ক) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। এরপর ২০১৫ সালের ১৪ জানুয়ারি আদালত তাকে ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। এছাড়া ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত। তারপর থেকে পলাতক ছিলেন আসামি জিয়া। অবশেষে আজ ভোরে আকবর শাহ্ থানা পুলিশের একটি দল তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নগরীর ফিরোজ শাহ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

ওসি আরো বলেন, রায় ঘোষণার পর থেকে জিয়া বেশিরভাগ সময় ঢাকায় অবস্থান করেছেন। সেখানে চাকরিও করেছেন। চট্টগ্রামেও তার আসা যাওয়া ছিল।