ঢাকা ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আন্দোলনে ভয় পেয়ে ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে হয়রানি: ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপির চলমান আন্দোলনে ভীত হয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত পুলিশ বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করার নামে হয়রানি করছে এবং দেশে বিরাজমান ভয়ের পরিস্থিতিকে আরও আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলছে।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনগুলোর কমিটির তালিকা সংগ্রহ করছে পুলিশ। এ ধরনের কর্মকাণ্ড বাংলাদেশ সংবিধান ফৌজদারী কার্যবিধি পুলিশ আইন বা পুলিশবিধি কিংবা অন্য কোনো আইন দ্বারা কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। পুলিশের এ ধরনের কার্যক্রম একদিকে যেমন নাগরিকের গোপনীয়তার অধিকার ক্ষুণ্ন করছে তেমনি নাগরিকের আইনি অধিকার ভোগ করা এবং তার ব্যক্তি স্বাধীনতার উপর নগ্ন হস্তক্ষেপ বলে প্রতিয়মান হয়, যা সংবিধানের ৩১, ৩২ এবং ৪৩ অনুচ্ছেদের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নেতাকর্মীদের পেশা, সন্তান-সম্পত্তির বিবরণসহ ১৪ গোষ্ঠীর যাবতীয় বিষয়ে পুলিশের তথ্য সংগ্রহ দেশে বিরাজমান আতঙ্কের পরিস্থিতিকে ভয়াবহ করে তুলছে। বিএনপি এই অবস্থার অবসান চায়। আমরা পুলিশ কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানাচ্ছি, এইভাবে সাধারণ নাগরিক, রাজনৈতিক কর্মীদের হয়রানি বন্ধ করে দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টি করে সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবেন।’

নির্বাচন কমিশন জাতির সঙ্গে মশকরা শুরু করেছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ছাড়া প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশন সংলাপে ইভিএম এর বিপক্ষে কথা বললেও নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে নয় হাজার কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে ইভিএম মেশিন কেনার জন্য। এর মানেই হচ্ছে এই দেশে কোনো জবাবদিহি করতে হয় না কাউকে। আসলে দেশের সরকার নাই আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলার জন্য দলের কাউকে নির্দেশনা দেওয়া হয়নি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের এমন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনায় মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের সভায় যোগ দেওয়ায় ভাবমূর্তি রক্ষায় লোক দেখাতে বিএনপির কর্মসূচিতে হামলা না করার কথা বলছে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা।

বাংলাদেশের নির্বাচন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া সাক্ষাৎকার নিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন এটা প্রমাণিত।

এ সময় সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের দেশের জন্য গর্ব বয়ে আনায় বিএনপির পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

Tag :
জনপ্রিয়

রসিক নির্বাচন ; আ’লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার গণসংযোগ অনুষ্ঠিত

আন্দোলনে ভয় পেয়ে ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে হয়রানি: ফখরুল

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপির চলমান আন্দোলনে ভীত হয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত পুলিশ বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করার নামে হয়রানি করছে এবং দেশে বিরাজমান ভয়ের পরিস্থিতিকে আরও আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলছে।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনগুলোর কমিটির তালিকা সংগ্রহ করছে পুলিশ। এ ধরনের কর্মকাণ্ড বাংলাদেশ সংবিধান ফৌজদারী কার্যবিধি পুলিশ আইন বা পুলিশবিধি কিংবা অন্য কোনো আইন দ্বারা কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। পুলিশের এ ধরনের কার্যক্রম একদিকে যেমন নাগরিকের গোপনীয়তার অধিকার ক্ষুণ্ন করছে তেমনি নাগরিকের আইনি অধিকার ভোগ করা এবং তার ব্যক্তি স্বাধীনতার উপর নগ্ন হস্তক্ষেপ বলে প্রতিয়মান হয়, যা সংবিধানের ৩১, ৩২ এবং ৪৩ অনুচ্ছেদের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নেতাকর্মীদের পেশা, সন্তান-সম্পত্তির বিবরণসহ ১৪ গোষ্ঠীর যাবতীয় বিষয়ে পুলিশের তথ্য সংগ্রহ দেশে বিরাজমান আতঙ্কের পরিস্থিতিকে ভয়াবহ করে তুলছে। বিএনপি এই অবস্থার অবসান চায়। আমরা পুলিশ কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানাচ্ছি, এইভাবে সাধারণ নাগরিক, রাজনৈতিক কর্মীদের হয়রানি বন্ধ করে দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টি করে সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবেন।’

নির্বাচন কমিশন জাতির সঙ্গে মশকরা শুরু করেছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ছাড়া প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশন সংলাপে ইভিএম এর বিপক্ষে কথা বললেও নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে নয় হাজার কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে ইভিএম মেশিন কেনার জন্য। এর মানেই হচ্ছে এই দেশে কোনো জবাবদিহি করতে হয় না কাউকে। আসলে দেশের সরকার নাই আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলার জন্য দলের কাউকে নির্দেশনা দেওয়া হয়নি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের এমন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনায় মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের সভায় যোগ দেওয়ায় ভাবমূর্তি রক্ষায় লোক দেখাতে বিএনপির কর্মসূচিতে হামলা না করার কথা বলছে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা।

বাংলাদেশের নির্বাচন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া সাক্ষাৎকার নিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন এটা প্রমাণিত।

এ সময় সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের দেশের জন্য গর্ব বয়ে আনায় বিএনপির পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিল বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।