ঢাকা ০৭:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সীমান্তে মিয়ানমারের গোলাগুলি নিয়ে যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশের সীমান্তের ভেতরে মিয়ানমারের গোলা নিক্ষেপের ঘটনাকে ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’ বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। তিনি জানান, মিয়ানমার বাংলাদেশের কাছে অঙ্গীকার করেছে ভবিষ্যতে এ ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করবে।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কের হোটেল লোটে ৭৭তম ইউএনজিএ-তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসূচি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আব্দুল মোমেন বলেন, ওই এলাকার বর্ডারটা খুব ক্রিসক্রস। কখনো কখনো এটা বোঝা মুশকিল। তো সে কারণে ওরা (মিয়ানমার) বলেছে যে তারা কোনো টার্গেটেড করে আমাদের এখানে কিছু ফেলছে না। দু-একটা যা পড়েছে সেগুলো বাই মিসটেক। আমরা তাদের ডেকেছি। তারা আমাদের অঙ্গীকার করেছে ভবিষ্যতে এ ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করবে।

মিয়ানমারে সংঘাতের কারণে নতুন করে কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়া হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা খুব স্ট্রং পজিশন নিয়েছি। আমাদের এন্টার বর্ডারটা সিল করে দিয়েছি। যাতে করে একটা রোহিঙ্গাও আমাদের এদিকে ঢুকতে না পারে।

তিনি বলেন, যে সংঘাত হচ্ছে সেটা মিয়ানমারের সংঘাত। তাদের ওখানে দু’দল মারামারি করছে। আর যেহেতু অনেক রোহিঙ্গা বর্ডার এলাকার নো ম্যান্স ল্যান্ডে থাকে, তার ফলে সেখানে সংঘাতের সময় কিছু গোলাগুলি হয়।

আব্দুল মোমেন বলেন, আপনারা জানেন ইতোমধ্যে কিছু লোক চিন (মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ) এলাকায় যাচ্ছে। আমাদের দিকে সাহস করে আসেনি। দেশে রোহিঙ্গা যারা আছে তাদেরই এখনো ফেরত পাঠাতে পারি নাই। তবে তারা চলে যাবে বলে আশা করছি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যেই মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে এবং মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ সতর্ক থাকবে বলে আমাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

সম্প্রতি বান্দরবনের ঘুমধুম এবং কক্সবাজারের উখিয়ায় মিয়ানমার থেকে আসা গোলা ও মর্টার শেল পড়েছে।

Tag :
জনপ্রিয়

পা‌কিস্তা‌নের নতুন সেনাপ্রধা‌নের দা‌য়িত্ব নি‌লেন আ‌সিম মু‌নির

সীমান্তে মিয়ানমারের গোলাগুলি নিয়ে যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০৯:৩২:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

বাংলাদেশের সীমান্তের ভেতরে মিয়ানমারের গোলা নিক্ষেপের ঘটনাকে ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’ বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। তিনি জানান, মিয়ানমার বাংলাদেশের কাছে অঙ্গীকার করেছে ভবিষ্যতে এ ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করবে।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কের হোটেল লোটে ৭৭তম ইউএনজিএ-তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসূচি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আব্দুল মোমেন বলেন, ওই এলাকার বর্ডারটা খুব ক্রিসক্রস। কখনো কখনো এটা বোঝা মুশকিল। তো সে কারণে ওরা (মিয়ানমার) বলেছে যে তারা কোনো টার্গেটেড করে আমাদের এখানে কিছু ফেলছে না। দু-একটা যা পড়েছে সেগুলো বাই মিসটেক। আমরা তাদের ডেকেছি। তারা আমাদের অঙ্গীকার করেছে ভবিষ্যতে এ ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করবে।

মিয়ানমারে সংঘাতের কারণে নতুন করে কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়া হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা খুব স্ট্রং পজিশন নিয়েছি। আমাদের এন্টার বর্ডারটা সিল করে দিয়েছি। যাতে করে একটা রোহিঙ্গাও আমাদের এদিকে ঢুকতে না পারে।

তিনি বলেন, যে সংঘাত হচ্ছে সেটা মিয়ানমারের সংঘাত। তাদের ওখানে দু’দল মারামারি করছে। আর যেহেতু অনেক রোহিঙ্গা বর্ডার এলাকার নো ম্যান্স ল্যান্ডে থাকে, তার ফলে সেখানে সংঘাতের সময় কিছু গোলাগুলি হয়।

আব্দুল মোমেন বলেন, আপনারা জানেন ইতোমধ্যে কিছু লোক চিন (মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ) এলাকায় যাচ্ছে। আমাদের দিকে সাহস করে আসেনি। দেশে রোহিঙ্গা যারা আছে তাদেরই এখনো ফেরত পাঠাতে পারি নাই। তবে তারা চলে যাবে বলে আশা করছি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যেই মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে এবং মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ সতর্ক থাকবে বলে আমাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

সম্প্রতি বান্দরবনের ঘুমধুম এবং কক্সবাজারের উখিয়ায় মিয়ানমার থেকে আসা গোলা ও মর্টার শেল পড়েছে।