ঢাকা ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইমরানের বিরুদ্ধে মামলায় সন্ত্রাসের অভিযোগ বাতিলের নির্দেশ

কয়েক দফা আগাম জামিনের পর অবশেষে সন্ত্রাসের অভিযোগ থেকে মুক্তি মিলল পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের। মামলা থেকে অবশ্য এখনও রেহাই পাননি তিনি।

সোমবার ইসলামাবাদ হাইকোর্ট মামলা খারিজ করে দিয়ে বলেছেন, জনসমাবেশে যে বক্তব্য দেওয়ার জেরে ইমরান খানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের মামলা করা হয়েছে— সেই বক্তব্যে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। ইমরানের বিরুদ্ধে দায়ের ওই মামলা থেকে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ বাদ দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ফলে, হাইকোর্টের এই নির্দেশের পর ইমরানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে নেওয়া হলেও সাধারণ আদালতে মামলা চলবে বলে জানিয়েছেন পিটিআইয়ের জ্যেষ্ঠ নেতা ও ইমরান খানের অন্যতম আইনজীবী ফাওয়াদ চৌধরি।

তবে ইমরান খানের হাইকোর্টের আইনজীবী সালমান সাফদারের দাবি, উচ্চ আদালত সন্ত্রাসের অভিযোগ খারিজ করে দেওয়ায় মামলাটি ‘মেরুদণ্ড’ হারিয়েছে। হাইকোর্টের আদেশের পর মামলাটি অনেকখানি নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

গত ১০ এপ্রিল পাকিস্তানের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে দেশটির শাসনক্ষমতার প্রভাবশালী অংশ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে গ্রেপ্তার হন ইমরান খানের ঘনিষ্ট সহকারী ও পিটিআইয়ের জেষ্ঠ্য নেতা শাহবাজ গিল।

শাহবাজের মুক্তির দাবিতে ব্যাপকভাবে সরব হন পিটিআই চেয়ারম্যান। গত ২১ আগস্ট এক দলীয় সমাবেশে বক্তৃতা দেওয়ার সময় ইমরান মন্তব্য করেন, যদি অবিলম্বে শাহবাজের ওপর থেকে মামলা প্রত্যাহার ও তাকে মুক্তি দেওয়া না হয়, তাহলে ইসলামাবাদ পুলিশের আইজি, ডিআইজি ও যে আদালতে শাহবাজের বিচার চলছে, তার বিচারক জেবা চৌধরীকে ‘দেখে নেবেন’ তিনি।

এই বক্তব্য দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সন্ত্রাস ও সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে মামলা হয় ইমরান খানের বিরুদ্ধে। মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে পরের দিন ২২ আগস্ট ইসলামাবাদের সন্ত্রাসবিরোধী আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করেন পিটিআইয়ের দুই আইনজীবী ফয়সাল চৌধুরী ও বাবর আওয়ান।

সফল ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ৬৯ বছর বয়সী ইমরান খান অবশ্য বলেছেন, প্রতিপক্ষ রাজনীতিকরা তদের নিজেদের স্বার্থে এই আইনী পদক্ষেপ নিয়েছে।

গত ২১ আগস্ট মামলা দায়েরের পর গ্রেপ্তার এড়াতে এ পর্যন্ত চার দফা আগাম জামিন নিয়েছেন ইমরান খান। সর্বশেষ গত ১২ সেপ্টেম্বর তাকে ৮ দিনের জামিন দেন আদালত, সোমাবার ছিল সেই জামিনের শেষ দিন।

এই দিন হাইকোর্টের শুনানিতে সরকারপক্ষের আইনজীবী রাজা রিজওয়ান আব্বাসি বলেন গত ২১ আগস্ট ইমরান দেশের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দিয়েছেন।

অপরদিকে ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সাফদার বলেন, ইমরান খান তাদের বিরুদ্ধে শারীরিক হামলার হুমকি নয়, বরং আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন।

এই দিন হাইকোর্টের শুনানিতে সরকারপক্ষের আইনজীবী রাজা রিজওয়ান আব্বাসি বলেন গত ২১ আগস্ট ইমরান দেশের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দিয়েছেন।

অপরদিকে ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সাফদার বলেন, ইমরান খান তাদের বিরুদ্ধে শারীরিক হামলার হুমকি নয়, বরং আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন। আদালত বরাবর এই মামলার খারিজ করে দেওয়ারও আর্জি জানান সাফদার।

আদালত উভয়ের বক্তব্য শোনার পর মামলা থেকে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ বাতিল করতে নিম্ন আদালতকে নির্দেশ দেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট।

সূত্র : আলজাজিরা

Tag :
জনপ্রিয়

হোসেনপুর বাজার সনাতন ধর্মাবলম্বী ব্যাবসায়িকদের উদ্যোগে বস্ত্র বিতরণ

ইমরানের বিরুদ্ধে মামলায় সন্ত্রাসের অভিযোগ বাতিলের নির্দেশ

প্রকাশের সময় : ০৯:২২:১৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

কয়েক দফা আগাম জামিনের পর অবশেষে সন্ত্রাসের অভিযোগ থেকে মুক্তি মিলল পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের। মামলা থেকে অবশ্য এখনও রেহাই পাননি তিনি।

সোমবার ইসলামাবাদ হাইকোর্ট মামলা খারিজ করে দিয়ে বলেছেন, জনসমাবেশে যে বক্তব্য দেওয়ার জেরে ইমরান খানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের মামলা করা হয়েছে— সেই বক্তব্যে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। ইমরানের বিরুদ্ধে দায়ের ওই মামলা থেকে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ বাদ দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ফলে, হাইকোর্টের এই নির্দেশের পর ইমরানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে নেওয়া হলেও সাধারণ আদালতে মামলা চলবে বলে জানিয়েছেন পিটিআইয়ের জ্যেষ্ঠ নেতা ও ইমরান খানের অন্যতম আইনজীবী ফাওয়াদ চৌধরি।

তবে ইমরান খানের হাইকোর্টের আইনজীবী সালমান সাফদারের দাবি, উচ্চ আদালত সন্ত্রাসের অভিযোগ খারিজ করে দেওয়ায় মামলাটি ‘মেরুদণ্ড’ হারিয়েছে। হাইকোর্টের আদেশের পর মামলাটি অনেকখানি নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

গত ১০ এপ্রিল পাকিস্তানের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে দেশটির শাসনক্ষমতার প্রভাবশালী অংশ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে গ্রেপ্তার হন ইমরান খানের ঘনিষ্ট সহকারী ও পিটিআইয়ের জেষ্ঠ্য নেতা শাহবাজ গিল।

শাহবাজের মুক্তির দাবিতে ব্যাপকভাবে সরব হন পিটিআই চেয়ারম্যান। গত ২১ আগস্ট এক দলীয় সমাবেশে বক্তৃতা দেওয়ার সময় ইমরান মন্তব্য করেন, যদি অবিলম্বে শাহবাজের ওপর থেকে মামলা প্রত্যাহার ও তাকে মুক্তি দেওয়া না হয়, তাহলে ইসলামাবাদ পুলিশের আইজি, ডিআইজি ও যে আদালতে শাহবাজের বিচার চলছে, তার বিচারক জেবা চৌধরীকে ‘দেখে নেবেন’ তিনি।

এই বক্তব্য দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সন্ত্রাস ও সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে মামলা হয় ইমরান খানের বিরুদ্ধে। মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে পরের দিন ২২ আগস্ট ইসলামাবাদের সন্ত্রাসবিরোধী আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করেন পিটিআইয়ের দুই আইনজীবী ফয়সাল চৌধুরী ও বাবর আওয়ান।

সফল ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ৬৯ বছর বয়সী ইমরান খান অবশ্য বলেছেন, প্রতিপক্ষ রাজনীতিকরা তদের নিজেদের স্বার্থে এই আইনী পদক্ষেপ নিয়েছে।

গত ২১ আগস্ট মামলা দায়েরের পর গ্রেপ্তার এড়াতে এ পর্যন্ত চার দফা আগাম জামিন নিয়েছেন ইমরান খান। সর্বশেষ গত ১২ সেপ্টেম্বর তাকে ৮ দিনের জামিন দেন আদালত, সোমাবার ছিল সেই জামিনের শেষ দিন।

এই দিন হাইকোর্টের শুনানিতে সরকারপক্ষের আইনজীবী রাজা রিজওয়ান আব্বাসি বলেন গত ২১ আগস্ট ইমরান দেশের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দিয়েছেন।

অপরদিকে ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সাফদার বলেন, ইমরান খান তাদের বিরুদ্ধে শারীরিক হামলার হুমকি নয়, বরং আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন।

এই দিন হাইকোর্টের শুনানিতে সরকারপক্ষের আইনজীবী রাজা রিজওয়ান আব্বাসি বলেন গত ২১ আগস্ট ইমরান দেশের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দিয়েছেন।

অপরদিকে ইমরান খানের আইনজীবী সালমান সাফদার বলেন, ইমরান খান তাদের বিরুদ্ধে শারীরিক হামলার হুমকি নয়, বরং আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন। আদালত বরাবর এই মামলার খারিজ করে দেওয়ারও আর্জি জানান সাফদার।

আদালত উভয়ের বক্তব্য শোনার পর মামলা থেকে সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগ বাতিল করতে নিম্ন আদালতকে নির্দেশ দেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট।

সূত্র : আলজাজিরা