ঢাকা ০২:২৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অনেক সুযোগ হারিয়েও মেসির গোলে পিএসজির জয়

লিওনেল মেসির একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল পিএসজি। যদিও ম্যাচের অধিকাংশ সময় অলিম্পিক লিঁওর রক্ষণভাগে চলে মেসি-নেইমারদের মুহুর্মুহু আক্রমণ। জবাবে বেশ কয়েকবার পাল্টা আক্রমণেও উঠেছিল লিঁও। কিন্তু তাতে ফল মেলেনি। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে লিঁওর বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জিতে ক্রিস্তফ গালতিয়েরের দল।

প্রথমার্ধের খেলার মাত্র পঞ্চম মিনিটেই দলকে এগিয়ে দেন লিওনেল মেসি। লিঁওর রক্ষণভাগে হানা দিয়ে নেইমারকে বল পাঠিয়ে দেন মেসি। তবে নিজে গোল না করে মেসিকে আবার ফিরতি পাস দেন নেইমার। সেই পাশে পাওয়া বল দারুণ দক্ষতায় প্রতিপক্ষের জালে বল জড়ান এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। যদিও লিঁও গোলরক্ষক লোপেস ঝাঁপিয়ে পড়ে গোল ঠেকানোর চেস্টা করেছিলেন।

এগিয়ে যাওয়ার পর লিঁওর রক্ষণেভাগে একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেরা। তবে তাদের দারুণ কিছু চেষ্টা ঠেকিয়ে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। আবার কিছু আক্রমণ প্রতিহত করে তাদের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়রা। বিপরীতে কয়েকবার সুযোগ বুঝে পাল্টা আক্রমণ চালায় স্বাগতিকরাও। কিন্তু পিএসজি গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মার কারণে তাদের সব চেষ্টাই বিফলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধেও চলে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেদের আক্রমণ। ৭০তম মিনিটে নুনো মেন্দেসের ক্রসে বল পেয়ে শট নেন এমবাপ্পে। তবে তার শটটি ঠেকিয়ে দেন লোপেস । ৭২তম মিনিটে আবারও নেইমারের নিচু শট। তবে এবারও প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক লোপেস ও তাগলিয়াফিকোর নৈপুণ্যে গোল বঞ্চিত হতে হয় পিএসজিকে। বরং এর পরের মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হন লিঁও’র টোকো একাম্বি। পিএসজি গোলরক্ষক দোন্নারুম্মার মাথার ওপর দিয়ে বল পাঠাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মার্কিনিয়োস সেই বল ক্লিয়ার করে দেন।

৭৭তম মিনিটে ফের একবার সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। এবার দেম্বেলের প্রচেষ্টা রুখে দেন দুন্নারুম্মা। এর পরের মিনিটে মেসির নিচু শট আবার ঠেকিয়ে দেন লোপেস।

এরপর যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে একটি গোল করে পিএসজি। তবে অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়ে গেলে ১-০ ব্যবধান জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মেসি-নেইমারদের।

এ জয়ের সুবাদে ৮ ম্যাচে সাত জয় ও এক ড্রয়ে ২২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে পিএসজি। অপরদিকে সমান ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে মার্শেই। আর ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ অবস্থানে আছে পরাজিত লিঁও।

Tag :
জনপ্রিয়

সাটুরিয়ায় নিয়োগ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন

অনেক সুযোগ হারিয়েও মেসির গোলে পিএসজির জয়

প্রকাশের সময় : ০৮:৫৭:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

লিওনেল মেসির একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল পিএসজি। যদিও ম্যাচের অধিকাংশ সময় অলিম্পিক লিঁওর রক্ষণভাগে চলে মেসি-নেইমারদের মুহুর্মুহু আক্রমণ। জবাবে বেশ কয়েকবার পাল্টা আক্রমণেও উঠেছিল লিঁও। কিন্তু তাতে ফল মেলেনি। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে লিঁওর বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জিতে ক্রিস্তফ গালতিয়েরের দল।

প্রথমার্ধের খেলার মাত্র পঞ্চম মিনিটেই দলকে এগিয়ে দেন লিওনেল মেসি। লিঁওর রক্ষণভাগে হানা দিয়ে নেইমারকে বল পাঠিয়ে দেন মেসি। তবে নিজে গোল না করে মেসিকে আবার ফিরতি পাস দেন নেইমার। সেই পাশে পাওয়া বল দারুণ দক্ষতায় প্রতিপক্ষের জালে বল জড়ান এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। যদিও লিঁও গোলরক্ষক লোপেস ঝাঁপিয়ে পড়ে গোল ঠেকানোর চেস্টা করেছিলেন।

এগিয়ে যাওয়ার পর লিঁওর রক্ষণেভাগে একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেরা। তবে তাদের দারুণ কিছু চেষ্টা ঠেকিয়ে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। আবার কিছু আক্রমণ প্রতিহত করে তাদের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়রা। বিপরীতে কয়েকবার সুযোগ বুঝে পাল্টা আক্রমণ চালায় স্বাগতিকরাও। কিন্তু পিএসজি গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মার কারণে তাদের সব চেষ্টাই বিফলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধেও চলে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেদের আক্রমণ। ৭০তম মিনিটে নুনো মেন্দেসের ক্রসে বল পেয়ে শট নেন এমবাপ্পে। তবে তার শটটি ঠেকিয়ে দেন লোপেস । ৭২তম মিনিটে আবারও নেইমারের নিচু শট। তবে এবারও প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক লোপেস ও তাগলিয়াফিকোর নৈপুণ্যে গোল বঞ্চিত হতে হয় পিএসজিকে। বরং এর পরের মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হন লিঁও’র টোকো একাম্বি। পিএসজি গোলরক্ষক দোন্নারুম্মার মাথার ওপর দিয়ে বল পাঠাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মার্কিনিয়োস সেই বল ক্লিয়ার করে দেন।

৭৭তম মিনিটে ফের একবার সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। এবার দেম্বেলের প্রচেষ্টা রুখে দেন দুন্নারুম্মা। এর পরের মিনিটে মেসির নিচু শট আবার ঠেকিয়ে দেন লোপেস।

এরপর যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে একটি গোল করে পিএসজি। তবে অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়ে গেলে ১-০ ব্যবধান জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মেসি-নেইমারদের।

এ জয়ের সুবাদে ৮ ম্যাচে সাত জয় ও এক ড্রয়ে ২২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে পিএসজি। অপরদিকে সমান ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে মার্শেই। আর ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ অবস্থানে আছে পরাজিত লিঁও।