ঢাকা ১২:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁয়ে শতবর্ষী গাছ যেনো ‘মৃত্যুফাঁদ’

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে ঐতিহ্যবাহী কাইকারটেক হাটে শতবর্ষী মরা পুরোনো গাছের কারণে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। সামান্য বাতাসে গাছের ডালপালা ভেঙে যাচ্ছে। সামান্য ঝড়ো বাতাসে মরা গাছের ডালপালা হাটের ওপর উপড়ে পড়ছে। এতে হাটের ক্রেতা ও বিক্রেতা ও পথচারীরা দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।

হাটে আসা মনারকান্দী ইকবাল জানান, অনেক দিন ধরে গাছগুলো ধীরে ধীরে মরে যায়। এই মরা গাছগুলো উপড়ে নেওয়া না হলে বা গাছ দ্রুত অপসারণ করা না হলে যেকোন সময় অঘটন ঘটাতেই পারে। এইতো গত সপ্তাহে হাটের দিন একটি ডাল আকস্মিক ভাবে ভেঙে পড়ে দোকানের উপরে থাকা প্লাস্টিকের উপর পড়ায় সাধারণ জনগণ দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায়।

হাটে আসা মোগরাপাড়া রহিম বলেন, এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হাট, মরা গাছের কারণে আতঙ্কের মধ্য দিয়ে এই হাটে ও সড়কে যাতায়াত করতে হয়। সামান্য বাতাসে ডালপালা ভেঙে পড়ে। কিছুদিন আগে বাজারে যাওয়ার পথে মরা ডাল ভেঙে আমার বাইসাইকেলের হ্যান্ডেলে পড়ে। হ্যান্ডেলটি ভেঙে যায়। ওই দিন আমি বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যাই। সরকারের কাছে দাবি জানাই, যেন দ্রুত এই গাছগুলো কেটে নেয়। না হলে বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

দোকানদার আব্দুল আজিজ বলেন, গুরুত্বপূর্ণ হাটটির বেশ কিছু গাছ অনেক দিন থেকে মরে আছে। এখন এসব গাছ ও ডালপালা যখন-তখন ভেঙে হাটের ওপর পড়ছে। রাস্তার ধারে মরা প্রায় ৩/৪ টি গাছ রয়েছে। এসব গাছ দ্রুত কেটে নেওয়া উচিত।

এ বিষয় হাটের ইজারাদার বলেন, এসব গাছ দ্রুত অপসারণ করে সেই জায়গায় ফলদ ও বনজ গাছের চারা লাগানো যেতে পারে। মরা গাছগুলোর কারণে প্রতিনিয়ত নানা দুর্ঘটনা ঘটছে। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, তারা যেন গাছগুলো দ্রুত অপসারণের ব্যবস্থা নেয়।’

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ এলাহি জানান, দ্রুতই মরা গাছগুলো কেটে নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

Tag :

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ২ সহস্রাধিক, আক্রান্ত সাড়ে ৬ লাখ

সোনারগাঁয়ে শতবর্ষী গাছ যেনো ‘মৃত্যুফাঁদ’

প্রকাশের সময় : ০৯:২৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে ঐতিহ্যবাহী কাইকারটেক হাটে শতবর্ষী মরা পুরোনো গাছের কারণে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। সামান্য বাতাসে গাছের ডালপালা ভেঙে যাচ্ছে। সামান্য ঝড়ো বাতাসে মরা গাছের ডালপালা হাটের ওপর উপড়ে পড়ছে। এতে হাটের ক্রেতা ও বিক্রেতা ও পথচারীরা দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।

হাটে আসা মনারকান্দী ইকবাল জানান, অনেক দিন ধরে গাছগুলো ধীরে ধীরে মরে যায়। এই মরা গাছগুলো উপড়ে নেওয়া না হলে বা গাছ দ্রুত অপসারণ করা না হলে যেকোন সময় অঘটন ঘটাতেই পারে। এইতো গত সপ্তাহে হাটের দিন একটি ডাল আকস্মিক ভাবে ভেঙে পড়ে দোকানের উপরে থাকা প্লাস্টিকের উপর পড়ায় সাধারণ জনগণ দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায়।

হাটে আসা মোগরাপাড়া রহিম বলেন, এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হাট, মরা গাছের কারণে আতঙ্কের মধ্য দিয়ে এই হাটে ও সড়কে যাতায়াত করতে হয়। সামান্য বাতাসে ডালপালা ভেঙে পড়ে। কিছুদিন আগে বাজারে যাওয়ার পথে মরা ডাল ভেঙে আমার বাইসাইকেলের হ্যান্ডেলে পড়ে। হ্যান্ডেলটি ভেঙে যায়। ওই দিন আমি বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যাই। সরকারের কাছে দাবি জানাই, যেন দ্রুত এই গাছগুলো কেটে নেয়। না হলে বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

দোকানদার আব্দুল আজিজ বলেন, গুরুত্বপূর্ণ হাটটির বেশ কিছু গাছ অনেক দিন থেকে মরে আছে। এখন এসব গাছ ও ডালপালা যখন-তখন ভেঙে হাটের ওপর পড়ছে। রাস্তার ধারে মরা প্রায় ৩/৪ টি গাছ রয়েছে। এসব গাছ দ্রুত কেটে নেওয়া উচিত।

এ বিষয় হাটের ইজারাদার বলেন, এসব গাছ দ্রুত অপসারণ করে সেই জায়গায় ফলদ ও বনজ গাছের চারা লাগানো যেতে পারে। মরা গাছগুলোর কারণে প্রতিনিয়ত নানা দুর্ঘটনা ঘটছে। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, তারা যেন গাছগুলো দ্রুত অপসারণের ব্যবস্থা নেয়।’

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ এলাহি জানান, দ্রুতই মরা গাছগুলো কেটে নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে।