ঢাকা ০৯:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন যুদ্ধ পুতিনের ‘ব্যর্থতার গল্প’ শোনালেন যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান

সম্পতি ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পিছু হটছে রাশিয়ার বাহিনী। দখলকৃত অনেক অঞ্চল থেকে ইউক্রেনের বাহিনীর তীব্র পাল্টা আক্রমণ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বাহিনীকে পশ্চাৎপসারণে বাধ্য করেছে বলে দাবি ইউক্রেন ও পশ্চিমা দেশগুলোর। এরমধ্যে যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান বলেছেন, পুতিন তার সকল কৌশলগত সামরিক লক্ষ্যে ব্যর্থ হচ্ছেন। আজ রোববার গার্ডিয়ানের লাইভ প্রতিবেদন এই তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল স্যার টনি রাদাকিন বলেন, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর সাম্প্রতিক সফলতা সত্ত্বেও এই সংঘাত দীর্ঘদিন ধরে চলতে পারে।

বিবিসির এক অনুষ্ঠানে টনি রাদাকিন ইউক্রেনের পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, সংঘাতের শুরুতে আমরা বলেছি এটি পুতিনের কৌশলগত ভুল এবং কৌশলগত ভুল কৌশলগত ফলাফলের দিকে নিয়ে যায়। এই উদাহরণ হলো কৌশলগত ব্যর্থতা।

টনি রাদাকিন আরও বলেছেন, পুতিন তার সমস্ত সামরিক কৌশলগত লক্ষ্যে ব্যর্থ হচ্ছেন। তিনি ইউক্রেনকে বশীভূত করতে চেয়েছিলেন কিন্তু তা হচ্ছে না।

পুতিন ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ দখল করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু আমরা দেখেছি শুরুতেই তা ব্যর্থ হয়েছে। আমরা দেখেছি তিনি ন্যাটোকে দূর্বল করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু ন্যাটো এখন অনেক শক্তিশালী। এতে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন যোগ দিচ্ছে, বলেন যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান।

এছাড়া রাদাকিন বলেন, পুতিন আন্তর্জাতিক সংকল্প ভেঙ্গে ফেলতে চেয়েছিলেন কিন্তু আসলে তা আরও শক্তিশালী হয়েছে। তিনি এখন চাপে আছেন এবং তার সমস্যা আরও বাড়ছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর আজ পর্যন্ত টানা ২০৭ দিনের মতো চলছে দেশ দুইটির সংঘাত। এতে দুই পক্ষের বহু হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে যুদ্ধে বন্ধে এখন পর্যন্ত কোনো লক্ষণ নেই। উল্টো পূর্ব ইউক্রেনে দেশ দুইটির সংঘাত আরও জোরালো হয়েছে।

Tag :
জনপ্রিয়

নিরব-আরিয়ানা জামানের ‘স্পর্শ’

ইউক্রেন যুদ্ধ পুতিনের ‘ব্যর্থতার গল্প’ শোনালেন যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান

প্রকাশের সময় : ১০:৫৬:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

সম্পতি ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পিছু হটছে রাশিয়ার বাহিনী। দখলকৃত অনেক অঞ্চল থেকে ইউক্রেনের বাহিনীর তীব্র পাল্টা আক্রমণ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বাহিনীকে পশ্চাৎপসারণে বাধ্য করেছে বলে দাবি ইউক্রেন ও পশ্চিমা দেশগুলোর। এরমধ্যে যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান বলেছেন, পুতিন তার সকল কৌশলগত সামরিক লক্ষ্যে ব্যর্থ হচ্ছেন। আজ রোববার গার্ডিয়ানের লাইভ প্রতিবেদন এই তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল স্যার টনি রাদাকিন বলেন, ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর সাম্প্রতিক সফলতা সত্ত্বেও এই সংঘাত দীর্ঘদিন ধরে চলতে পারে।

বিবিসির এক অনুষ্ঠানে টনি রাদাকিন ইউক্রেনের পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, সংঘাতের শুরুতে আমরা বলেছি এটি পুতিনের কৌশলগত ভুল এবং কৌশলগত ভুল কৌশলগত ফলাফলের দিকে নিয়ে যায়। এই উদাহরণ হলো কৌশলগত ব্যর্থতা।

টনি রাদাকিন আরও বলেছেন, পুতিন তার সমস্ত সামরিক কৌশলগত লক্ষ্যে ব্যর্থ হচ্ছেন। তিনি ইউক্রেনকে বশীভূত করতে চেয়েছিলেন কিন্তু তা হচ্ছে না।

পুতিন ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ দখল করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু আমরা দেখেছি শুরুতেই তা ব্যর্থ হয়েছে। আমরা দেখেছি তিনি ন্যাটোকে দূর্বল করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু ন্যাটো এখন অনেক শক্তিশালী। এতে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন যোগ দিচ্ছে, বলেন যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা প্রধান।

এছাড়া রাদাকিন বলেন, পুতিন আন্তর্জাতিক সংকল্প ভেঙ্গে ফেলতে চেয়েছিলেন কিন্তু আসলে তা আরও শক্তিশালী হয়েছে। তিনি এখন চাপে আছেন এবং তার সমস্যা আরও বাড়ছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর আজ পর্যন্ত টানা ২০৭ দিনের মতো চলছে দেশ দুইটির সংঘাত। এতে দুই পক্ষের বহু হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে যুদ্ধে বন্ধে এখন পর্যন্ত কোনো লক্ষণ নেই। উল্টো পূর্ব ইউক্রেনে দেশ দুইটির সংঘাত আরও জোরালো হয়েছে।