ঢাকা ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঝুমন দাশ ও প্রীতম দাশের মুক্তির দাবিতে সিলেটে বাসদের মানববন্ধন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক সুনামগঞ্জের শাল্লার ঝুমন দাশ আপন ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি এবং মতপ্রকাশের স্বাধীনতা হরণকারী ডিজিটাল আইন বাতিলের দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে আজ বুধবার বিকেল ৫টায় নগরীর আম্বরখানাস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাসদ সিলেট জেলা শাখার সমন্বয়ক আবু জাফরের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন, জাহেদ আহমদ, নুরুল ইসলাম, আমজাদ মিয়া, হোসেন আহমদ, সাগর, নকিব আহমদ, সুলতান, রনি আহমদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে আবু জাফর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে ঝুমন দাশ ও প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

আবু জাফর বলেন, গণমাধ্যমে দুর্নীতি-লুটপাটের খবর ছাপালে তা দমনে এই কুখ্যাত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার ও নির্যাতন করা হচ্ছে। কালো আইনে গ্রেপ্তার হয়ে জেলে খেটেছেন কার্টুনিস্ট কিশোর, লেখক মোস্তাক, অ্যাকটিভিস্ট দিদার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জাকির ও সাংবাদিক কাজলসহ অনেকে।

আবু জাফর অবিলম্বে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারকৃত শাল্লার ঝুমন দাশ আপন ও শ্রীমঙ্গলের প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের জোর দাবি জানান।

Tag :
জনপ্রিয়

রসিক নির্বাচন ; আ’লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার গণসংযোগ অনুষ্ঠিত

ঝুমন দাশ ও প্রীতম দাশের মুক্তির দাবিতে সিলেটে বাসদের মানববন্ধন।

প্রকাশের সময় : ০৫:৩২:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক সুনামগঞ্জের শাল্লার ঝুমন দাশ আপন ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি এবং মতপ্রকাশের স্বাধীনতা হরণকারী ডিজিটাল আইন বাতিলের দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে আজ বুধবার বিকেল ৫টায় নগরীর আম্বরখানাস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাসদ সিলেট জেলা শাখার সমন্বয়ক আবু জাফরের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন, জাহেদ আহমদ, নুরুল ইসলাম, আমজাদ মিয়া, হোসেন আহমদ, সাগর, নকিব আহমদ, সুলতান, রনি আহমদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে আবু জাফর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে ঝুমন দাশ ও প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

আবু জাফর বলেন, গণমাধ্যমে দুর্নীতি-লুটপাটের খবর ছাপালে তা দমনে এই কুখ্যাত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার ও নির্যাতন করা হচ্ছে। কালো আইনে গ্রেপ্তার হয়ে জেলে খেটেছেন কার্টুনিস্ট কিশোর, লেখক মোস্তাক, অ্যাকটিভিস্ট দিদার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জাকির ও সাংবাদিক কাজলসহ অনেকে।

আবু জাফর অবিলম্বে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারকৃত শাল্লার ঝুমন দাশ আপন ও শ্রীমঙ্গলের প্রীতম দাশের নিঃশর্ত মুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের জোর দাবি জানান।