ঢাকা ১২:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

২০ ফুটের কম প্রশস্ত রাস্তার উন্নয়নে অর্থায়ন করবে না ডিএনসিসি: মেয়র আতিকুল ইসলাম

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, যেসব রাস্তার প্রশস্ততা ২০ ফুটের কম সেসব রাস্তার উন্নয়নে কোনো ধরনের আর্থিক বরাদ্দ দেবে না ডিএনসিসি। যেখানে রাস্তা ২০ ফুটের কম হলে অনুমোদনই পায় না, সেখানে বরাদ্দও দেওয়া হবে না। যারা অবৈধভাবে রাস্তা দখল করে রেখেছে তারা দখল ছেড়ে না দিলে কাজ হবে না।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর গুলশান-২ এর নগরভবনে ডিএনসিসির ১৬তম কর্পোরেশন সভা সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সম্পত্তি বিভাগের সমন্বয়ে রাস্তার প্রশস্ততা বাড়াতে হবে। রাজউকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যারা রয়েছে তাদের চিঠি দিয়ে জানাতে হবে। নকশা অনুমোদনের ক্ষেত্রে কেমন ছিল সেটি ডিএনসিসিকে প্রদান করতে হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। অবৈধ দখলের ফলে রাস্তা সরু হয়ে যায়। এতে করে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। মানুষের যাতায়fতে যতটুকু সম্ভব স্বাচ্ছন্দ্য ফিরিয়ে আনতে হবে।

 

এছাড়া সভায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে অবৈধ ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা বন্ধ, অনলাইন কাউন্সিলর সার্টিফিকেট সিস্টেম, ট্রেড লাইসেন্স ইস্যু, জ্যাম কমাতে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে সমন্বয়, দ্রুততম সময়ের সাথে বর্জ্য অপসারণ, ময়লার প্যাসেঞ্জ পরিষ্কার ও কাওরান বাজারের কাঁচাবাজার স্থানান্তর নিয় আলোচনা হয়।

সভায় ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জোবায়দুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ. আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলামসহ ডিএনসিসির কাউন্সিলররা।

Tag :
জনপ্রিয়

ছেলের হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড নিজ হাতে কার্যকর করলেন বাবা

২০ ফুটের কম প্রশস্ত রাস্তার উন্নয়নে অর্থায়ন করবে না ডিএনসিসি: মেয়র আতিকুল ইসলাম

প্রকাশের সময় : ০১:৪৬:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, যেসব রাস্তার প্রশস্ততা ২০ ফুটের কম সেসব রাস্তার উন্নয়নে কোনো ধরনের আর্থিক বরাদ্দ দেবে না ডিএনসিসি। যেখানে রাস্তা ২০ ফুটের কম হলে অনুমোদনই পায় না, সেখানে বরাদ্দও দেওয়া হবে না। যারা অবৈধভাবে রাস্তা দখল করে রেখেছে তারা দখল ছেড়ে না দিলে কাজ হবে না।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর গুলশান-২ এর নগরভবনে ডিএনসিসির ১৬তম কর্পোরেশন সভা সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সম্পত্তি বিভাগের সমন্বয়ে রাস্তার প্রশস্ততা বাড়াতে হবে। রাজউকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যারা রয়েছে তাদের চিঠি দিয়ে জানাতে হবে। নকশা অনুমোদনের ক্ষেত্রে কেমন ছিল সেটি ডিএনসিসিকে প্রদান করতে হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। অবৈধ দখলের ফলে রাস্তা সরু হয়ে যায়। এতে করে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। মানুষের যাতায়fতে যতটুকু সম্ভব স্বাচ্ছন্দ্য ফিরিয়ে আনতে হবে।

 

এছাড়া সভায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে অবৈধ ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা বন্ধ, অনলাইন কাউন্সিলর সার্টিফিকেট সিস্টেম, ট্রেড লাইসেন্স ইস্যু, জ্যাম কমাতে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে সমন্বয়, দ্রুততম সময়ের সাথে বর্জ্য অপসারণ, ময়লার প্যাসেঞ্জ পরিষ্কার ও কাওরান বাজারের কাঁচাবাজার স্থানান্তর নিয় আলোচনা হয়।

সভায় ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জোবায়দুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ. আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলামসহ ডিএনসিসির কাউন্সিলররা।