ঢাকা ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ক্যাটরিনার থেকে কাজ ও নায়ক ছিনিয়ে নেন সোনাক্ষী!

বর্তমানে বলিপাড়ার অভিনেত্রীদের মধ্যে উপার্জনের তালিকায় শীর্ষে ক্যাটরিনা কাইফ। কিন্তু টিনসেল নগরীর তারকাদের মধ্যেও সাফল্যের সিঁড়িতে ওঠার প্রতিযোগিতা চলে। ক্যাটরিনার সঙ্গে শত্রুঘ্ন-কন্যা সোনাক্ষীর সম্পর্কের রসায়ন লক্ষ করলেই তার প্রমাণ পাওয়া যায়।

বলিপাড়ায় বহু দিন ধরে দু’জনের সম্পর্ক নিয়ে নানা গুঞ্জন চলে আসছে। কেউ বলেন, সোনাক্ষী বলি-তারকার উত্তরাধিকারী হলেও তার চেয়ে সফলতার মাপকাঠিতে অনেক এগিয়ে ক্যাটরিনা। তাই ক্যাটরিনার কর্মজীবনে প্রভাব ফেলার জন্য তার কাজ নাকি কেড়ে নিতেন সোনাক্ষী।

ক্যাটরিনা যখন বলিপাড়ায় পা রেখেছিলেন তখন তার জীবনে আশীর্বাদস্বরূপ এসেছিলেন বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খান।

বলিউডের সব পরিচালক-প্রযোজকের কাছে তিনি ক্যাটরিনার প্রশংসা করতেন। শোনা যায়, অভিনেত্রীকে বহু সিনেমায় কাজের সুযোগ করে দিয়েছিলেন তিনি। পরবর্তীকালে ক্যাটরিনা সিদ্ধান্ত নেন তিনি স্বাধীনভাবে বলিউডে কাজ করবেন। সালমানের পর বলিউডের বহু নামকরা অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করেছেন ক্যাটরিনা। কিন্তু সালমান-ক্যাটের পর বড় পর্দায় ‘খিলাড়ি’ অক্ষয় কুমারের সঙ্গে তার জুটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

একের পর এক নামী ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছিলেন তিনি। কিছু বিখ্যাত ব্র্যান্ডের প্রচারের মুখ হয়ে উঠেছিলেন ক্যাটরিনা। কিন্তু বলিপাড়ায় গুঞ্জন ছড়াতে থাকে যে, সোনাক্ষী বলিউডে পা রাখার পর দুই অভিনেত্রীর মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

২০১০ সালে সালমান খানের হাত ধরে ‘দবাং’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন সোনাক্ষী। শুধু সালমানই নন, অক্ষয় কুমারের সঙ্গেও বড় পর্দায় জুটি বাঁধেন শত্রুঘ্ন-কন্যা।

ক্যাটরিনা যে বিজ্ঞাপনগুলিতে দীর্ঘকাল ধরে অভিনয় করে আসছিলেন, তার অধিকাংশ চলে আসে সোনাক্ষীর কাছে। কানাঘুষো শোনা যায়, সালমানের সঙ্গে সোনাক্ষী কাজ করছিলেন বলে ক্যাটরিনার বদলে সকলে সোনাক্ষীকেই কাজের সুযোগ দিচ্ছিলেন।

বলিপাড়ার অনেকেরই দাবি ছিল, সোনাক্ষী ইন্ডাস্ট্রিতে আসার পর ক্যাটরিনার কাছ থেকে কাজ ছিনিয়ে নিতে শুরু করেছেন।

সোনাক্ষীর মা এই প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন যে, এগুলো সবই গুজব। সোনাক্ষী নেটমাধ্যমে ক্যাটরিনার উদ্দেশে পোস্ট করে জানান, এগুলি সবই মনগড়া কথা। কিন্তু পরবর্তীতে জানা যায়, এই ধরনের কোনো মন্তব্যই করেননি সোনাক্ষী। বরং এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে দুই অভিনেত্রীর পিআর দলের সদস্যরা।

২০১২ সালে সোহেল খানের স্ত্রী সীমা খান একটি স্পা উদ্বোধনের অনুষ্ঠানের পার্টি দেন। খান পরিবারের ঘনিষ্ঠ হওয়ায় সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্যাটরিনা। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সোনাক্ষীও। শোনা যায়, এই অনুষ্ঠানে দুই অভিনেত্রীর মধ্যে দীর্ঘক্ষণ উত্তপ্ত বাক্যালাপ হয়। এরপর নাকি দু’জনের ভুল বোঝাবুঝি মিটে যায়।

এক সাক্ষাৎকারে সোনাক্ষী জানান, বলিউডের সর্বশ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীদের মধ্যে ক্যাটরিনা অন্যতম। তার সঙ্গে ক্যাটরিনার সম্পর্ক ভালোই। ক্যাটরিনা এই ইন্ডাস্ট্রির অংশ বলে তিনি যথেষ্ট গর্ববোধও করেন।

Tag :
জনপ্রিয়

রসিক নির্বাচন ; আ’লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার গণসংযোগ অনুষ্ঠিত

ক্যাটরিনার থেকে কাজ ও নায়ক ছিনিয়ে নেন সোনাক্ষী!

প্রকাশের সময় : ১০:২৫:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

বর্তমানে বলিপাড়ার অভিনেত্রীদের মধ্যে উপার্জনের তালিকায় শীর্ষে ক্যাটরিনা কাইফ। কিন্তু টিনসেল নগরীর তারকাদের মধ্যেও সাফল্যের সিঁড়িতে ওঠার প্রতিযোগিতা চলে। ক্যাটরিনার সঙ্গে শত্রুঘ্ন-কন্যা সোনাক্ষীর সম্পর্কের রসায়ন লক্ষ করলেই তার প্রমাণ পাওয়া যায়।

বলিপাড়ায় বহু দিন ধরে দু’জনের সম্পর্ক নিয়ে নানা গুঞ্জন চলে আসছে। কেউ বলেন, সোনাক্ষী বলি-তারকার উত্তরাধিকারী হলেও তার চেয়ে সফলতার মাপকাঠিতে অনেক এগিয়ে ক্যাটরিনা। তাই ক্যাটরিনার কর্মজীবনে প্রভাব ফেলার জন্য তার কাজ নাকি কেড়ে নিতেন সোনাক্ষী।

ক্যাটরিনা যখন বলিপাড়ায় পা রেখেছিলেন তখন তার জীবনে আশীর্বাদস্বরূপ এসেছিলেন বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খান।

বলিউডের সব পরিচালক-প্রযোজকের কাছে তিনি ক্যাটরিনার প্রশংসা করতেন। শোনা যায়, অভিনেত্রীকে বহু সিনেমায় কাজের সুযোগ করে দিয়েছিলেন তিনি। পরবর্তীকালে ক্যাটরিনা সিদ্ধান্ত নেন তিনি স্বাধীনভাবে বলিউডে কাজ করবেন। সালমানের পর বলিউডের বহু নামকরা অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করেছেন ক্যাটরিনা। কিন্তু সালমান-ক্যাটের পর বড় পর্দায় ‘খিলাড়ি’ অক্ষয় কুমারের সঙ্গে তার জুটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

একের পর এক নামী ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছিলেন তিনি। কিছু বিখ্যাত ব্র্যান্ডের প্রচারের মুখ হয়ে উঠেছিলেন ক্যাটরিনা। কিন্তু বলিপাড়ায় গুঞ্জন ছড়াতে থাকে যে, সোনাক্ষী বলিউডে পা রাখার পর দুই অভিনেত্রীর মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

২০১০ সালে সালমান খানের হাত ধরে ‘দবাং’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন সোনাক্ষী। শুধু সালমানই নন, অক্ষয় কুমারের সঙ্গেও বড় পর্দায় জুটি বাঁধেন শত্রুঘ্ন-কন্যা।

ক্যাটরিনা যে বিজ্ঞাপনগুলিতে দীর্ঘকাল ধরে অভিনয় করে আসছিলেন, তার অধিকাংশ চলে আসে সোনাক্ষীর কাছে। কানাঘুষো শোনা যায়, সালমানের সঙ্গে সোনাক্ষী কাজ করছিলেন বলে ক্যাটরিনার বদলে সকলে সোনাক্ষীকেই কাজের সুযোগ দিচ্ছিলেন।

বলিপাড়ার অনেকেরই দাবি ছিল, সোনাক্ষী ইন্ডাস্ট্রিতে আসার পর ক্যাটরিনার কাছ থেকে কাজ ছিনিয়ে নিতে শুরু করেছেন।

সোনাক্ষীর মা এই প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন যে, এগুলো সবই গুজব। সোনাক্ষী নেটমাধ্যমে ক্যাটরিনার উদ্দেশে পোস্ট করে জানান, এগুলি সবই মনগড়া কথা। কিন্তু পরবর্তীতে জানা যায়, এই ধরনের কোনো মন্তব্যই করেননি সোনাক্ষী। বরং এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে দুই অভিনেত্রীর পিআর দলের সদস্যরা।

২০১২ সালে সোহেল খানের স্ত্রী সীমা খান একটি স্পা উদ্বোধনের অনুষ্ঠানের পার্টি দেন। খান পরিবারের ঘনিষ্ঠ হওয়ায় সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্যাটরিনা। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সোনাক্ষীও। শোনা যায়, এই অনুষ্ঠানে দুই অভিনেত্রীর মধ্যে দীর্ঘক্ষণ উত্তপ্ত বাক্যালাপ হয়। এরপর নাকি দু’জনের ভুল বোঝাবুঝি মিটে যায়।

এক সাক্ষাৎকারে সোনাক্ষী জানান, বলিউডের সর্বশ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীদের মধ্যে ক্যাটরিনা অন্যতম। তার সঙ্গে ক্যাটরিনার সম্পর্ক ভালোই। ক্যাটরিনা এই ইন্ডাস্ট্রির অংশ বলে তিনি যথেষ্ট গর্ববোধও করেন।