ঢাকা ০৯:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সড়ক-ফুটপাত লাল-হলুদ-সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিত করছে দক্ষিণ সিটি

সড়ক ও ফুটপাত লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিত করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

লাল চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে কখনো হকার বসতে পারবে না। পাশাপাশি হলুদ শ্রেণি চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত সময়ে এবং নির্দিষ্ট স্থানে হকার বসতে পারবে।

এ ছাড়া সবুজ চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে পথচারী বা যানচলাচলে বিঘ্ন না ঘটিয়ে হকার বসতে পারবে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা শহরকে হকারমুক্ত করা এবং ২০৪১ সালে উন্নত ঢাকা শহর গড়ার লক্ষ্যে চলমান মহাপরিকল্পনার সঙ্গে সমন্বয় করে রাস্তা ও ফুটপাত যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলের জন্য নির্বিঘ্ন রাখতে পরিকল্পনা প্রণয়ন, বাস্তবায়ন ও ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

এ কমিটি হকার ব্যবস্থাপনার দিকে লক্ষ্যে রেখে রাস্তা ও ফুটপাত লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিতের কাজ করবে। প্রতি মাসে নিয়মিত একাধিকবার সভা করে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জানের সই করা এক দপ্তর আদেশে এ বিষয়ক পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছন, কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগর পরিকল্পনাবিদকে। এ ছাড়া সদস্য সচিব করা হয়েছে সহকারী নগর পরিকল্পনাবিদকে।
কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর, সম্পত্তি কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক নির্বাহী প্রকৌশলী। এ কমিটিকে সব বিষয় যাচাই-বাছাই পূর্বক সুপারিশ সহকারে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে প্রতিবেদন উপস্থাপন করতে হবে।

এদিকে, সড়ক ও ফুটপাতের ওপর অবৈধভাবে স্থাপিত দোকানপাট ও হকার উচ্ছেদের মাধ্যমে জনসাধারণের হাঁটার পথ দখলমুক্ত করতে গুলিস্তান প্রাথমিকভাবে লাল চিহ্নিত এলাকায় বা রেড জোনে রোববার অভিযান চালিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। মূলত সড়ক-ফুটপাতে লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণি চিহ্নিতকরণের অংশ হিসেবে প্রাথমিকভাবে অভিযান শুরু করেছে সংস্থাটি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মুনিরুজ্জামান বলেন, পদ্মা সেতু দিয়ে যান চলাচল শুরুর পর থেকে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার দিয়ে যান চলাচলের পরিমাণ বেড়েছে। তাই মেয়রের নির্দেশনার আলোকে গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট থেকে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ হয়ে সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্স এবং বঙ্গভবন ও মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার থেকে গুলিস্তান চত্বর পর্যন্ত এলাকাকে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। রেড জোন থেকে হকার এবং অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে আমরা অভিযান পরিচালনা করছি। নিয়মিত আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের জানিয়েছেন, ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টিকারী হকার উচ্ছেদে মঙ্গলবার গুলিস্তানের জিরো পয়েন্ট এলাকায় অভিযান চালানো হবে।

Tag :
জনপ্রিয়

নিরব-আরিয়ানা জামানের ‘স্পর্শ’

সড়ক-ফুটপাত লাল-হলুদ-সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিত করছে দক্ষিণ সিটি

প্রকাশের সময় : ০১:২৭:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

সড়ক ও ফুটপাত লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিত করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

লাল চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে কখনো হকার বসতে পারবে না। পাশাপাশি হলুদ শ্রেণি চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত সময়ে এবং নির্দিষ্ট স্থানে হকার বসতে পারবে।

এ ছাড়া সবুজ চিহ্নিত সড়ক ও ফুটপাতে পথচারী বা যানচলাচলে বিঘ্ন না ঘটিয়ে হকার বসতে পারবে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা শহরকে হকারমুক্ত করা এবং ২০৪১ সালে উন্নত ঢাকা শহর গড়ার লক্ষ্যে চলমান মহাপরিকল্পনার সঙ্গে সমন্বয় করে রাস্তা ও ফুটপাত যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলের জন্য নির্বিঘ্ন রাখতে পরিকল্পনা প্রণয়ন, বাস্তবায়ন ও ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

এ কমিটি হকার ব্যবস্থাপনার দিকে লক্ষ্যে রেখে রাস্তা ও ফুটপাত লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণিতে চিহ্নিতের কাজ করবে। প্রতি মাসে নিয়মিত একাধিকবার সভা করে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জানের সই করা এক দপ্তর আদেশে এ বিষয়ক পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছন, কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগর পরিকল্পনাবিদকে। এ ছাড়া সদস্য সচিব করা হয়েছে সহকারী নগর পরিকল্পনাবিদকে।
কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর, সম্পত্তি কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক নির্বাহী প্রকৌশলী। এ কমিটিকে সব বিষয় যাচাই-বাছাই পূর্বক সুপারিশ সহকারে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে প্রতিবেদন উপস্থাপন করতে হবে।

এদিকে, সড়ক ও ফুটপাতের ওপর অবৈধভাবে স্থাপিত দোকানপাট ও হকার উচ্ছেদের মাধ্যমে জনসাধারণের হাঁটার পথ দখলমুক্ত করতে গুলিস্তান প্রাথমিকভাবে লাল চিহ্নিত এলাকায় বা রেড জোনে রোববার অভিযান চালিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। মূলত সড়ক-ফুটপাতে লাল, হলুদ ও সবুজ শ্রেণি চিহ্নিতকরণের অংশ হিসেবে প্রাথমিকভাবে অভিযান শুরু করেছে সংস্থাটি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মুনিরুজ্জামান বলেন, পদ্মা সেতু দিয়ে যান চলাচল শুরুর পর থেকে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার দিয়ে যান চলাচলের পরিমাণ বেড়েছে। তাই মেয়রের নির্দেশনার আলোকে গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট থেকে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ হয়ে সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্স এবং বঙ্গভবন ও মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার থেকে গুলিস্তান চত্বর পর্যন্ত এলাকাকে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। রেড জোন থেকে হকার এবং অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে আমরা অভিযান পরিচালনা করছি। নিয়মিত আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের জানিয়েছেন, ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টিকারী হকার উচ্ছেদে মঙ্গলবার গুলিস্তানের জিরো পয়েন্ট এলাকায় অভিযান চালানো হবে।