ঢাকা ০২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সার নিয়ে কারসাজি: প্রশিক্ষক হিসেবে বদলি ঠেকিয়ে স্বপদে পুনর্বহাল মান্দার কৃষি কর্মকর্তা

আপেল মাহমুদ : নওগাঁর মান্দা, মহাদেবপুর, বদলগাছী, নিয়ামতপুর উপজেলার চারজন কৃষি কর্মকর্তাকে একযোগে বদলির আদেশ হয়েছে। মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির আদেশ দেয়া হয়। মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া বদলি আদেশের কয়েকদিনের মাথায় অঙ্গাত কারণে সে আদেশ আবার স্থগিত হয়ে গেছে। অনেকে বলছেন সার কারসাজিতে বদলির পর ক্ষমতা বলে ও উচ্চ পর্যায়ে জোরালো লবিং করে মান্দা কৃষি কর্মকর্তার বদলির আদেশ ঠেকিয়ে স্বপদে পুনর্বহাল। এ নিয়ে উপজেলা জুড়ে গুঞ্জন ঘনিভূত হয়।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্প্রসারণ-১ শাখার গত বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) ১২.০০.০০০০.০৫২.১৯.০২৬.১৬-৭৪৪ নং স্মারকে উপসচিব মো: জসীম উদ্দিন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জনস্বার্থে মহাদেবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অরুন চন্দ্র রায়কে একই পদে বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায়, নিয়ামতপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমির আব্দুল্লাহ মো: ওয়াহিদুজ্জামানকে থানচি উপজেলায়, বদলগাছী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: হাসান আলীকে খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলায় এবং মান্দা উপজেলা কৃষি অফিসার মোছা: শায়লা শারমীনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির আদেশ দেয়া হয়। অবিলম্বে এই আদেশ কার্যকর হবে।

প্রশ্ন উঠেছে এই বদলি কি স্বাভাবিক? নাকি সাম্প্রতিক কোন বিষয়ের পরিপ্রেক্ষিতে হয়েছে। তা নিয়ে উপজেলা জুড়ে গুঞ্জন এখনো অব্যাহত। আবার কয়েকদিনের মাথায় বদলি আদেশ স্থগিত হলো কিভাবে! তা নিয়েও উঠেছে গুঞ্জন । তবে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা চারকিতে এ বদলি সাধারণ বদলি হিসেবে দেখছেন। বদলির কয়েকদিনের মাথায় কতৃপক্ষের ইচ্ছাতে নাকি তা স্থগিত হয়েছে।

সচেতন ব্যক্তিরা বলছেন, সার কারসাজিতে এক যোগে চারজনকে বদলির করা হলেও বিশেষ কারণে তাদের মধ্যে একজনকে একই পদে পার্বত্য অ লের পরিবর্তে বদলি স্থল জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলাতে এবং অন্য একজনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদীতে প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির পর তাকে আবার পূর্বের কর্মস্থল নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় পুনর্বহাল রাখা হয়েছে। তাহলে আমরা ধরে নিতে পারি বাকি যে দুই জনকে পার্বত্য অ লে বদলী করা হয়েছে তাদের অপরাধ বেশি অথবা তাদের লবিং জোড়ালো না। এ বদলির বিষয়ে পার্বত্য অ লে বদলিকৃত কর্মকর্তাদের বিভিন্ন টিভিতে দেওয়া বক্তব্যে মাঝে ক্ষোভ দেখা গিয়েছে।

সার কারসাজিতে এ বদলি আদেশ কিনা এবং সে আদেশ আবার কিভাবে স্থগিত হয়েছে এ বিষয়ে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিনের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, চাকরিতে বদলি একটি সাধারণ প্রক্রিয়া। স্যাররা কেন আমাকে বদলী করেছেন, আবার তা স্থগিত করেছেন তা আমি জানিনা । এ বিষয়ে তারা ভাল জানেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: আবু হোসেন এই বদলির কোন কারণে তা বলতে পারেননি। তিনি বলেন, বিষয়টি মন্ত্রণালয় থেকে হয়েছে। এব্যাপারে তাঁকে কিছু জানানো হয়নি। আদেশের পর বদলিকৃতদের মধ্যে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার বদলি স্থগিত হয়েছে এবং মহাদেবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার বদলিস্থল পরিবর্তন করে জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলায় করা হয়েছে ।

Tag :

পুলিশের হাতে কামড় দিয়ে হ্যান্ডকাপসহ পালালো আসামি

সার নিয়ে কারসাজি: প্রশিক্ষক হিসেবে বদলি ঠেকিয়ে স্বপদে পুনর্বহাল মান্দার কৃষি কর্মকর্তা

প্রকাশের সময় : ১১:৩৩:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

আপেল মাহমুদ : নওগাঁর মান্দা, মহাদেবপুর, বদলগাছী, নিয়ামতপুর উপজেলার চারজন কৃষি কর্মকর্তাকে একযোগে বদলির আদেশ হয়েছে। মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির আদেশ দেয়া হয়। মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া বদলি আদেশের কয়েকদিনের মাথায় অঙ্গাত কারণে সে আদেশ আবার স্থগিত হয়ে গেছে। অনেকে বলছেন সার কারসাজিতে বদলির পর ক্ষমতা বলে ও উচ্চ পর্যায়ে জোরালো লবিং করে মান্দা কৃষি কর্মকর্তার বদলির আদেশ ঠেকিয়ে স্বপদে পুনর্বহাল। এ নিয়ে উপজেলা জুড়ে গুঞ্জন ঘনিভূত হয়।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্প্রসারণ-১ শাখার গত বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) ১২.০০.০০০০.০৫২.১৯.০২৬.১৬-৭৪৪ নং স্মারকে উপসচিব মো: জসীম উদ্দিন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জনস্বার্থে মহাদেবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অরুন চন্দ্র রায়কে একই পদে বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায়, নিয়ামতপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমির আব্দুল্লাহ মো: ওয়াহিদুজ্জামানকে থানচি উপজেলায়, বদলগাছী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: হাসান আলীকে খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলায় এবং মান্দা উপজেলা কৃষি অফিসার মোছা: শায়লা শারমীনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির আদেশ দেয়া হয়। অবিলম্বে এই আদেশ কার্যকর হবে।

প্রশ্ন উঠেছে এই বদলি কি স্বাভাবিক? নাকি সাম্প্রতিক কোন বিষয়ের পরিপ্রেক্ষিতে হয়েছে। তা নিয়ে উপজেলা জুড়ে গুঞ্জন এখনো অব্যাহত। আবার কয়েকদিনের মাথায় বদলি আদেশ স্থগিত হলো কিভাবে! তা নিয়েও উঠেছে গুঞ্জন । তবে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা চারকিতে এ বদলি সাধারণ বদলি হিসেবে দেখছেন। বদলির কয়েকদিনের মাথায় কতৃপক্ষের ইচ্ছাতে নাকি তা স্থগিত হয়েছে।

সচেতন ব্যক্তিরা বলছেন, সার কারসাজিতে এক যোগে চারজনকে বদলির করা হলেও বিশেষ কারণে তাদের মধ্যে একজনকে একই পদে পার্বত্য অ লের পরিবর্তে বদলি স্থল জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলাতে এবং অন্য একজনকে পাবনা জেলার ঈশ্বরদীতে প্রশিক্ষক হিসেবে বদলির পর তাকে আবার পূর্বের কর্মস্থল নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় পুনর্বহাল রাখা হয়েছে। তাহলে আমরা ধরে নিতে পারি বাকি যে দুই জনকে পার্বত্য অ লে বদলী করা হয়েছে তাদের অপরাধ বেশি অথবা তাদের লবিং জোড়ালো না। এ বদলির বিষয়ে পার্বত্য অ লে বদলিকৃত কর্মকর্তাদের বিভিন্ন টিভিতে দেওয়া বক্তব্যে মাঝে ক্ষোভ দেখা গিয়েছে।

সার কারসাজিতে এ বদলি আদেশ কিনা এবং সে আদেশ আবার কিভাবে স্থগিত হয়েছে এ বিষয়ে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিনের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, চাকরিতে বদলি একটি সাধারণ প্রক্রিয়া। স্যাররা কেন আমাকে বদলী করেছেন, আবার তা স্থগিত করেছেন তা আমি জানিনা । এ বিষয়ে তারা ভাল জানেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: আবু হোসেন এই বদলির কোন কারণে তা বলতে পারেননি। তিনি বলেন, বিষয়টি মন্ত্রণালয় থেকে হয়েছে। এব্যাপারে তাঁকে কিছু জানানো হয়নি। আদেশের পর বদলিকৃতদের মধ্যে মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার বদলি স্থগিত হয়েছে এবং মহাদেবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার বদলিস্থল পরিবর্তন করে জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলায় করা হয়েছে ।