ঢাকা ১১:১১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শ্রীরামের ক্যাম্পে একঝাঁক ক্রিকেটার

সাত সকালেই মিরপুর হোম অব ক্রিকেট মুখরিত ক্রিকেটারদের পদচারণায়। ঐচ্ছিক অনুশীলনে ক্রিকেটারদের নিয়মিত যাতায়াত থাকলেও বিশ্বকাপ ও ত্রিদেশীয় সিরিজকে সামনে রেখে ট্রেনিং ক্যাম্প শুরু হয়েছে সোমবার থেকে।

যেখানে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পাশাপাশি বাইরে থাকা একঝাঁক খেলোয়াড়কেও ডাকা হয়েছে। প্রত্েযককেই যে নির্বাচনের জন্য ডাক দেওয়া হয়েছে তেমনটা নয়। অনুশীলনে তারা সাহায্য করবেন।

সকাল ৯টায় ক্রিকেটারদের রিপোর্টিং করতে বলা হয়েছিল। তার আগেই হাজির সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্তরা। ১০টায় অনুশীলন শুরুর আগে ক্রিকেটারদের নিয়ে চলে বৈঠক। সেখানে দায়িত্ব, ভূমিকা বুঝিয়ে দেন টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট শ্রীধরন শ্রীরাম। এরপর বাইরে এসে গা গরম করে ম্যাচের আবহে প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়।

জাতীয় দলের নিয়মিত ক্রিকেটারদের জন্য এই ক্যাম্প বাধ্যতামূলক নয়। এশিয়া কাপে ব্যর্থতার পর শ্রীরাম বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের দেখতে চেয়েছেন। ক্যাম্পে টি-টোয়েন্টির জন্য মানানসই এমন কাউকে পেলে শ্রীরাম তাকে দলে নেবেন বলেও নিশ্চিত করেছেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন।

এজন্য বিসিবির এইচপি দল ও বাংলাদেশ টাইগার্সের ক্রিকেটারদের ক্যাম্পে ডাকা হয়েছে। আইসিসির বেধে দেওয়া সময় অনুযায়ী, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করতে হবে। ফলে বাংলাদেশের কাছে পর্যাপ্ত সময় আছে।

তিনদিনের ক্যাম্প শেষে শ্রীরাম নিজেই বিশ্বকাপ ও ত্রিদেশীয় সিরিজের দল বেছে নেবেন। তাকে সেই স্বাধীনতাও দেওয়া হয়েছে। এজন্য তিনদিন ক্রিকেটারদের পাখির চোখে পরখ করবেন। ম্যাচ পরিস্থিতি বিবেচনায় স্কিল দেখবেন।

এবারের পরীক্ষাটা শ্রীরামেরও। এশিয়া কাপ, ত্রিদেশীয় সিরিজ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপের মিশনে ব্যর্থ তার দল। সামনেই ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই দুই প্রতিযোগিতায় ভালো করতে না পারলে তার চুক্তিও যে নবায়ন করা হবে না তা মোটামুটি সবারই জানা। সেই মিশনটাও শুরু হলো আজ থেকে।

২৩ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের নিউ জিল্যান্ডে উড়াল দেওয়ার কথা রয়েছে। বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়েই বাংলাদেশ নিউ জিল্যান্ড যাবে। সেখানে স্বাগতিক দল ও পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। সেখান থেকে বিশ্বকাপ মঞ্চে।

Tag :

যুক্তরাষ্ট্রে ছুরিকাঘাতে নিহত ২, আহত ৬

শ্রীরামের ক্যাম্পে একঝাঁক ক্রিকেটার

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

সাত সকালেই মিরপুর হোম অব ক্রিকেট মুখরিত ক্রিকেটারদের পদচারণায়। ঐচ্ছিক অনুশীলনে ক্রিকেটারদের নিয়মিত যাতায়াত থাকলেও বিশ্বকাপ ও ত্রিদেশীয় সিরিজকে সামনে রেখে ট্রেনিং ক্যাম্প শুরু হয়েছে সোমবার থেকে।

যেখানে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পাশাপাশি বাইরে থাকা একঝাঁক খেলোয়াড়কেও ডাকা হয়েছে। প্রত্েযককেই যে নির্বাচনের জন্য ডাক দেওয়া হয়েছে তেমনটা নয়। অনুশীলনে তারা সাহায্য করবেন।

সকাল ৯টায় ক্রিকেটারদের রিপোর্টিং করতে বলা হয়েছিল। তার আগেই হাজির সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্তরা। ১০টায় অনুশীলন শুরুর আগে ক্রিকেটারদের নিয়ে চলে বৈঠক। সেখানে দায়িত্ব, ভূমিকা বুঝিয়ে দেন টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট শ্রীধরন শ্রীরাম। এরপর বাইরে এসে গা গরম করে ম্যাচের আবহে প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়।

জাতীয় দলের নিয়মিত ক্রিকেটারদের জন্য এই ক্যাম্প বাধ্যতামূলক নয়। এশিয়া কাপে ব্যর্থতার পর শ্রীরাম বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের দেখতে চেয়েছেন। ক্যাম্পে টি-টোয়েন্টির জন্য মানানসই এমন কাউকে পেলে শ্রীরাম তাকে দলে নেবেন বলেও নিশ্চিত করেছেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন।

এজন্য বিসিবির এইচপি দল ও বাংলাদেশ টাইগার্সের ক্রিকেটারদের ক্যাম্পে ডাকা হয়েছে। আইসিসির বেধে দেওয়া সময় অনুযায়ী, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করতে হবে। ফলে বাংলাদেশের কাছে পর্যাপ্ত সময় আছে।

তিনদিনের ক্যাম্প শেষে শ্রীরাম নিজেই বিশ্বকাপ ও ত্রিদেশীয় সিরিজের দল বেছে নেবেন। তাকে সেই স্বাধীনতাও দেওয়া হয়েছে। এজন্য তিনদিন ক্রিকেটারদের পাখির চোখে পরখ করবেন। ম্যাচ পরিস্থিতি বিবেচনায় স্কিল দেখবেন।

এবারের পরীক্ষাটা শ্রীরামেরও। এশিয়া কাপ, ত্রিদেশীয় সিরিজ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপের মিশনে ব্যর্থ তার দল। সামনেই ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই দুই প্রতিযোগিতায় ভালো করতে না পারলে তার চুক্তিও যে নবায়ন করা হবে না তা মোটামুটি সবারই জানা। সেই মিশনটাও শুরু হলো আজ থেকে।

২৩ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের নিউ জিল্যান্ডে উড়াল দেওয়ার কথা রয়েছে। বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়েই বাংলাদেশ নিউ জিল্যান্ড যাবে। সেখানে স্বাগতিক দল ও পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। সেখান থেকে বিশ্বকাপ মঞ্চে।