ঢাকা ০৮:১৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অদ্ভুত ৪ খাবার

পৃথিবীতে কত আশ্চর্য রকমের খাবার আছে তার হিসাব রাখা কারও পক্ষে সম্ভব নয়। প্রতিটি জনপদে, প্রতিটি সংস্কৃতিতে এ রকম খাবারের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। তবে অদ্ভুত খাবারগুলোর মধ্যেও আবার কোনো কোনোগুলো বেশ জনপ্রিয়। যেমন,

সেঞ্চুরি ডিম, চীন
শত বছরের ডিম বা হাজার বছরের ডিম নামেও পরিচিত এ খাবার। চীন দেশে ডিম দিয়ে রান্না করা খাবারের মধ্যে এটি প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী খাবার। এটি হাঁস, মুরগি বা কোয়েলের ডিমকে দিয়ে তৈরি করা হয়। মাটি, ছাই ও লবণের মিশ্রণে কয়েক মাস ধরে ডিম রেখে সেঞ্চুরি এগ তৈরি করা হয়। এই সংরক্ষণ প্রক্রিয়ার ফলে ডিমের কুসুম গাঢ় সবুজ বা ধূসর হয়ে যায় এবং তাতে শক্তিশালী সালফারের গন্ধ তৈরি হয়। এই গন্ধযুক্ত পচা ডিম বিশেষ প্রক্রিয়ায় খাওয়া চীন দেশের ডেলিকেসি।

কাসু মারজু, ইতালি
এটি রটেন চিজ বা পচা পনির নামেও পরিচিত। এই সার্ডিনিয়ান সুস্বাদু খাবারটি মেয়াদ উত্তীর্ণ পেকোরিনো থেকে তৈরি। ব্যাপারটিকে আরও অদ্ভুত করার জন্য এর সঙ্গে পিওফিলা কেসি নামে এক ধরনের লার্ভা পেকোরিনাতে যোগ করা হয়। এগুলো ভেতর থেকে পনিরের চর্বি খেয়ে ফেলে এবং এই কাসু মারজুকে নরম ক্রিমি পনিরে রূপান্তরিত করে। অবশ্য এই লার্ভা বা ম্যাগোট ছাড়াও কাসু মারজু পাওয়া যায়।

স্টারগেজি পাই, ইংল্যান্ড
স্টারি গেজে পাই নামে পরিচিত অদ্ভুত খাবারটি ইংল্যান্ডের মাউসহোল নামক কর্নিশ গ্রাম থেকে এসেছে। ঐতিহ্যগতভাবে এই খাবারটি পরিবেশন করা হয় ২৩ ডিসেম্বর। গল্পটা ষোলো শতকের। কোনো এক ডিসেম্বরের ঝড়ের রাতে এক বীর নাবিক বের হয়েছিলেন শহরের ক্ষুধার্ত লোকজনের খাওয়ানোর জন্য খাবারের খোঁজে। তিনি যথেষ্ট বড় বড় মাছ নিয়ে ফিরে এসেছিলেন শহরে। কার্নিশ পাই একটি পেস্ট্রি ক্রাস্টের নিচে পিলচার্ড, ডিম এবং আলু বেক করে তৈরি করা হয়। মূল বিষয় হলো, বেক করা মাছের মাথা অবশ্যই পাই থেকে বের করে রাখতে হবে।

টুনা আইবলস, জাপান
জাপানে টুনা মাছ ভীষণ জনপ্রিয়। বলা হয়ে থাকে, জাপানে প্রতিটি টুনা খাওয়া হয় তাদের চোখের বল পর্যন্ত। সেখানে টুনা মাছের চোখ দিয়ে বানানো খাবারের প্রচুর রেসিপি রয়েছে। তবে সহজ উপায় হলো, সেদ্ধ করা বা ভাপানো। তারপর রসুন বা সয়া দিয়ে সিজন করা এবং উপভোগ করা। মজার বিষয় হলো, টুনা মাছের যে স্বাদ তা এই খাবারে পাবেন না। পাবেন স্কুইডের মতো স্বাদ।

Tag :

মধ্যনগরে দুর্গোৎসব উপলক্ষে ৩৩টি পূজামন্ডপে নগদ অর্থ প্রদান করেন, এমপি রতন

অদ্ভুত ৪ খাবার

প্রকাশের সময় : ০৯:২৯:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

পৃথিবীতে কত আশ্চর্য রকমের খাবার আছে তার হিসাব রাখা কারও পক্ষে সম্ভব নয়। প্রতিটি জনপদে, প্রতিটি সংস্কৃতিতে এ রকম খাবারের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। তবে অদ্ভুত খাবারগুলোর মধ্যেও আবার কোনো কোনোগুলো বেশ জনপ্রিয়। যেমন,

সেঞ্চুরি ডিম, চীন
শত বছরের ডিম বা হাজার বছরের ডিম নামেও পরিচিত এ খাবার। চীন দেশে ডিম দিয়ে রান্না করা খাবারের মধ্যে এটি প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী খাবার। এটি হাঁস, মুরগি বা কোয়েলের ডিমকে দিয়ে তৈরি করা হয়। মাটি, ছাই ও লবণের মিশ্রণে কয়েক মাস ধরে ডিম রেখে সেঞ্চুরি এগ তৈরি করা হয়। এই সংরক্ষণ প্রক্রিয়ার ফলে ডিমের কুসুম গাঢ় সবুজ বা ধূসর হয়ে যায় এবং তাতে শক্তিশালী সালফারের গন্ধ তৈরি হয়। এই গন্ধযুক্ত পচা ডিম বিশেষ প্রক্রিয়ায় খাওয়া চীন দেশের ডেলিকেসি।

কাসু মারজু, ইতালি
এটি রটেন চিজ বা পচা পনির নামেও পরিচিত। এই সার্ডিনিয়ান সুস্বাদু খাবারটি মেয়াদ উত্তীর্ণ পেকোরিনো থেকে তৈরি। ব্যাপারটিকে আরও অদ্ভুত করার জন্য এর সঙ্গে পিওফিলা কেসি নামে এক ধরনের লার্ভা পেকোরিনাতে যোগ করা হয়। এগুলো ভেতর থেকে পনিরের চর্বি খেয়ে ফেলে এবং এই কাসু মারজুকে নরম ক্রিমি পনিরে রূপান্তরিত করে। অবশ্য এই লার্ভা বা ম্যাগোট ছাড়াও কাসু মারজু পাওয়া যায়।

স্টারগেজি পাই, ইংল্যান্ড
স্টারি গেজে পাই নামে পরিচিত অদ্ভুত খাবারটি ইংল্যান্ডের মাউসহোল নামক কর্নিশ গ্রাম থেকে এসেছে। ঐতিহ্যগতভাবে এই খাবারটি পরিবেশন করা হয় ২৩ ডিসেম্বর। গল্পটা ষোলো শতকের। কোনো এক ডিসেম্বরের ঝড়ের রাতে এক বীর নাবিক বের হয়েছিলেন শহরের ক্ষুধার্ত লোকজনের খাওয়ানোর জন্য খাবারের খোঁজে। তিনি যথেষ্ট বড় বড় মাছ নিয়ে ফিরে এসেছিলেন শহরে। কার্নিশ পাই একটি পেস্ট্রি ক্রাস্টের নিচে পিলচার্ড, ডিম এবং আলু বেক করে তৈরি করা হয়। মূল বিষয় হলো, বেক করা মাছের মাথা অবশ্যই পাই থেকে বের করে রাখতে হবে।

টুনা আইবলস, জাপান
জাপানে টুনা মাছ ভীষণ জনপ্রিয়। বলা হয়ে থাকে, জাপানে প্রতিটি টুনা খাওয়া হয় তাদের চোখের বল পর্যন্ত। সেখানে টুনা মাছের চোখ দিয়ে বানানো খাবারের প্রচুর রেসিপি রয়েছে। তবে সহজ উপায় হলো, সেদ্ধ করা বা ভাপানো। তারপর রসুন বা সয়া দিয়ে সিজন করা এবং উপভোগ করা। মজার বিষয় হলো, টুনা মাছের যে স্বাদ তা এই খাবারে পাবেন না। পাবেন স্কুইডের মতো স্বাদ।