ঢাকা ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কলমাকান্দায় সিপিবির জনসভায় হামলা, আহত অন্তত ২০

কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি’র সমাবেশে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, কার্যকরী কমিটির সদস্য দিবালোক সিংহ, জেলা সিপিবি’র সভাপতি নলিনী কান্ত সরকারসহ অন্তত ২০জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। দিবালোক সিংহ বলেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশ চলাকালে ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ওলামা লীগসহ সরকারি দলের যুবকরা সমাবেশস্থলে এসে হামলা করে। এ সময় কলমাকান্দা থানার ওসি’র উপস্থিতিতে পুলিশও আমাদের ওপর লাঠিপেটা শুরু করে। আহতরা কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদের ভাষা জানা নেই। তবে পুলিশ বলছে হামলা নয়, এটি আওয়ামী লীগে সঙ্গে সিপিবির সংঘর্ষ। আমরা শুধু লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। জানা যায়, শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জ্বালানি তেল ও সারসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে উপজেলা সিপিবি সমাবেশের আয়োজন করে। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। পরে সদরের প্রধান সড়ক ঘুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে শহিদ মিনারে যান। সেখানে সমাবেশ শুরু হলে

ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ওলামা লীগের শতাধিক নেতাকর্মী এই সমাবেশ বন্ধ করতে কমিউনিস্ট পার্টির নেতাকর্মীদের বলেন। কিন্তু বন্ধ না করায় একপর্যায়ে তারা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালান। কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খানের দাবি, ‘সরকারি দল ও সিপিবি’র নেতাকর্মীদের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছিল, আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।

Tag :
জনপ্রিয়

হোসেনপুর বাজার সনাতন ধর্মাবলম্বী ব্যাবসায়িকদের উদ্যোগে বস্ত্র বিতরণ

কলমাকান্দায় সিপিবির জনসভায় হামলা, আহত অন্তত ২০

প্রকাশের সময় : ১০:৪২:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২

কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি’র সমাবেশে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, কার্যকরী কমিটির সদস্য দিবালোক সিংহ, জেলা সিপিবি’র সভাপতি নলিনী কান্ত সরকারসহ অন্তত ২০জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। দিবালোক সিংহ বলেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশ চলাকালে ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ওলামা লীগসহ সরকারি দলের যুবকরা সমাবেশস্থলে এসে হামলা করে। এ সময় কলমাকান্দা থানার ওসি’র উপস্থিতিতে পুলিশও আমাদের ওপর লাঠিপেটা শুরু করে। আহতরা কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদের ভাষা জানা নেই। তবে পুলিশ বলছে হামলা নয়, এটি আওয়ামী লীগে সঙ্গে সিপিবির সংঘর্ষ। আমরা শুধু লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। জানা যায়, শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জ্বালানি তেল ও সারসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে উপজেলা সিপিবি সমাবেশের আয়োজন করে। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। পরে সদরের প্রধান সড়ক ঘুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে শহিদ মিনারে যান। সেখানে সমাবেশ শুরু হলে

ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ওলামা লীগের শতাধিক নেতাকর্মী এই সমাবেশ বন্ধ করতে কমিউনিস্ট পার্টির নেতাকর্মীদের বলেন। কিন্তু বন্ধ না করায় একপর্যায়ে তারা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালান। কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খানের দাবি, ‘সরকারি দল ও সিপিবি’র নেতাকর্মীদের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছিল, আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।