ঢাকা ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘তাহলে কি আমি বাইরে বসে থাকব?’, কোহলির ওপেন করার প্রসঙ্গে বললেন রাহুল

আইপিএলে ওপেন করে সেঞ্চুরি পর সেঞ্চুরি আছে বিরাট কোহলির। এবার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতেও তার প্রথম সেঞ্চুরি এলো ইনিংস শুরু করতে নেমেই। তাহলে কি ভারতের টি-টোয়েন্টি দলে ওপেনার হিসেবেই খেলানো উচিত কোহলিকে? প্রশ্নটা ছুটে গেল ওপেনার লোকেশ রাহুলের দিকে। শুনে তার উত্তর, “তাহলে কি আমি নিজেই বাইরে বসে যাব? আজবৃ!”

রাহুল এমনিতে তিন-চার-পাঁচেও ব্যাট করে থাকেন সব সংস্করণ মিলিয়ে। তবে টি-টোয়েন্টিতে জাতীয় দলে ও আইপিএলে মূলত ওপেনার হিসেবেই খেলে আসছেন তিনি। ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে ৫৭ ইনিংসের ৪৩টিতেই ওপেন করেছেন তিনি। এই পজিশনে সাফল্যও আছে বেশ। তার স্ট্রাইক রেট ও সময় নিয়ে ইনিংস গড়ার ধরন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নানা সময়।

টি-টোয়েন্টিতে রাহুলের সঙ্গে ভারতের হয়ে ওপেন করছেন রোহিত শর্মা। দলের অধিনায়ক, তার জায়গা তো পাকাই। ওপেনিংয়ে বদল আনতে হলে তাই বলা যায় রাহুলের জায়গা কিংবা ব্যাটিং পজিশন নিয়েই টানাটানি হতে পারে।

চোট ও অসুস্থতা কাটিয়ে লম্বা সময় পর মাঠে ফিরে এবারের এশিয়া কাপে খুব একটা ভালো করতে পারেননি তিনি। তবে দল ফাইনালের লড়াই থেকে ছিটকে পড়ার পর নিয়ম রক্ষার ম্যাচে বৃহস্পতিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিনি খেলেন ৪১ বলে ৬২ রানের ইনিংস।

তবে এই ম্যাচেই ৬১ বলে ১২২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে সব আলো কেড়ে নেন কোহলি। এই ম্যাচে রোহিত শর্মা না খেলায় ওপেন করেন কোহলি। ১ হাজার ২০ দিনের সেঞ্চুরি খরা কাটান তিনি দুর্দান্ত ব্যাটিং করে।

ম্যাচ শেষে ব্যাটিং পজিশন নিয়ে প্রশ্ন করা হলো রাহুলকে। তিনি শুধু নিয়মিত ওপেনারই নন, দলের সহ-অধিনায়কও। সেই দায়িত্বের জায়গা থেকেই তিনি সামনের সিরিজগুলোয় ও বিশ্বকাপে কোহলিকে ওপেনিংয়ে দেখতে চান কিনা, জানতে চাওয়া হলো। তবে প্রশ্ন শুনে রাহুল যেন আকাশ থেকে পড়লেন।

“(হাসিমুখে) তাহলে কি আমি নিজেই বসে যাব? আজবৃ বিরাটের রান পাওয়া দলের জন্য বড় পাওনা অবশ্যই। যেভাবে সে খেলেছে আজ, অবশ্যই জানি যে সে খুবই তৃপ্ত। গত দুই-তিন সিরিজ ধরে যেভাবে কাজ করে আসছে সে, আজকে তা দারুণভাবে কাজে লেগেছে।”

“দলের জন্যও এটা গুরুত্বপূর্ণ, বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে সব ক্রিকেটার যেন মাঠে পর্যাপ্ত সময় কাটাতে পারে। কেউ দুই-তিন ইনিংস এরকম খেললে আমাদেরকে তা সুযোগ করে দেয় বিশ্বকাপে নিজেদের সেরা ফর্মে থাকার। তাই আমি খুশি যে সে সেঞ্চুরি করেছে।”

রাহুলের মতে, কোহলির যা সামর্থ্য ও ব্যাটসম্যানশিপ, তাতে তিনি শুধু ওপেনিংয়ে নয়, সেঞ্চুরি করতে পারেন তিনে নেমেও।

“বিরাট কোহলিকে আপনারা সবাই চেনেন। এমন নয় যে সে শুধু ওপেন করেই ৫ সেঞ্চুরি করতে পারে, তিন নম্বরে খেললেও সেঞ্চুরি সংখ্যা ৬-৭ হতে পারে। ব্যাপারটা হলো দলে কার কেমন ভূমিকা। আজকে তার যে ভূমিকা ছিল, সে দারুণভাবে পালন করেছে। পরের সিরিজে ভূমিকা ভিন্ন হলে সেটাও সে দারুণভাবে করবে, আমরা তা দেখেছি বছরের পর বছর।”

Tag :

প্রতিমায় রং তুলির আঁচড়ে ব্যস্ত কারিগররা

‘তাহলে কি আমি বাইরে বসে থাকব?’, কোহলির ওপেন করার প্রসঙ্গে বললেন রাহুল

প্রকাশের সময় : ১০:৫৮:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

আইপিএলে ওপেন করে সেঞ্চুরি পর সেঞ্চুরি আছে বিরাট কোহলির। এবার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতেও তার প্রথম সেঞ্চুরি এলো ইনিংস শুরু করতে নেমেই। তাহলে কি ভারতের টি-টোয়েন্টি দলে ওপেনার হিসেবেই খেলানো উচিত কোহলিকে? প্রশ্নটা ছুটে গেল ওপেনার লোকেশ রাহুলের দিকে। শুনে তার উত্তর, “তাহলে কি আমি নিজেই বাইরে বসে যাব? আজবৃ!”

রাহুল এমনিতে তিন-চার-পাঁচেও ব্যাট করে থাকেন সব সংস্করণ মিলিয়ে। তবে টি-টোয়েন্টিতে জাতীয় দলে ও আইপিএলে মূলত ওপেনার হিসেবেই খেলে আসছেন তিনি। ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে ৫৭ ইনিংসের ৪৩টিতেই ওপেন করেছেন তিনি। এই পজিশনে সাফল্যও আছে বেশ। তার স্ট্রাইক রেট ও সময় নিয়ে ইনিংস গড়ার ধরন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নানা সময়।

টি-টোয়েন্টিতে রাহুলের সঙ্গে ভারতের হয়ে ওপেন করছেন রোহিত শর্মা। দলের অধিনায়ক, তার জায়গা তো পাকাই। ওপেনিংয়ে বদল আনতে হলে তাই বলা যায় রাহুলের জায়গা কিংবা ব্যাটিং পজিশন নিয়েই টানাটানি হতে পারে।

চোট ও অসুস্থতা কাটিয়ে লম্বা সময় পর মাঠে ফিরে এবারের এশিয়া কাপে খুব একটা ভালো করতে পারেননি তিনি। তবে দল ফাইনালের লড়াই থেকে ছিটকে পড়ার পর নিয়ম রক্ষার ম্যাচে বৃহস্পতিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিনি খেলেন ৪১ বলে ৬২ রানের ইনিংস।

তবে এই ম্যাচেই ৬১ বলে ১২২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে সব আলো কেড়ে নেন কোহলি। এই ম্যাচে রোহিত শর্মা না খেলায় ওপেন করেন কোহলি। ১ হাজার ২০ দিনের সেঞ্চুরি খরা কাটান তিনি দুর্দান্ত ব্যাটিং করে।

ম্যাচ শেষে ব্যাটিং পজিশন নিয়ে প্রশ্ন করা হলো রাহুলকে। তিনি শুধু নিয়মিত ওপেনারই নন, দলের সহ-অধিনায়কও। সেই দায়িত্বের জায়গা থেকেই তিনি সামনের সিরিজগুলোয় ও বিশ্বকাপে কোহলিকে ওপেনিংয়ে দেখতে চান কিনা, জানতে চাওয়া হলো। তবে প্রশ্ন শুনে রাহুল যেন আকাশ থেকে পড়লেন।

“(হাসিমুখে) তাহলে কি আমি নিজেই বসে যাব? আজবৃ বিরাটের রান পাওয়া দলের জন্য বড় পাওনা অবশ্যই। যেভাবে সে খেলেছে আজ, অবশ্যই জানি যে সে খুবই তৃপ্ত। গত দুই-তিন সিরিজ ধরে যেভাবে কাজ করে আসছে সে, আজকে তা দারুণভাবে কাজে লেগেছে।”

“দলের জন্যও এটা গুরুত্বপূর্ণ, বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে সব ক্রিকেটার যেন মাঠে পর্যাপ্ত সময় কাটাতে পারে। কেউ দুই-তিন ইনিংস এরকম খেললে আমাদেরকে তা সুযোগ করে দেয় বিশ্বকাপে নিজেদের সেরা ফর্মে থাকার। তাই আমি খুশি যে সে সেঞ্চুরি করেছে।”

রাহুলের মতে, কোহলির যা সামর্থ্য ও ব্যাটসম্যানশিপ, তাতে তিনি শুধু ওপেনিংয়ে নয়, সেঞ্চুরি করতে পারেন তিনে নেমেও।

“বিরাট কোহলিকে আপনারা সবাই চেনেন। এমন নয় যে সে শুধু ওপেন করেই ৫ সেঞ্চুরি করতে পারে, তিন নম্বরে খেললেও সেঞ্চুরি সংখ্যা ৬-৭ হতে পারে। ব্যাপারটা হলো দলে কার কেমন ভূমিকা। আজকে তার যে ভূমিকা ছিল, সে দারুণভাবে পালন করেছে। পরের সিরিজে ভূমিকা ভিন্ন হলে সেটাও সে দারুণভাবে করবে, আমরা তা দেখেছি বছরের পর বছর।”