ঢাকা ১০:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে চায় বার্সেলোনা

শেষ ৫ মৌসুম ধরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কেবল বার্সেলোনাকে হতাশাই উপহার দিয়েছে। ইউরোপসেরার আসরে পারফর্ম্যান্সের গ্রাফ নামছিল প্রতি মৌসুমেই। শেষ আসরে তো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ইউরোপা লিগেই ঠিকানা হয়েছিল দলটির! সেই ধারাটা এবার বদলাতে চায় বার্সেলোনা। জিততে চায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।

কোচ জাভি হার্নান্দেজ গেল মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দুটো ম্যাচে দায়িত্বে ছিলেন বার্সার। সেই দুই ম্যাচে জিততে ব্যর্থ হয় দলটি। এরপর ঠিকানা হয় ইউরোপায়। তবে এবার বার্সা শিরোপার জন্যই খেলতে যাচ্ছে প্রতিযোগিতাটিতে, অভিমত জাভির।

আজ বুধবার রাতে বার্সা ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভিক্তোরিয়া প্লজেনের। তার আগে সংবাদ সম্মেলনে বার্সা কোচ জানালেন নিজের মনের কথা। বললেন, ‘আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব, বড় স্বপ্ন দেখব। নাহয় আমরা ঘরে থাকলেই পারতাম। আমরা এই টুর্নামেন্টে কেন খেলতে পারব না? বার্সার প্রধান লক্ষ্যই শুধু জেতা। আমি নিজেও জিততেই পছন্দ করি। কোনো টুর্নামেন্টে জয়ের ইচ্ছা ছাড়া আমি খেলতে পছন্দ করি না।’

কাতালুনিয়ায় শেষ বার যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ গিয়েছিল, কোচ জাভি তখন বার্সেলোনার অধিনায়ক। এরপর থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কেবল বঞ্চনাই উপহার দিয়েছে দলটিকে।

এবার অবশ্য বার্সা বড় অর্থ খরচ করেছে দলবদলের বাজারে। এরপর এই আসরে দলটিকে শিরোপার দাবিদার হিসেবে ধরা হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বার্সেলোনা কোচ জানালেন, শিরোপার দাবিদার হওয়াটা পুরোপুরি ভিন্ন বিষয়। তিনি বলেন, ‘ফেভারিট হওয়াটা পুরোপুরি ভিন্ন বিষয়। আপনাকে নম্র হতে হবে। এখানে প্রতিটা ম্যাচই একেকটা যুদ্ধ। আমরা এখানে ২০১৫ সালের পর থেকে শিরোপা জিততে পারিনি।’

এই কথা বলে বার্সা নিজেদের ওপর চাপ নিয়ে আসছে না তো? জাভির অভিমত, ‘আমরা চাপকে স্বাগত জানাই। বার্সেলোনায় থাকলে প্রতিটা দিনই আপনার জন্য চাপের হবে। আমরা পাঁচটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছি, সেটা চাপ জয় করেই। আরও একটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার স্বপ্ন দেখাটা নিজেদের ওপর বাড়তি চাপ নিয়ে আসা নয়।’

‘সি’ গ্রুপে বার্সা প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ, ইন্টার মিলান আর ভিক্তোরিয়া প্লজেনকে। বাকি দুই দলের তুলনায় ভিক্তোরিয়াই তুলনামূলক ‘দুর্বল’ প্রতিপক্ষ। সেই দলটাকেই আজ নিজেদের মাঠে আতিথ্য দিচ্ছে দলটি। তবে জাভি পঁচা শামুকে পা কাঁটার বিষয়টাও মাথায় রাখছেন ভালোভাবেই।

বার্সা কোচের কথা, ‘আমি জানি লোকজন আমাদের ফেভারিট হিসেবে দেখছে। তবে প্লজেন দল হিসেবে বেশ শারীরিক ফুটবল খেলে, কঠোর পরিশ্রম করে। এই ম্যাচটা একটা ফাঁদের মতো মনে হচ্ছে।’

‘এখন আমাদের নিজেদের লক্ষ্য নকআউট পর্বে যাওয়ার ক্ষেত্রে মনোযোগী হতে হবে। কঠিন একটা প্রতিযোগিতায় কঠিন এক গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোয় যেতে হবে আমাদের। প্রধান লক্ষ্য শিরোপা জেতাই থাকবে, তবে আগামীকাল (আজ) আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, প্রথম ম্যাচটায় জেতা।’

Tag :
জনপ্রিয়

তিতাসে বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যান সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১৫

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে চায় বার্সেলোনা

প্রকাশের সময় : ০৬:০৪:০৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

শেষ ৫ মৌসুম ধরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কেবল বার্সেলোনাকে হতাশাই উপহার দিয়েছে। ইউরোপসেরার আসরে পারফর্ম্যান্সের গ্রাফ নামছিল প্রতি মৌসুমেই। শেষ আসরে তো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ইউরোপা লিগেই ঠিকানা হয়েছিল দলটির! সেই ধারাটা এবার বদলাতে চায় বার্সেলোনা। জিততে চায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।

কোচ জাভি হার্নান্দেজ গেল মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দুটো ম্যাচে দায়িত্বে ছিলেন বার্সার। সেই দুই ম্যাচে জিততে ব্যর্থ হয় দলটি। এরপর ঠিকানা হয় ইউরোপায়। তবে এবার বার্সা শিরোপার জন্যই খেলতে যাচ্ছে প্রতিযোগিতাটিতে, অভিমত জাভির।

আজ বুধবার রাতে বার্সা ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভিক্তোরিয়া প্লজেনের। তার আগে সংবাদ সম্মেলনে বার্সা কোচ জানালেন নিজের মনের কথা। বললেন, ‘আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব, বড় স্বপ্ন দেখব। নাহয় আমরা ঘরে থাকলেই পারতাম। আমরা এই টুর্নামেন্টে কেন খেলতে পারব না? বার্সার প্রধান লক্ষ্যই শুধু জেতা। আমি নিজেও জিততেই পছন্দ করি। কোনো টুর্নামেন্টে জয়ের ইচ্ছা ছাড়া আমি খেলতে পছন্দ করি না।’

কাতালুনিয়ায় শেষ বার যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ গিয়েছিল, কোচ জাভি তখন বার্সেলোনার অধিনায়ক। এরপর থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কেবল বঞ্চনাই উপহার দিয়েছে দলটিকে।

এবার অবশ্য বার্সা বড় অর্থ খরচ করেছে দলবদলের বাজারে। এরপর এই আসরে দলটিকে শিরোপার দাবিদার হিসেবে ধরা হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বার্সেলোনা কোচ জানালেন, শিরোপার দাবিদার হওয়াটা পুরোপুরি ভিন্ন বিষয়। তিনি বলেন, ‘ফেভারিট হওয়াটা পুরোপুরি ভিন্ন বিষয়। আপনাকে নম্র হতে হবে। এখানে প্রতিটা ম্যাচই একেকটা যুদ্ধ। আমরা এখানে ২০১৫ সালের পর থেকে শিরোপা জিততে পারিনি।’

এই কথা বলে বার্সা নিজেদের ওপর চাপ নিয়ে আসছে না তো? জাভির অভিমত, ‘আমরা চাপকে স্বাগত জানাই। বার্সেলোনায় থাকলে প্রতিটা দিনই আপনার জন্য চাপের হবে। আমরা পাঁচটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছি, সেটা চাপ জয় করেই। আরও একটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার স্বপ্ন দেখাটা নিজেদের ওপর বাড়তি চাপ নিয়ে আসা নয়।’

‘সি’ গ্রুপে বার্সা প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ, ইন্টার মিলান আর ভিক্তোরিয়া প্লজেনকে। বাকি দুই দলের তুলনায় ভিক্তোরিয়াই তুলনামূলক ‘দুর্বল’ প্রতিপক্ষ। সেই দলটাকেই আজ নিজেদের মাঠে আতিথ্য দিচ্ছে দলটি। তবে জাভি পঁচা শামুকে পা কাঁটার বিষয়টাও মাথায় রাখছেন ভালোভাবেই।

বার্সা কোচের কথা, ‘আমি জানি লোকজন আমাদের ফেভারিট হিসেবে দেখছে। তবে প্লজেন দল হিসেবে বেশ শারীরিক ফুটবল খেলে, কঠোর পরিশ্রম করে। এই ম্যাচটা একটা ফাঁদের মতো মনে হচ্ছে।’

‘এখন আমাদের নিজেদের লক্ষ্য নকআউট পর্বে যাওয়ার ক্ষেত্রে মনোযোগী হতে হবে। কঠিন একটা প্রতিযোগিতায় কঠিন এক গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোয় যেতে হবে আমাদের। প্রধান লক্ষ্য শিরোপা জেতাই থাকবে, তবে আগামীকাল (আজ) আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, প্রথম ম্যাচটায় জেতা।’