ঢাকা ০১:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মন্দিরে ঢুকতে পারলেন না রণবীর-আলিয়া

আগামী শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) মুক্তি পাচ্ছে রণবীর এবং আলিয়া ভাট অভিনীত নতুন সিনেমা ‘ব্রহ্মাস্ত্র পার্ট ১: শিবা’। তার আগে মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) উজ্জয়িনীর শিব মন্দিরে আশীর্বাদ নিতে পৌঁছান রণলিয়া। তাদের সঙ্গে ছিলেন পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়।

উজ্জয়িনীর মহাকালেশ্বর মন্দিরের সামনে পৌঁছানোর পর তাদের অভ্যর্থনা জানানো হয় মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। কিন্তু মন্দিরে ঢুকতে যেতেই বাধা দেন আগে থেকেই জড়ো হয়ে থাকা বিক্ষোভকারীরা। ১১ বছর আগে গরুর মাংস নিয়ে করা রণবীরের একটি মন্তব্যকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয় মহাকালেশ্বর মন্দিরের বাইরে।

২০১১ সালে ‘রকস্টার’ সিনেমার প্রচারের সময় একটি সাক্ষাৎকারে রণবীর বলেছিলেন, ‘আমার পরিবার পেশোয়ারের। ফলে পোশায়ারি খাবারের সঙ্গে পরিচিত আমি। মটন, পায়া এবং গোমাংসও ভালবাসি। গোমাংসের বড় ভক্ত আমি।”

‘ব্রহ্মাস্ত্র পার্ট ১: শিবা’র মুক্তির আগেই রণবীরের সেই মন্তব্য নেটমাধ্যমে ফের ভাইরাল হয়। তার সিনেমা বয়কট করারও আওয়াজ উঠতে শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই।

রণবীর-আলিয়ারা মহাকালেশ্বর মন্দিরে আসার আগেই বজরং দলের স্থানীয় নেতা অঙ্কিত জিন্দল হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, “রণবীর-আলিয়াকে আমরা মন্দিরে ঢুকতে দেব না। রণবীর বলেছিলেন, গোমাংস খাওয়া ভাল। যারা এই ধরনের চিন্তাভাবনা করেন, তাদের মহাকালেশ্বর মন্দিরে কোনও ভাবেই ঢুকতে দেওয়া হবে না।”

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে উজ্জয়িনীর পুলিশকর্তা ওমপ্রকাশ মিশ্র বলেন, “রণবীর, আলিয়ারা আসবেন বলে আগে থেকেই ভিআইপি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল মহাকালেশ্বর মন্দিরে। তারা মন্দিরে পৌঁছাতেই বেশ কিছু লোক সেখানে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। যদিও পরিস্থিতি সামলে নেওয়া হয়েছিল।”

শেষ পর্যন্ত রণবীর-আলিয়া মন্দিরে ঢোকেননি। একমাত্র অয়নই মন্দিরে ঢুকে পূজা দেন। ইনস্টাগ্রামে তিনি সেই ছবি শেয়ারও করেছেন।

Tag :

বুবলীর গন্তব্য কী?

মন্দিরে ঢুকতে পারলেন না রণবীর-আলিয়া

প্রকাশের সময় : ০৮:০১:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

আগামী শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) মুক্তি পাচ্ছে রণবীর এবং আলিয়া ভাট অভিনীত নতুন সিনেমা ‘ব্রহ্মাস্ত্র পার্ট ১: শিবা’। তার আগে মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) উজ্জয়িনীর শিব মন্দিরে আশীর্বাদ নিতে পৌঁছান রণলিয়া। তাদের সঙ্গে ছিলেন পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়।

উজ্জয়িনীর মহাকালেশ্বর মন্দিরের সামনে পৌঁছানোর পর তাদের অভ্যর্থনা জানানো হয় মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। কিন্তু মন্দিরে ঢুকতে যেতেই বাধা দেন আগে থেকেই জড়ো হয়ে থাকা বিক্ষোভকারীরা। ১১ বছর আগে গরুর মাংস নিয়ে করা রণবীরের একটি মন্তব্যকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয় মহাকালেশ্বর মন্দিরের বাইরে।

২০১১ সালে ‘রকস্টার’ সিনেমার প্রচারের সময় একটি সাক্ষাৎকারে রণবীর বলেছিলেন, ‘আমার পরিবার পেশোয়ারের। ফলে পোশায়ারি খাবারের সঙ্গে পরিচিত আমি। মটন, পায়া এবং গোমাংসও ভালবাসি। গোমাংসের বড় ভক্ত আমি।”

‘ব্রহ্মাস্ত্র পার্ট ১: শিবা’র মুক্তির আগেই রণবীরের সেই মন্তব্য নেটমাধ্যমে ফের ভাইরাল হয়। তার সিনেমা বয়কট করারও আওয়াজ উঠতে শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই।

রণবীর-আলিয়ারা মহাকালেশ্বর মন্দিরে আসার আগেই বজরং দলের স্থানীয় নেতা অঙ্কিত জিন্দল হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিলেন, “রণবীর-আলিয়াকে আমরা মন্দিরে ঢুকতে দেব না। রণবীর বলেছিলেন, গোমাংস খাওয়া ভাল। যারা এই ধরনের চিন্তাভাবনা করেন, তাদের মহাকালেশ্বর মন্দিরে কোনও ভাবেই ঢুকতে দেওয়া হবে না।”

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে উজ্জয়িনীর পুলিশকর্তা ওমপ্রকাশ মিশ্র বলেন, “রণবীর, আলিয়ারা আসবেন বলে আগে থেকেই ভিআইপি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল মহাকালেশ্বর মন্দিরে। তারা মন্দিরে পৌঁছাতেই বেশ কিছু লোক সেখানে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। যদিও পরিস্থিতি সামলে নেওয়া হয়েছিল।”

শেষ পর্যন্ত রণবীর-আলিয়া মন্দিরে ঢোকেননি। একমাত্র অয়নই মন্দিরে ঢুকে পূজা দেন। ইনস্টাগ্রামে তিনি সেই ছবি শেয়ারও করেছেন।