রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ২৩ মে ২০২০, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৮:০০ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ গৌরীপুর অস্ত্র সহ ৪ ডাকাত আটক ◈ পত্নীতলা ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে অসহায় এবং কর্মহীন পরিবারে খাদ্য সহায়তা ◈ নবীগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২ ◈ নোয়াখালীতে সিভিল সার্জন অফিসের স্টাফ সহ ৪১ জন করোনা আক্রান্ত ◈ চরফ্যাশনে ইঞ্জিনিয়ার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ ◈ দৌলতপুরে ব্রাক ব্যাংক বড়গাংদিয়া এজেন্টব্যাংকিং এর উদ্দ্যোগে খাদ্য সহায়তা প্রদান ◈ কুড়িগ্রামে ২৭০০ কর্মহীন পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন লিটন ◈ ময়মনসিংহে ঈদ উপহার বিতরণ করল ২০০১ ব্যাচের বন্ধুরা ◈ রায়পুরায় নিজ অর্থায়নে ঈদ সামগ্রী ও ৪৫টি মসজিদে নগদ অর্থ বিতরন করেন ফাইজুর রহমান সরকার ◈ সেনবাগে সরকারি আদেশ অমান্য করায় ক্রেতা বিক্রেতার ৬২ হাজার ৬ শত টাকা জরিমানা

৪৭ মিনিটেই শেষ

প্রকাশিত : ০৪:২৯ AM, ২৫ নভেম্বর ২০১৯ Monday ১০২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

মৃত্যুপথযাত্রীকে শেষ দেখা দেখতে আইসিইউর কাচের দেয়ালের এপাশে জড়ো হওয়া আত্মীয়-স্বজনের মতোই অলৌকিকের প্রত্যাশা নিয়ে কাল মাঠে হাজির হয়েছে বাংলাদেশের সমর্থকরা। রবিবার দুপুরের প্রথম চারটি ডেলিভারিতেই শেষ হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস, তবু মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে আগের দিন রাতে দেখা লড়াইয়ের ঝাঁজটা পরদিন সকালেও থাকবে ভেবেই তাদের ছুটে আসা। পুলিশের ব্যারিকেড পেরিয়ে, ইডেনের বিশাল সব সিঁড়ি ডিঙিয়ে জায়গায় এসে বসতে যতটা সময় লেগেছে, তার চেয়েও কম সময়েই শেষ হয়ে গেছে বাংলাদেশের ইনিংস। সময়ের স্থায়িত্বে ৪৭ মিনিট, বলের হিসাবে ৫২ বল। তাতেই আরো ৪৩ রান যোগ করতেই শেষ ৩ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ অল আউট ১৯৫ রানে। ব্যাট করতে আর নামতে পারেননি মাহমুদ উল্লাহ। বাংলাদেশের হার ইনিংস ও ৪৬ রানে।

সকালে ড্রেসিংরুম থেকে মুশফিকের ছোটখাটো শরীরটার সঙ্গে লম্বা গড়নের ইবাদত হোসেনকে বের হতে দেখেই যা বোঝার বোঝা হয়ে গেছে। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট এক রাতে সারবার নয়, মাহমুদকেও তাই সকালে ব্যাটিংয়ে নামতে দেখা গেল না। হেডিংলিতে বেন স্টোকস যেভাবে জ্যাক লিচকে নিয়ে ইতিহাস গড়েছিলেন, মুশফিক কি পারবেন সে রকম কিছু? ম্যাচটা জেতাতে হবে না, শুধু ইনিংস পরাজয়টা এড়িয়ে দিলেও খুশি হতো দর্শকরা। হাফসেঞ্চুরিটাকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তরিত করতে পারলে সেটাও হতো আত্মসমর্পণের ম্যাচে একটা প্রাপ্তি। কিন্তু হলো না তেমন কিছুই। ইশান্তের ওভারটা পুরো খেলে শেষ বলে এক রান নিয়ে স্ট্রাইক রাখতে পারলেন না মুশফিক, বোলার বদল হতেই পরের বলে উমেশ যাদবের বাউন্সারে মুখ বাঁচাতে গিয়ে ক্যাচ দিলেন ইবাদত। আল-আমিন এসে হেলমেটে ও গায়ে-মাথায় বেশ কিছু বলের আঘাত পেয়েও মুশফিককে সঙ্গ দিচ্ছিলেন। আচমকা কী যে হলো মুশফিকের, যাদবের বলে ডাউন দ্য উইকেটে এসে তেড়ে চালিয়ে ক্যাচ তুলে দিলেন রবীন্দ্র জাদেজার হাতে। ৭৪ রানে আউট হয়ে গেলেন মুশফিক, বাংলাদেশের আশার শেষ সলতে নিভে গেল ওখানেই। নিজের পরের ওভারে এসে প্রথম বলেই আল-আমিনকে ঋদ্ধিমান সাহার হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করে বাংলাদেশের ইনিংসটা মুড়িয়ে দিলেন যাদব। তৃতীয় দিনের তিনটি উইকেটই তুলে নিয়েছেন বিদর্ভের এই পেসার।

‘ক্লিনিক্যালি ডেড’, ঘোষণা হয়ে গিয়েছিল আগের দিনেই। কাল শুধু সই হলো ডেথ সার্টিফিকেটে। হারের ব্যবধান, সময়—এসব সংখ্যা বসল। টেস্ট তো বাংলাদেশ হেরে গেছে প্রথম মুহূর্তেই, যখন টস জিতে মমিনুল হক নিয়েছেন ব্যাটিং। কাল আরো একবার নিজের সিদ্ধান্তের পক্ষে সাফাই গাইলেন নবীন অধিনায়ক, ‘টস জিতে বোলিং নিলে চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করা লাগত। লাল বলের চেয়ে নতুন গোলাপি বলে চ্যালেঞ্জ অনেক বেশি।’ বোর্ড সভাপতির সঙ্গে টস নিয়ে আলাপ হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নেও বললেন, ‘আমি ওসময় সামনাসামনি ছিলাম না। ওসব বিষয় নিয়ে মন্তব্য করতে পারব না।’

আচমকা অধিনায়ক হয়ে গিয়ে মমিনুল সংবাদ সম্মেলনে এসে যা বলছেন, বেশির ভাগ কথারই কোনো অর্থ দাঁড়াচ্ছে না। বরং বিরাট কোহলি যেটা বললেন, সেটা বাংলাদেশের খারাপ খেলার কারণটা বুঝিয়ে দিল স্পষ্ট করে, ‘প্রথমত, ওদের দুজন সবচেয়ে অভিজ্ঞ ও গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার দলের সঙ্গে নেই। সাকিব নেই, তামিম আসেনি। মাহমুদ উল্লাহও আছে, তবে মুশফিক হচ্ছে একমাত্র ক্রিকেটার যার দিকে পুরো দলটা তাকিয়ে। বাকিরা সবাই নতুন। তারা যত অভিজ্ঞ হবে, যত বেশি বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলবে তত তারা ভালো করার সম্ভাবনা জাগাবে। নিয়মিত খেলতে হবে, এখন দুটো টেস্ট খেলার দেড় বছর পর আবার দুটো টেস্ট খেললে মাঝে কী হয়েছে তা সবাই ভুলে যাবে। দক্ষতাটা ওদের ঠিকই আছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট যেহেতু খেলছে, তারা আসলেই ভালো। শুধু ম্যাচে একেকটা পরিস্থিতিতে কিভাবে খেলতে হয় সেই অভিজ্ঞতাটার অভাব আছে। বোর্ড এবং ক্রিকেটারদের মিলেই আসলে খুঁজে বের করতে হবে টেস্ট ক্রিকেট তাদের কাছে কতটা মানে রাখে এবং এটাই টেস্ট ক্রিকেটে এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র উপায়।’

গোলাপি আবির মুছে যাওয়ার আগেই শেষ ইডেন টেস্ট। আরো একটি লজ্জার হার বাংলাদেশের। এই বছর বিদেশে নিউজিল্যান্ড, দেশে আফগানিস্তান এবং এরপর ভারত সফরে দুটো টেস্ট মিলিয়ে ৫ টেস্টেই হার বাংলাদেশের। টেস্ট ক্রিকেটে পথচলার দুই দশক পূর্তির লগ্নে এই ফলগুলো যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল, বয়স বাড়লেও বেড়ে ওঠেনি বাংলাদেশ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT