রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

রবিবার ২৬ জুন ২০২২, ১২ই আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

১১:০৮ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ নাটোর ইয়ুথ ব্লাড ডোনার গ্রুপের হয়ে কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের পাশে বাংলার মিঃ বিন ◈ নোয়াখালীতে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃত্যু ◈ কালিহাতীতে আশ্রয়ন প্রকল্পে বসবাসরত পরিবারের মাঝে খাবার বিতরণ ◈ রাজারহাটে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ◈ রৌমারীতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে স্প্রে মেশিন বিতরণ। ◈ বেদে সম্প্রদায়সহ বানভাসি অসহায় মানুষের পাশে,মধ্যনগর থানা পুলিশ ◈ পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ডামুড্যায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।। ◈ স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে কালিহাতী থানা পুলিশের আতশবাজি প্রদর্শনী ◈ হাইওয়ে পুলিশের উদ্যোগে শেরপুরে বন্যার্তদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ◈ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠান ভার্চুয়ালি উপভোগ করেণ দুর্গাপুর উপজেলা প্রশাসন

স্বার্থসংঘাত নিয়ে এবার দ্রাবিড়কে বিসিসিআইয়ের তলবস্বার্থসংঘাত নিয়ে এবার দ্রাবিড়কে বিসিসিআইয়ের তলব

প্রকাশিত : 04:42 PM, 7 August 2019 Wednesday 517 বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তি ও সাবেক অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়কে স্বার্থসংঘাত নিয়ে চিঠি পাঠাল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এই মুহূর্তে দ্রাবিড় জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান এবং ইন্ডিয়া সিমেন্ট গ্রুপের ভাইস প্রেসিডেন্ট। ইন্ডিয়া সিমেন্ট গ্রুপ আবার আইপিএলের চেন্নাই সুপার কিংসের অন্যতম মালিক। দ্বৈত পদে থাকার জন্যই বোর্ডের অমবাডস্ম্যান ও এথিক্স অফিসার ডিকে জৈন (অবসরপ্রাপ্ত বিচারক) তাকে উদ্দেশ্য করে চিঠি পাঠিয়েছে।

এর আগে স্বার্থ সংঘাতের চিঠি পেয়েছিলেন ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঙ্গুলি এবং ভিভিএস লক্ষ্মণও। সেই সময় শচীন ও লক্ষ্মণ দু’জনেই ছিলেন ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটির সদস্য। আবার দু’জনেই যথাক্রমে যুক্ত ছিলেন আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মেন্টর হিসেবে।

অন্যদিকে, কলকাতার যুবরাজ গাঙ্গুলিও ছিলেন অ্যাডভাইজারি কমিটির অন্যতম সদস্য এবং দিল্লি ক্যাপিটালসের মেন্টর। তিনি বেঙ্গল ক্রিকেটের প্রধানও বটে। একসঙ্গে এতগুলো পদে থাকার কারণে তাকে ওপর স্বার্থসংঘাতের প্রশ্ন তোলে বোর্ড।

দ্রাবিড়কে চিঠি পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিকে জৈন সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে বলেন, একটি অভিযোগ পাওয়ার পর গত সপ্তাহে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তাকে দু’সপ্তাহ সময় বেধে দেয়া হয়েছে এ ব্যাপারে উত্তর দেয়ার জন্য। ওর উত্তরের ওপর নির্ভর করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

শচীন স্বার্থসংঘাতের চিঠির উত্তরে জানিয়েছিলেন, কাজের বিনিময়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস থেকে কোনো পারিশ্রমিক নেন না তিনি। তাই স্বার্থসংঘাতের প্রশ্ন ওঠা অবাঞ্চিত। লক্ষ্মণ তার উত্তরে জানিয়েছিলেন, তিনি ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটির পদ ছেড়ে দিতে রাজি আছেন।

যদিও পরবর্তী সময় দু’জনকেই অ্যাডভাইজারি কমিটি থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছিল। এমনকি গাঙ্গুলিকেও সরিয়ে দেয়া হয় ওই কমিটি থেকে এবং নতুন কমিটি তৈরি করা হয়।

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান হিসাবে সফল দ্রাবিড়। বিতর্ক থেকে দূরে থাকা নিপাট এই ভদ্রলোক বোর্ডের চিঠির জবাবে এখন কী উত্তর দেন সেদিনেও তাকিয়ে এখন সবাই।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT