রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১, ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০২:১৯ অপরাহ্ণ

সিরাজগঞ্জে মেয়ের উত্যক্তের প্রতিবাদে বাবা খুন: ৪ আসামী ৩ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত : ০২:০২ PM, ৭ অক্টোবর ২০১৯ সোমবার ১৯৪ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

কলেজ ছাত্রী মেয়েকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবা আব্দুর রউফ আবু সাঈদ (৪৫) হত্যার ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ৪ আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। রবিবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে রিমান্ড শুনানি শেষে আদালতের বিচারক আহসান হাবীব তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত বৃহস্পতিবার মামলার তদন্তকারী কর্মকতা গৌতম চন্দ্র মালি আসমীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। রিমান্ড প্রাপ্তরা হলেন, সিরাজগঞ্জের কাজীপুর পৌর ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন, পারভেজ ইসলাম নয়নও মিরাজুল ইসলাম বিদ্যুৎ। গত বুধবার বিকেলে কলেজ পড়–য়া মেয়ের উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কাজিপুর উপজেলার গান্ধাইল ইউনিয়নের দুবলাই গ্রামের কোরবান আলী মন্ডলের ছেলে আবু সাঈদকে পিটিয়ে হত্যা করে পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা।

এঘটনায় নিহতের ভাই আবু তালেব বাদী হয়ে পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম সহ ৮ জনকে আসামী করে কাজীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় পুলিশ আমিনুল, নাছির, পারভেজ ইসলাম নয়ন ও মিরাজুল ইসলাম বিদ্যুৎকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।

কাজীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.কে.এম.লুৎফর রহমান জানান, নিহতের মেয়ে সোনিয়া খাতুন সিরাজগঞ্জ সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। উচ্চ মাধ্যমিক পড়ার সময় কাজিপুর পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা সদরের আলমপুর গ্রামের আমিনুল ইসলাম মেয়েটির গৃহশিক্ষক ছিলেন। পূর্বে তাদের মধ্যে কিছুটা সম্পর্ক থাকলেও অনার্স ভর্তির পর সম্পর্কের অবনতি হয়। পরবর্তী সময়ে ওই গৃহ শিক্ষক প্রায় মেয়েটিকে কলেজ যাবার পথে উত্যক্ত করতো বলে জানা যায়। বিষয়টি নিয়ে এর আগেই তাকে বেশ ক’বার সতর্ক করেন মেয়েটির স্বজনরা।

গত বুধবার দুপুরে মেয়েটি কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে আমিনুল ও তার কজন ছাত্র পথ আগলে উত্যক্ত করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে মেয়েটির বাবা আবু সাঈদ ঘটনাস্থলে গিয়ে হৈচৈ ও প্রতিবাদ করেন। এ সময় আমিনুলেল দলবল আবু সাঈদকে বেধড়ক মারপীট করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির সন্ধায় সে মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT