রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০১:৫০ পূর্বাহ্ণ

শ্রীনগরে বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারী ফোরামের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত : ০৬:৫৮ PM, ৫ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার ২৭৭ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

সকল নাগরিকের শিক্ষার সমান অধিকার নিশ্চিতকরণ একমাত্র সমাধান শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার বেলা ১১ টায় জেলার শ্রীনগর প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে জেলা ও শ্রীনগর উপজেলা শাখার বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারী ফোরামের যৌথ উদ্যোগে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ বেসরকারী শিক্ষক কর্মচারী ফোরামের মুন্সীগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল রহিম সরকার এক লিখিত বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নে জাতীয়করণ শিক্ষার মানোন্নয়ন করে বিশাল জনগোষ্ঠীকে মানব সম্পদে পরিনত করার ক্ষেত্রে শিক্ষকদের অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরুপ প্রতিবছর পালন করা হয় বিশ^ শিক্ষক দিবস। পৃথিবীর সব দেশের সমাজের কাছে এদিনটি অত্যন্ত গৌরব ও মর্যাদার। শিক্ষকদের অবদানকে স্মরণ করার জন্য ইউনেস্কো এবং আইএলও এর যৌথ সভায় প্যারিসে ১৯৯৪ সালে বিশ^ শিক্ষক দিবস হিসেবে ৫ অক্টোবরকে নির্ধারন করা হয়। এরপর ১৯৯৫ খ্রিষ্টাব্দ থেকে প্রতিবছর এদিনে দিবসটি উদযাপন করা হয়। আইএলও ও ইউনেস্কোর ‘বিশ^ শিক্ষক দিবস’ প্রস্তাবনায় বাংলাদেশ সম্মতি স্বাক্ষর করলেও এদিবসটি রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালন করা হয় না। তিনি আরো বলেন, প্রতিবছরই নির্দিষ্ট দিনে শিক্ষক সম্প্রদায়ের পেশাজীবি সংগঠনগুলো তাদের নিজস্ব ব্যানারে এ দিবসটি পালন করে আসছে।
দিবসটি পালনের উদ্দেশ্য হচ্ছে শিক্ষকদের অধিকার সম্পর্কে জানানো এবং মান সম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে শিক্ষকদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে আলোকপাত করা। বিশ^ শিক্ষক দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য “ণড়ঁহম ঞবধপযবৎ: ঞযব ভঁঃঁৎব ড়ভ ঃযব চৎড়ভবংংরড়হ” হলেও বাংলাদেশ বেসরকারী শিক্ষক কর্মচারী ফোরামের এবছরের আলোচ্য বিষয় হচ্ছে ‘শিক্ষার মানোন্নয়নে চাই শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ’।

বক্তব্যে আরো বলা হয়, বিনামূল্যে শিক্ষার সুযোগ পাওয়া মানুষের মৌলিক ও সাংবিধানিক অধিকার। শিক্ষকদের হাতেই দেশের ভবিষ্যত প্রজন্মকে গড়ে তোলার দায়িত্ব। নতুন প্রজন্মকে দক্ষ ও যোগ্য মানুষ হিসেবে তৈরি করেন শিক্ষকরাই। নৈতিকতা সমৃদ্ধ মানুষ গড়ার মূল কারিগর শিক্ষকগন। তাই সকল বঞ্চনা বৈষম্য দূরীকরণ এবং যথাযথ সম্মান ও মর্যাদা দিতে হবে শিক্ষকদের। অবিলম্বে জাতীয় শিক্ষানীতির বাস্তবায়ন করে শিক্ষকদের মাঝে যে, অপ্রাপ্তি, বঞ্চনা, বৈষম্য ও ক্ষোভ রয়েছে তা দূরীকরণ করা জরুরী। শিক্ষা ব্যবস্থায় সরকারি ও বেসরকারী শিক্ষকদের মধ্যে যে, বৈষম্য রয়েছে তা দূরীকরণে অবিলম্বে শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করন হলে শুধুমাত্র শিক্ষকরাই উপকৃত হবেন না, এর সর্বোচ্চ সুবিধা ভোগ করবে প্রান্তিক অসচ্ছল জনগোষ্ঠীর সন্তানরাও।
তিনি আক্ষেপ করে বলেন যে, সংখ্যায় পাঁচ লক্ষাধিক এবং দেশের ৯৭ ভাগ মাধ্যমিক শিক্ষা পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেও বছরশেষে তাঁদের প্রাপ্তি অতিরিক্ত ৪% বেতন কর্তন।
লিখিত বক্তব্য পেশের শেষপ্রান্তে তিনি মুজিববর্ষকে আলোকবর্ষ হিসেবে আখ্যায়িত করেন এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের আহ্বান জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন-সম্পাদক আব্দুল হালিম, যুগ্ন-সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ কুমার সাহা, জেলা কমিটির সহ-সভাপতি মো. জহিরুল হক, মো. আবুল হোসেন, এসএমতৌহিদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মিয়া ফরিদ আহম্মেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল লতিফ আতহারী, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান খান, শ্রীনগর উপজেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল বাতেন, সাধারণ সম্পাদক মো. আলতাফ হোসেন উজ্জ্বল এবং বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ প্রায় ৩’শতাধিক শিক্ষক কর্মচারীবৃন্দ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT