রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

মঙ্গলবার ০৯ মার্চ ২০২১, ২৫শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৬:০৯ পূর্বাহ্ণ

শাহজাদপুরে ইরি-বোরো রোপন শুরু, শৈত্যপ্রবাহের কারনে চিন্তিত কৃষক

প্রকাশিত : ০৫:২২ PM, ১৮ জানুয়ারী ২০২১ সোমবার ১১০ বার পঠিত

মিঠুন বসাক, বিশেষ সংবাদদাতা:
alokitosakal

কয়েকদফা বন্যার পর তীব্র শীত উপেক্ষা করে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৃষকরা ইরি-বোরো ধানের চারা রোপণ শুরু করেছে।

উপজেলার প্রায় প্রতিটি কৃষি জমি এমনকি শুকিয়ে যাওয়া বিভিন্ন খাল-বিল ও নদীর অববাহিকায় ইতোমধ্যেই বছরের প্রধান ইরি-বোরো আগাম জাতের ধান রোপন করা শুরু হয়েছে। সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন কৃষকরা ইরি-বোরো ধান চাষের জমি উপযোগী করছে।

ইঞ্জিন চালিত ট্রাক্টর দিয়ে মাটি আগলা করার পাশাপাশি সার দেওয়া ও শ্যালো মেশিন বসাতে শুরু করেছে। রবি সরিষা পাকলে তা উত্তোলন করার পরেই মূলত তারা ব্যস্ত হবেন প্রধান কৃষিশষ্য ধান চাষে।

নিম্নাঞ্চল হওয়ায় উপজেলার সবর্ত্র বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়ে প্রায় ৩-৪ মাস ফসলি মাঠ পানির নিচে থাকে। বন্যার পানি জমি থেকে নেমে যাওয়ার পর দ্বিতীয় প্রধান কৃষিশস্য রবি সরিষা চাষ শুরু হয়। এরপরেই বন্যার পানি প্রবেশের আগ পর্যন্ত চলে ধান চাষ। আর ১০-১৫ দিন পরেই মাঠে গড়াবে শ্যালো ও৷ বিদ্যুৎচালিত সেচ মেশিন।
তবে খাল-বিলের নিকটবর্তী জমিগুলোতে ইতোমধ্যেই ধান চাষ শুরু হয়েছে।

উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়নের রায়পুর গ্রামের কৃষক আব্দুল মজিদ জানান, আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ধানের বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্ক দূর হয়েছে।

তবে ইতিমধ্যেই শৈত্যপ্রবাহের কারনে শীতের তীব্রতা বেড়েছে, এরকম আবহাওয়া বেশিদিন থাকলে ইরি-বোরো চাষে ব্যাঘাত ঘটবে। আর আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে গত বছরের মতো এবরেও ইরি-বোরো চাষাবাদ ভলো হওয়ার আশা করছে কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. আব্দুস ছালাম বলেন, এ উপজেলার প্রধান কৃষি ফসল ধান হওয়ায় সর্বত্রই চাষাবাদের জন্য জমি প্রস্তুত করছে কৃষকরা। উপজেলার সব এলাকার কৃষকই ইরি-বোরো আবাদে নিজস্ব বীজতলা করেছেন। বীজতলায় চারার মানও ভালো আছে।

তিনি আরো জানান, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের ইরি-বোরো চাষে বিভিন্ন পরামর্শ দিচ্ছেন। প্রায় ২৪ হাজার হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো চাষ হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলেও জানান তিনি। শৈত্যপ্রবাহ বেশি দিন স্থায়ী হবেনা বলে তিনি আশা প্রকাশ করে জানান, আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য মতে শৈত্যপ্রবাহ ২/১ দিন থাকার পর আবহাওয়া অনুকুলে আশার সম্ভাবনা রয়েছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT