রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ ডামুড্যায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত।। ◈ চিরিরবন্দরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্দ্যোগে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ◈ কালিহাতীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ২ বন্ধুর মৃত্যু ◈ বাংলাদেশ একদিন ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে পৃথিবীর বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে,ভোলায় এমপি শাওন ◈ টাঙ্গুয়ার হাওরে নিষিদ্ধ কোনাজাল আটকের পর আগুনে পুড়ে ধ্বংস ◈ কালিহাতীতে মানবতার দেয়াল উদ্বোধন ◈ কুড়িগ্রামে ৪ বছর ধরে দুর্ভোগে লাখো মানুষ, উচ্চ আদালতের নির্দেশনার পরও সেতুর নির্মাণ কাজ বন্ধ ◈ ঘাটাইলে উচ্চ ফলনশীল বোরো ধানের বীজ ও সার বিতরণ ◈ ফুলপুরে পৌর কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা ◈ তাহিরপুরে নারী নির্যাতন বন্ধে,বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা

শখের আঁকাআঁকি থেকে সফল উদ্যোক্তা মিতু

প্রকাশিত : ০৯:৪১ PM, ২০ জুন ২০২১ রবিবার ২৩৪ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

রুপিন আকতার মিতু, জন্ম পাবনা। বাবা সরকারি চাকরি করতেন। বাবার চাকরিসূত্রে বেড়ে ওঠা ও পড়াশোনা রাজশাহীতে। মিতু রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক পাশ করেন। মিতুর স্বপ্ন ছিলো চাকর করার। কিন্তু বিয়ে হয়ে যাওয়ায় পরিবার ও সন্তানদের সামলিয়ে আর চাকরি করা হয়ে ওঠে নাই। মিতু বর্তমানে স্বামীর সঙ্গে রাজধানী ঢাকাতে বসবাস করেন।

মিতুর ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি প্রবল ঝোক ছিলো। কিন্তু পরিবারের আগ্রহ না থাকায় চারুকলায় পড়া হয়নি তার। তবে দমে যাননি অদম্য মিতু। বাড়িতে বসেই চর্চা করে গেছেন আঁকাআঁকির। নিজের জামাকাপড়ে সবসময় নিজেই ডিজাইন করে সেলাই করতো। সেই সাথে জামায় ফুল, লতা- পাতাসহ বাহারি ডিজাইন করতো।

২০১৯ সালের শেষের দিকে পৃথিবীতে মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় গৃহবন্দী জীবন যাপন করেছিলো সবাই। মিতুও গৃহবন্দী ছিলো। এসময় তার ভিতর অবসাদ কাজ করতে লাগলো। তার ভিতর কিছু করার স্পৃহা কাজ করতে লাগলো। মিতু ভাবতে লাগলো কি করা যায়। হটাৎ তার চিন্তা এলো সেতো হাতের কাজ পারে। এর আগেও অনেককে করে দিয়েছি। তাই সে অনেক ভেবে চিন্তে ফেসবুকের মাধ্যমে পেজ খুলে হাতের কাজ শুরু দিলো। ফেসবুকে পেজের নাম দিলো ‘বিশ্রুতি-Bishruti’।

বর্তমানে মিতু অবসর সময়ে ফেসবুকে কাজের অর্ডার নিয়ে তা গ্রহকের কাছে পোউছে দেন। আগে মিতু শুধু জামা কাপড়েই বিভিন্ন ফুল, লতা- পাতা দিয়ে ডিজাইন করতো। কিন্তু এখন তিনি শুধু পোশাকেই সীমাবদ্ধ না থেকে হেডব্যান্ড, স্যান্ডেল, ব্যাগ, মোজা, টিব্যাগ, দিয়াশলাই, মোমবাতি, ঝুড়ি সবকিছুতে আঁকতে শুরু করেন কাষ্টমারের পছন্দ অনুযায়ী।

মিতু বলেন, ‘বিভিন্ন কারনে চাকরি করা হয়ে ওঠেনি। আর করোনার সময় পুরোটাই গৃহবন্ধী ছিলাম। তাই সব সময় ভাবতাম এই অবসর সময়ে কি করা যায়। হাতের কাজ বা আঁকাআকি এসবে আগে থেকেই পারদর্শি ছিলাম। সেকাজই পরবর্তীতে অনলাইন বেসিসে করতে শুরু করি অর্থ উপার্জনের জন্য’।

তিনি আরও বলেন, ‘অফলাইনেও পরিচিতদের অনেক করেও দিয়েছি। কিন্তু সঠিক পারিশ্রমিক পাওয়া যেতনা। ততাই অনলাইনমুখী হওয়ার চেষ্টা করি। এখন বেশিরভাগ কাজ অনলাইন অর্ডারেরই করা হয়। ইচ্ছে আছে আমার ফেসবুক পেজ ‘বিশ্রুতি-Bishruti’ক­ে সফল ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। ইচ্ছে আছে সুযোগ হলে এই নামে শো-রুম দেওয়ার। পথচলা কেবল শুরু, কাজে আরও পারফেকশন এনে সামনে এগোতে চাই। এক্ষেত্রে আমি আপনাদের সকলের দোয়া প্রার্থী’।

সাজেদুর আবেদীন শান্ত, ফিচার লেখক ও গণমাধ্যমকর্মী

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT