রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

সোমবার ০১ মার্চ ২০২১, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৪:৪০ পূর্বাহ্ণ

রেলের গাছ কেটে ও হতদরিদ্রের ঘর ভেঙে রাস্তা নির্মাণ

প্রকাশিত : ০৪:০৭ AM, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রবিবার ২৫৯ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

রেলের গাছ কেটে ও হতদরিদ্রের ঘর ভেঙে রাস্তা নির্মাণ

গোয়ালন্দে রেলের বিশাল দুটি মেহগনি গাছ কেটে ও হতদরিদ্র একটি পরিবারের বসতঘর ভেঙে দিয়ে ব্যক্তিগত রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রেলের জায়গায় গাছ হলেও গাছ দুটি স্থানীয় বন বিভাগে সরবরাহ করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন অভিযুক্তরা।

রাজবাড়ী-গোয়ালন্দ ঘাট রেললাইনের পাশে ছোট ভাকলা ইউনিয়নের হাউলি কেউটিল গ্রামে গাজী সাইফুল ইসলাম বিদ্যানিকেতন নামে কিন্ডারগার্টেন স্কুল শুরুর উদ্যোগ নেন গাজী সাইফুল ইসলাম। পার্শ্ববর্তী একাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও তিনি স্কুলের নির্মাণ কাজ শুরু করেন। এর অংশ হিসেবে নির্ধারিত স্থানে যাতায়াতের পথ না থাকায় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে অবহিত না করেই রেললাইনের পাশে দুটি মেহগনি গাছ কেটে প্রশস্ত রাস্তা বের করেন। রাস্তার নির্মাণ কাজ করার সময় পাশে হতদরিদ্র আব্দুল সামাদ খাঁর বাড়ির একটি ঘর তিনি জোরপূর্বক ভেঙে দেন। সরেজমিন গেলে সামাদ খাঁর মা খোদেজা বেগম ও স্ত্রী শেফালী বেগম বলেন, ‘আমরা গরিব মানুষ, বাড়িতে পুরুষ মানুষ থাকে না। জোর-জবরদস্তি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে রেলের বড় দুটি গাছ এবং আমাদের ছাপরাঘর ভেঙে রাস্তা নির্মাণ করেছে গাজী সাইফুল। আমরা বাধা দিলেও সে কোনো কথা শোনেনি।’

প্রস্তাবিত গাজী সাইফুল ইসলাম বিদ্যানিকেতন কিন্ডারগার্টেন স্কুলে গেলে দেখা যায়, আজমত আলী বেপারী নামের একজন শিক্ষক কিছু কাগজপত্র নিয়ে বসে কাজ করছেন। তিনি জানান, কোনো গাড়ি না ঢোকার কারণে রেললাইনের পাশের দুটি মেহগনি গাছ ছোট ভাকলা ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে জানিয়ে কাটা হয়েছে। গাছ দুটি বন বিভাগের অফিসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারও ঘর জোর করে ভাঙা হয়নি। তাদের অনুমতি নিয়েই ঘর সরিয়ে দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে।

উপজেলা বন কর্মকর্তা মীর সাইদুর রহমান জানান, রেললাইনের পাশে রেল কর্তৃপক্ষ এবং বন বিভাগ যৌথভাবে স্থানীয়দের সমিতির মাধ্যমে এই গাছগুলো এক যুগ আগে রোপণ করে। গাছ কাটার বিষয়টি তিনি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। এরপর একটি গাছ তার অফিসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতীত গাছ কাটা আইনত অপরাধ। বিষয়টি তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে রাজবাড়ী অঞ্চলের আইডব্লিউ হাফিজুর রহমান জানান, এ ধরনের কাজ কেউ করে থাকলে দ্রুত তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত গাজী সাইফুল ইসলামকে ফোন করলে তিনি পরিচয় জেনে লাইন কেটে দেন। এরপর আর ফোন রিসিভ করেননি।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT