রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

রবিবার ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০১:১৯ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ শেরপুরে শ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচন; সভাপতি ফারুক, সম্পাদক জুয়েল ◈ মুক্তি পাওয়ার সাথেই সোশাল মিডিয়ার ব্যাপক সাড়া ধামইরহাটের কণ্ঠশিল্পী জাহাঙ্গীরের গানে ◈ ইনাতগঞ্জ পল্লী চিকিৎসক সমিতির আয়োজনে বিশ্ব করোনাকালীন সচেতনতা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক কনফারেন্সে অনুষ্ঠিত ◈ নজিপুর ইজি বাইক কল্যাণ সমিতির   বার্ষিক বনভোজন ◈ গোপালগঞ্জে দোলা পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ◈ মিম হত্যা বিচারের দাবীতে পত্নীতলায় মানববন্ধন ◈ ধামইরহাটে সোনার বাংলা সংগীত নিকেতনের বার্ষিক বনভোজন ◈ ধামইরহাটে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ◈ পত্নীতলায় করোনা সচেতনতায় নারীদের পাশে তথ্য আপা ◈ ফুলবাড়ীয়া ২ টাকার খাবার ও মাস্ক বিতরণ

যৌনদাসী হিসেবে বিক্রি হচ্ছে নারীরা!

প্রকাশিত : ০৪:৩৩ PM, ৭ অগাস্ট ২০১৯ Wednesday ২৪১ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

বিয়ে করে নারীদের চীনে পাচারের মতো এক নতুন সংকটের মুখে পড়েছে পাকিস্তান। চীনা পাত্ররা পাকিস্তান থেকে খ্রিস্টান নারীদের বিয়ে করে দেশে নিয়ে বাধ্য করছে যৌন কাজে। আর এ কাজে সহায়তা করছে স্থানীয় দালালচক্র। ভাগ্যক্রমে বেঁচে ফেরা নারীরা তাদের অভিজ্ঞতার বর্ণনা দিয়ে অন্যদের রক্ষায় উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

চীনা পাত্র আর পাকিস্তানি পাত্রী, ইসলামাবাদে বিভিন্ন চার্চে প্রতিনিয়ত দেখা মেলে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের জাঁকজমকপূর্ণ বিয়ের আয়োজন। বিশ্বের বৃহৎ জনসংখ্যার দেশ চীনে এক সন্তান নিতে অনুপ্রাণিত করা হয়। বেশ কয়েক বছর ধরেই দেশটির বিবাহযোগ্য পুরুষের জন্য পাত্রী সংকট দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় পাকিস্তানি খ্রিস্টান নারীদের আর্থিক স্বচ্ছলতার লোভ দেখিয়ে বিয়ে করছে চিনা পাত্ররা।

এই সুযোগে প্রলোভনের আড়ালে চলছে নারী পাচার। বিয়ে করে নিজ দেশে নিয়ে বানানো হচ্ছে যৌনকর্মী। ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞ কথা তুলে ধরেছেন ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া কয়েক নারী।

এ ব্যাপারে নাতাশা মাসিহ নামের এক নারী বলেন, বিয়ের পর থেকেই আমার স্বামী আমাকে মারধর করত। চীনে যাওয়ার সাথে সাথে আমার পাসপোর্ট কেড়ে নেয়। যাতে আমি না পালাতে পারি। তার দাবি সে পাকিস্তান থেকে আমাকে কিনে নিয়েছে। বিয়ের পর থেকেই প্রতিদিন বিভিন্ন পুরুষ দিয়ে আমাকে ধর্ষণ করাত আমার স্বামী।

সুমাইরা নামের অপর এক নারী বলেন, সাত দিন পর যখন বাড়িতে ফিরে আসি তখন আমি আমার ভাইয়ের সাথে চিৎকার করেছিলাম। জানতে চেয়েছিলাম কেন আমাকে বিক্রি করে দিয়েছিল। কত টাকা পেয়েছিলেন। আমার সাথে কি কি হয়েছে তা যদি সবার কাছে তুলে ধরি তাহলে হয়তো পাকিস্তানের অন্য মেয়েদের রক্ষা করা সম্ভব। আমি চাই না অন্য কোন মেয়ের জীবনে এমন টা ঘটুক।

সম্প্রতি পাকিস্তানের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে অন্তত পাকিস্তানের এক হাজার নারীকে। তবে মোটেও সহজ ছিল না সেই অভিযান পরিচালনা করা। উদ্ধারকৃতদের চাওয়া যেকোন মূল্যে বন্ধ করতে হবে নারী পাচার। আর উদ্ধার করতে হবে বেইজিংয়ে নির্যাততিত পাকিস্তানী নারীদের।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT