রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০, ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৭:২০ পূর্বাহ্ণ

যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রোগীরা

প্রকাশিত : ০৫:৩৯ AM, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ Sunday ১৬১ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

প্রতিদিন শত শত রোগী স্বাস্থ্যসেবা নিতে আসে রংপুরের পীরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। কয়েক মাস আগে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে। শয্যার সংখ্যা বাড়লেও সুবিধা বাড়েনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে। নানা সমস্যা বিদ্যমান থাকলেও নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অভাবে ময়লা-আবর্জনার দুর্গন্ধ বিপাকে ফেলেছে রোগী, স্বজন ও দর্শনার্থীদের। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হওয়া রোগীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অভাবে ময়লার স্তূপ জমে উঠেছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রবেশ পথ দিয়ে ভিতরে ঢুকেই দেখা গেছে চারদিকে ময়লা-আবর্জনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। সিঁড়ি দিয়ে দ্বিতীয় তলায় গিয়েও দেখা যায় একই অবস্থা। ওয়ার্ডগুলো দায়সারাভাবে পরিষ্কার করা হয়েছে। ওয়ার্ডের ভিতর থেকেই প্রতিটি জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে দেখা যায় জানালার পাশে পলিথিন, ভাত, তরকারি, পরিত্যক্ত খাবার ও ব্যবহূত সিরিঞ্জসহ বিভিন্ন ধরনের ময়লা-আবর্জনার স্তূপ জমে আছে। এসব ময়লা রোগী, রোগীর স্বজন ও নার্সরা বাইরে ফেলেছে। কিছু ময়লা জানালায় জমে রয়েছে। আবার বেশিরভাগ ময়লা নিচে পড়ে ময়লার ভাগাড় তৈরি হয়েছে। এসব ময়লা-আবর্জনা দীর্ঘদিন থেকে জমে থাকলেও কর্তৃপক্ষের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নের কোনো উদ্যোগ নেই।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিত্সা নিতে আসা রোগীর স্বজন তাজরুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত হয়েছে। কিন্তু তেমন কোনো সুবিধা বাড়েনি। সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ময়লা-আবর্জনার গন্ধ অসহ্য লাগছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যদি একটু সচেতন হয়, তাহলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা সঠিকভাবে বজায় থাকবে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিত্সা নিতে আসা রোগী রিনা বেগম বলেন, নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন না করায় ময়লা-আবর্জনা ছড়িয়ে থাকে। দুর্গন্ধের কারণে এখানকার সাধারণ মানুষসহ চিকিত্সাসেবা নিতে আসা অসুস্থ রোগীদের প্রতিনিয়তই দুর্বিষহ করে তুলেছে। এখানে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পরিষ্কার করার কোনো উদ্যোগ নেই।

পীরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু আল হাজ্জাজ বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরীণ কিছু সমস্যা রয়েছে। তবে শুধু আমরা সচেতন হলেই ময়লা-আবর্জনা সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। এজন্য রোগী ও রোগীর স্বজনদেরও সচেতন হতে হবে। তাদেরকে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা-আবর্জনা ফেলতে হবে। তাহলে আর এই অভিযোগ থাকবে না।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT