রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৯:০৬ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ নারায়ণগ‌ঞ্জে শীতলক্ষ্যা থেকে নারী-পুরুষের লাশ উদ্ধার ◈ বুড়িচংয়ে ৩ বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৪ জনকে আ’লীগ থেকে বহিস্কারের লক্ষ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ ◈ যুগান্তরের সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধির ফুফা শ্বশুরের ইন্তেকাল ◈ নবীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ◈ ভূরুঙ্গামারীতে পাথরডুবি ইউপি চেয়ারম্যান মিঠু দুর্নীতির মামলায় গ্রেপ্তার ◈ ব্রাহ্মণপাড়ায় মাদকাসক্ত ছেলের হাতে আহত পিতামাতা ◈ গঙ্গাচড়ায় নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শপথ গ্রহণ ◈ করিমগঞ্জে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ◈ নড়াইল লোহাগড়া সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালো মটরবাইক্ চালানো এক যুবক ◈ ভূঞাপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা

মায়ের ভালবাসা,শুধু মা দিবসেই নয়

আহাম্মদ কবির 

প্রকাশিত : ০৭:৩০ PM, ১০ মে ২০২০ রবিবার ৩৭৭ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

মা’শব্দটি একটি বর্ণ বা শব্দের হলেও,এই শব্দটি অতি মায়াভরা একটা শব্দ।পৃথিবীর সবচেয়ে মধুরতম শব্দ হল‘মা’যে শব্দের মধ্যে রয়েছে পৃথিবীর সকল সুখ-শান্তি, আনন্দ,ভালোবাসা এবং সকল মায়া জড়িত একটি শব্দ। পৃথিবীতে একটাই একমাত্র শব্দ যে শব্দের কথা মনে করলে সকল প্রকার দুঃখ-কষ্ট মুহূর্তের মধ্যে বিলীন হয়ে যায়। আর মুহূর্তের মধ্যে শান্তিতে ভরে ওঠে প্রাণ।

মা শব্দটির মধ্যে রয়েছে এক ভিন্নরকম শান্তি ।যে শান্তি পৃথিবীর অন্য কোনো শব্দে বা বস্তুতে মেলে না। এই পৃথিবীতে অনেকেই অনেক ভালবাসা বন্ধনে আবব্দ হয়েছিল,যেমন স্বামীস্ত্রীর ভালবাসা,প্রেমিকপ্রেমিকার ভালবাসা,বন্ধুত্বের ভালবাসা,প্রকারভেদে রয়েছে আর ভিন্ন ভিন্ন ভালবাসা। তবে সব ভালবাসার ঊর্ধ্বে একমাত্র নিঃস্বার্থ ভালোবাসা হল মায়ের ভালোবাসা। মায়ের ভালোবাসার সাথে আর কোনো কিছুর তুলনা হতে পারে না।

আজ বিশ্ব মা দিবস। তারিখ যাই হোক না কেনো মে মাসের দ্বিতীয় রোবাবার সারাবিশ্বে বিশ্ব মা দিবস হিসেবে পালন করা হয়ে থাকে। বস্তুত মায়ের প্রতি ভালোবাসা বা শ্রদ্ধার কোনো নির্দিষ্ট দিন নেই। প্রতিটা দিনই প্রতিটা সন্তানের কাছে তার মায়ের জন্য মা দিবস। প্রতিটা সন্তানের জীবন তার মায়ের গর্ভেই গড়া। একজন সন্তানের জনক তার মা।

একজন মা দীর্ঘ ১০ মাস ধরে তার গর্ভে সন্তানকে লালন করার পর একটা সন্তানের জন্ম দিয়ে থাকেন। এই সময়টা প্রতিটা মায়ের জন্য অনেক কষ্টকর একটা সময়। একজন মা তার নিজের জীবনের সর্বস্ব দিয়ে ভালোবাসেন তার সন্তানকে। যা পৃথিবীর আর কেউ পারে না। সন্তানের মঙ্গলকামনায় নিজের জীবনটা অনায়াসে বিসর্জন দিতে পারেন একজন মা। আর তাই এই মায়ের স্থান সকল কিছুর ঊর্ধ্বে। শুধু মা দিবসেই নয়, মাকে ভালোবাসুন প্রতিটা সময়, প্রতিটা দিনে।

তথ্যসুত্রে জানাযায় বিশ্ব মা দিবস প্রথম পালন করা শুরু হয় যুক্তরাষ্ট্রে। যুক্তরাষ্ট্রের আনা জার্ভিস ও তার মেয়ে আনা মারিয়া রিভস জার্ভিসের উদ্যোগে প্রথম মা দিবস পালিত হয়। আনা জার্ভিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোর ও ওহাইওর মাঝামাঝি ওয়েবস্টার জংশন এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। তার মা অ্যান মেরি রিভস জার্ভিস সারাজীবন অনাথদের সেবায় জীবন ব্যয় করেছেন। ১৯০৫ সালে মারা যান মেরি। অনাথদের জন্য মেরির এই নিঃস্বার্থ উৎসর্গিত জীবনের কথা অজানাই থেকে যায়।

লোকচক্ষুর অগোচরে কাজ করা মেরিকে সম্মান দিতে চাইলেন মেয়ে আনা জার্ভিস। তাই নতুন এক উদ্যোগ নেন তিনি। অ্যান মেরি রিভস জার্ভিসের মতো দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা সব মাকে স্বীকৃতি দিতে আনা জার্ভিস প্রচার শুরু করেন। তার সাত বছরের চেষ্টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পায় মা দিবস। ১৯১১ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি রাজ্যে মা দিবস পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। ১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে মা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে।

তবে মা দিবসের প্রবক্তা আনা জার্ভিস দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণের বিরোধিতা করে এসেছেন। তিনি বলেছিলেন, ‘মাকে কার্ড দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর মানে নিজ হাতে তার জন্য দুই কলম লেখার সময় না হওয়া। চকলেট উপহার দেয়ার অর্থ হলো- তা নিজেই খেয়ে ফেলা।’

এসব না করে এই দিনটিতে মায়ের জন্য এমন কিছু করতে অনুরোধ করেন তিনি যেন তা অর্থবহ হয়ে থাকে। মায়ের কাছে সন্তান সবসময় প্রিয়। প্রতিটা মা তার সন্তানকে নিজের থেকেও অধিক ভালোবাসেন। মায়ের ভালোবাসা পেতে হলে কখনও মাকে বলতে হয় না যে মা আমাকে একটু ভালোবাসো। মায়েদের কোনো চাওয়া-পাওয়া থাকে না। মায়েদের সুখ একটা জায়গায়তেই আর সেটা হলো তার সন্তানের সুখ।

মা ভালোবাসার এক অনন্য নাম। মায়ের মতো এমন শুভাকাঙ্ক্ষী জগতে আর নাই। মায়ের প্রতি আমাদের কর্তব্যের কোনো শেষ নেই। নিজের গায়ের চামড়া দিয়ে মায়ের জুতা বানিয়ে দিলেও সারাজীবনে কখনও মায়ের এক কণা দুধের ঋণ শোধ করা সম্ভব না।

একজন সন্তানের প্রথম কর্তব্য হলো মাকে খুশি করা। মায়ের মনে কোনো দুঃখ না দেয়া। মায়ের সাথে কোনো খারাপ ব্যবহার না করা। আমরা আমাদের মায়েদের সবসময় সম্মান করব। মাকে ভালোবাসব। আজ বিশ্ব মা দিবসে সকল মায়ের প্রতি রইল বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT