রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৪:৩৪ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ রায়পুরে মেঘনা নদী থে‌কে অস্ত্রসহ ৭ জলদস‌্যু আটক ◈ পরকীয়া সন্দেহে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন, স্ত্রী আটক ◈ নবীগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ প্রতিযোগীতা সফলে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত ◈ ভালুকায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত এক আহত ছয় ◈ ধামইরহাটে বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহার আলী আর নেই, রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন ◈ ধামইরহাটে পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলরদের বিদায় ও বরন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত ◈ রায়পুরে আওয়ামী লীগের মেয়র পদপ্রার্থীর নির্বাচনী ইশ‌তেহার ঘোষণা ◈ না.গ‌ঞ্জে বিদ‌্যুৎস্পৃ‌ষ্টে ইউ‌পি চেয়ারম‌্যা‌নের ভাই‌য়ের মৃত‌্যু ◈ দীর্ঘদিন সরকারে থাকায় সব খাতে উন্নয়ন হচ্ছে ◈ যুক্তরাষ্ট্রে অনথিভুক্ত বাংলাদেশিদের নথিভুক্তের অনুরোধ মোমেনের

মাদারীপুরে বাহাদুপুরবাসীর চলাচ‌লে ‌পিতা-পু‌ত্রের প্রতিবন্ধকতা!

প্রকাশিত : ০৭:৪৪ PM, ২১ জানুয়ারী ২০২১ বৃহস্পতিবার ৩২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার বাহাদুরপুর এলাকার বাসিন্দা মো. কাশেম ভাঙ্গী ও তার ছেলে তাজুল ইসলাম রাজীবের বিরুদ্ধে জনসাধারণের চলাচল ও যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকার প্রবেশ পথে এলোপাথাড়ি খুঁটি স্থাপন করে লোকজনের চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। এতে এলাকার মানুষেরা সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছে। এই পিতা-পুত্রের কাছে এলাকার মানুষ এখন অনেকটা জিম্মি হয়ে রয়েছে।

এ ব্যাপারে এক সপ্তাহ আগে শিবচর থানায় জিডি হলেও অদ্যবধি এর কোন সুরাহা করতে পারেনি পুলিশ।

অবশেষে এলাকার একজন বিশিষ্ট ব্যক্তি মনিরুল ইসলাম মাদারীপুর পুলিশ সুপারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে একটি অভিযোগ করেছেন। গত বুধবার ( ২০ জানুয়ারি) এলাকারবাসীর পক্ষে তিনি এ অভিযোগ জমা দেন।

বাহাদুরপুর এলাকার মৃত শফিকুল ইসলামের ছেলে মনিরুল ইসলাম এসপি বরাবর অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, বাহাদুরপুর গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের চলাচল ও যাতায়াতের পথ বন্ধ করে মারাত্মকভাবে জিম্মি করে রেখেছে মো. কাশেম ভাঙ্গী ও তার ছেলে তাজুল ইসলাম রাজীব। এই পিতা-পুত্র গ্রামের প্রবেশ পথে কয়েক জায়গায় বিভিন্নভাবে এলোপাথাড়ি খুঁটি গেড়ে রেখেছে। যার কারণে এলাকার সর্বসাধারণ চলাচলে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

এ ব্যপারে মনিরুল ইসলামের বাড়ির কেয়ারটেকার জিন্নাত তালুকদার এক সপ্তাহ আগে শিবচর থানায় একটি জিডি করেন। এরপর থানার এএসআই শেখ মো. রাসেল সরেজমিনে বিষয়টি তদন্ত করেন এবং ছবি তুলে নিয়ে যান।

কিন্তু কোনও এক অজানা কারণে পুলিশ আর এ বিষয়ে সামনে বাড়েনি। পুলিশ আজ পর্যন্ত এলাকার মানুষকে পিতা-পুত্রের জিম্মি দশা থেকে উদ্ধারে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। এমনকি দায়ী ও দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কোনও রকমের ব্যবস্থা করা হয়নি।

এ অবস্থায় এলাকাবাসীর সীমাহীন দুর্ভোগ ও কষ্টের কথা চিন্তা করে মনিরুল ইসলাম এগিয়ে এসে পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন। গ্রামবাসীকে পিতা-পুত্রের জিম্মিদশা থেকে রেহাই দিতে পুলিশ সুপারের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
একজন সৎ, ন্যায়পরায়ণ ও বিচক্ষণ পুলিশ সুপার হিসেবে উল্লেখিত বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধান করবেন বলে মনিরুল ইসলাম বিশ্বাস করেন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT