রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১০:৫০ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ সাটুরিয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টায় একজন গ্রেফতার ◈ তাহিরপুর হাওর পাড়ে বৃক্ষরোপণের স্থান পরিদর্শন করেন,ইউএনও ◈ সরকারি কাজে বাধা, যুবকের তিনমাস কারাদণ্ড ◈ গজারিয়ায় কম্বিং অভিযানে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ২ টি বেহুন্দি জাল আটক করে -কোস্ট গার্ড ◈ বান্দরবানে সেনা জোনে ১১০ ব্রিগেড সিগন্যাল কোম্পানী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত ◈ শাহজাদপুরে আইনজীবীদের আদালত বর্জন অব্যাহত ◈ জুতা পরে কমলমতি শিশুদের ক্লাসে ঢুকতে দেয় না প্রধান শিক্ষক ◈ রবিবা’র আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বিষয়ে দুই প্রতিষ্ঠানের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ◈ পাকুন্দিয়ায় শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ◈ ভূঞাপুরে কর্মসৃজন প্রকল্পের কাজের উদ্বোধন

মাজেদ কি নেত্রীকে হত্যা করতে এসেছিল?

প্রকাশিত : ১১:৪৬ PM, ৮ এপ্রিল ২০২০ বুধবার ২৩৮ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

জয়নাল হাজারী ॥
বঙ্গবন্ধুর খুনি এবং ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মাজেদ দুইদিন আগে মিরপুর থেকে গ্রেফতার হয়েছে। বলা হচ্ছে সে কলকাতায় ২৫ বছর কাটিয়েছে। সে বাংলাদেশে কবে এসেছে এবং কিভাবে এসেছে, কেন এসেছে এটা এখনো পরিষ্কার নয়। সব কিছুই খানিকটা রহস্যজনক। আশা করা যাচ্ছে দুই একদিনের মধ্যেই সব কিছু খোলসা হয়ে যাবে। আমি মনে করি কলকাতায় তার সঙ্গে অসংখ্য বাংলাদেশীর বিভিন্নভাবে যোগাযোগ ছিল। এদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রিয় ব্যক্তিরাও থাকতে পারে। এই নামগুলো বের করে আনতে হবে। বঙ্গবন্ধুর কোন খুনিকেই বাংলাদেশে পালিয়ে থাকা অবস্থায় গ্রেফতার করা হয়নি।

যখন যাতায়েতের সকল দুয়ার বন্ধ তখন মাজেদ কি করে বাংলাদেশে এলো সেটি বের করা জরুরি। যাদের গাফেলতিতে সে এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে তাদেরকে ছাড় দেয়ার কোন সুযোগ নাই। এবার সব চাইতে রহস্যজনক প্রশ্নটি হচ্ছে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হয়েও দীর্ঘদিন পর সে কেন বাংলাদেশে এলো। সারা পৃথিবীর মত বাংলাদেশও করোনা নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে ঠিক সেই সময়ে মাজেদ কি আরো একটি হত্যাকান্ড ঘটাতে চেয়েছিল? মাজেদ জানে সকলের দৃষ্টি করোনার দিকে এবং এই সুযোগে আরেকটি হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারলে হয়তো তারা বেঁচে যাবে। এসব নিশ্চয়ই জিজ্ঞেসাবাদে বেরিয়ে আসবে। আমার কাছে এখন সব চাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে এই মাজেদের দণ্ড দ্রুত কার্যকর করা। কেননা করোনা কখন কোন দিকে মোড় নেয় কেউ তা সঠিক করে বলতে পারেনা।

এমনও তো হতে পারে ফাঁসি দেয়ার লোকও থাকবে না। একটি ভিডিও তে দেখছিলাম একটি ছোট্ট শহরে এখন আর কেউ নেই। সবাই মরে গেছে এবং যে যেখানে মৃত্যুবরণ করেছে সেখানেই তাদের লাশ পচে-গলে একাকার হয়েছে। এইরূপ পরিস্থিতি অবশ্যই কারো কাম্য নয়। তবুও এর কাছাকাছি কিছু হলে মানুষ পালাতে থাকবে। কোথাও কাউকে পাওয়া যাবে না। করোনার আক্রামণ ছাড়াও খাদ্যের কারণেও লক্ষ লক্ষ মানুষ পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে। মোটকথা সময় ক্ষেপন করার সুযোগ নেই। এখনই কথা বের করে ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে। করোনার কারণে অনেক মানুষ মারা যাচ্ছে আবার আমাদের দেশে অনেকে আইনের উর্ধ্বে উঠে গেছে। করোনার কারনেই ফেনী নোয়াখালির ফোর লেনের কাজ আজও যারা বন্ধ করে রেখেছে তাদের কিছুই হলো না।

সমাবেশ বন্ধ করার জন্য যেখানে মসজিদে যাওয়া পর্যন্ত আটকে দেয়া হয়েছে সেখানে যারা রিলিপ দেয়ার নামে হাজার হাজার মানুষকে জড়ো করেছে তাদের কিছ্ইু হলো না। যারা করোনার জন্য হাসপাতাল করার সময় হামলা করে তা বন্ধ করেছে ওদেরও কিছুই হলো না। সরকারের নির্দেশ অমান্য করে যারা গার্মেন্টস শ্রমিকদের ঢাকায় জড়ো করেছে এবং এখনো তাদের পক্ষে কথা বলছে তাদের কিছুই হলো না। গার্মেন্টস শ্রমিকদের যে মালিকরা শ্রমিকদের ঢাকায় জড়ো করেছে তাদের ব্যাপারে আজ পীর হাবিবুর রহমান অত্যন্ত জ্ঞানও গর্ব একটি নিবন্ধ লিখেছে বাংলাদেশ প্রতিদিনে। আমি তাই তাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। মাজেদ কি তবে এই মূহুর্তে নেত্রীকে হত্যা করতেই চুরি করে দেশে প্রবেশ করেছিল? বিষয়টিকে দয়া করে কেউ হালকাভাবে নেবেন না।

লেখক উপদেষ্টা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সাবেক সংসদ সদস্য।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT