রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২, ২রা ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

০৬:৩৯ অপরাহ্ণ

মহেশপুরে এক স্কুল ছাত্রীকে পিটিয়ে ও গলাই ফাঁস দিয়ে হত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত : 08:36 PM, 18 October 2019 Friday 753 বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

শামীম খাঁন, মহেশপুর (প্রতিনিধি) ঝিনাইদহ :

সোনালী নামের এক ছাত্রীর কু-কর্ম দেখে ফেলায় ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী লিমা খাতুনকে (১৪) স্কুলের টয়লেটের মধ্যে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে ও গলাই ফাঁস দিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। পরে চিৎকার শুনে স্কুলের সহপাটিরা গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে লিমা খাতুনকে। গুরুতর অবস্থায় লিমা খাতুনকে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার জিন্নাহনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকালে আহত ছাত্রী লিমা খাতুন বাদি হয়ে সোনালী খাতুনকে আসামী করে মহেশপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আহত ছাত্রী লিমা খাতুন জানান, মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী সোনালী আপা আমাকে ডেকে নিয়ে স্কুলের টয়লেটের মধ্যে নিয়ে যায়। পরে আমাকে কিছু জিজ্ঞাসা না করেই আমার দু’চোখে, মুখে কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে আমি টয়লেটের মধ্যে পড়ে গেলে আমাকে গলাই দড়ি দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। কিন্তু আমার চিৎকারে আমার বান্ধবীরা ছুটে গিয়ে আমাকে রক্ষা করে।

আহত ছাত্রী লিমা খাতুন পিতা আনোয়ার হোসেন জানান, আমার মেয়ে সোনালী খাতুনের কোন ঘটনা দেখে ফেলে দিয়েছিলো বলেই সে আমার মেয়েকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলো।

জিন্নাহনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রুনু খাতুন জানান, আমি শুনেছি স্কুল এ্যাসেম্বিলির আগে আমার স্কুলের দু ছাত্রী কি বিষয নিয়ে মারামারী করেছে। আমি তাদেরকে চোখেও দেখিনি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন জানান, জিন্নাহনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী লিমা খাতুনকে যে ভাবে মারা হয়েছে তা ভাবাই যায়না। আমার মনে হয় আর ৫/১০ মিনিট থাকলে ছাত্রীটি মারা যেতো।

তিনি আরো জানান, যে ছাত্রী মেরেছে তার কঠিন বিচার হওয়া উচিৎ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সুজন সরকার জানান, ছাত্রীর অভিভাবকরা ছাত্রীটিকে আমার অফিসে নিয়ে এসেছিলো। কিন্তু ছাত্রীটিকে যে ভাবে মারা হয়েছে আমি তা দেয়ে থানায় পাঠিয়ে দিয়েছি মামলা করার জন্য।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT