রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

মহেশখালী ধলঘাটায় শ্রমিকদের রক্ত চুষে নিচ্ছে:নেবিগেশন সিকিউরিটি কোম্পানী

প্রকাশিত : ০৩:৫৫ অপরাহ্ণ, ২৪ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ১৫২ বার পঠিত

সৈয়দ আক্কাস উদদীন, কক্সবাজার সদর প্রতিনিধি:
alokitosakal

সৈয়দ আক্কাস উদদীন, সদর কক্সবাজার :

কক্সবাজারের মহেশখালী সরকারের কাছে বা বিদেশী,সংস্থার কাছে অর্থনৈতিক জোন হিসেবে খুব বেশী গুরত্ব পাচ্ছে, এগিয়ে ও যাচ্ছে একের পর এক প্রকল্প কিন্তু কোন রকম ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেনা ওখানে কাজ করা শ্রমিকদের।
অসহায় নিপীড়িতঁ মানুষ গুলো ওখানকার প্রকল্পে কাজ করে পরিবারকে দু মুঠো অন্ন দেয়ার আশায়।
কিন্তু সে আশার বদলে তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বিতাড়িত করে প্রতিনিয়ত শ্রমিকদের থেকে উল্টো চাদাঁ আদায়ে ব্যস্ত মহেশখালী ধলঘাটার ইকোনোমিক জোনের ৩ এ চায়না কোম্পানী হতে কাজ পাওয়া, বাংলাদেশী কোম্পানী নেবিগেশন সিকিউরিটি কোম্পানী।
আন্তর্জাতিক ভাবে শ্রম আইন প্রতিষ্ঠিত কর্মঘন্টা ৮ঘন্টা করে, আর তারা শ্রমিকদের অনেকটা বন্দী করে আটকিয়ে নির্যাতনের কিংবা পূর্ববর্তী মাসের টাকা দিবেনা মর্মে হুমকির মুখে কাজ করিয়ে নিচ্ছে ১৪ঘন্টা করে।

তাদেরকে বেতন দেয়ার কথা ছিলো,১৮হাজার টাকা কিন্তু এই কোম্পানী বেতন দিচ্ছে ৯৫০০ টাকা করে বাকি টাকাটা তাদের পকেটে থেকে যায়, এবং বাকি টাকা চাইলে চাকুরিচ্যুত করবে বলে হুমকি দেয় ওখানকার আনোয়ার।বাকি টাকা কোন খাতে ব্যয় করা হয় তার এখনো সঠিক জবাব দিতে পারেনি সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষ।

কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে আনোয়ার নামে নেবিগেশন কোম্পানীর একজন কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়,তাকে কল করলে সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর ফোন অফ করে রাখে।

প্রতিবেদক ২/৩দিন ধরে তাদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ও কেউ এ বিষয়ে মুখ খুলতে রাজি হয়নি।

ওই নেবিগেশন কোম্পানীতে জীবিকার তাগিতে কর্ম করলে ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগেছেন অনেক কর্মচারী এমন মন্তব্য করলেন ধলঘাটা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো:বেলাল। তিনি বলেন শ্রমিকদের জন্য চিকিৎসা ব্যবস্থা করার কথা ছিলো কিন্তু করেনি। যাতায়াতের ব্যবস্থা এবং প্রভিডেন্ট ফান্ড করার কথা ছিলো কিন্তু করেনি।

কেউ যদি ন্যায্য দাবীর কথা বলে তাকে চাকরিচ্যুত তো দূরের কথা মেরে গুম করার ও হুমকি প্রদান করেন নেবিগেশন কোম্পানী। এতটা প্রভাবশালী এবং হিংসুটে কোম্পানী দিন দিন ধলঘাটা বাসীর নিকট চরম আতংকে পরিনত হচ্ছেন বলে এই বেলাল অভিযোগ করেন।

এই বিষয়ে জানতে নেবিগেশন কোম্পানীর কর্মকর্তা ওবায়দুল বক্তব্য দেয়া যাবেনা উপরের নির্দেশ বলে জানান।

এই বিষয়ে কক্সবাজার মহেশখালীর শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক জনাব সরোয়ার আলম জানান, নেবিগেশন কোম্পানীর উপর শ্রমিক এবং এলাকা যে ভাবে ক্ষিপ্ত তাতে মনে হচ্ছে কোম্পানীর সাথে এলাকাবাসীর যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বা প্রানহানির মতো ঘটনা ঘটতে পারে।

তাই এরকম পরিস্থিতি না হয় মত আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে কোম্পানীকে অনুরোধ জানায় নতুবা শ্রমীকদের অধিকার আদায়ে,তাদের সাথে নিয়ে সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্বে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচী দিব,মানববন্ধন এবং তাদের কাজ বাতিলে স্মারক লিপি সহ সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।।।

উল্লেখ্য :ধলঘাটা ঘুরে দেখা গেলো সরেজমিনে এই নেবিগেশন কোম্পানীর কাছে চাকরি করা অনেক লোকের পরিবারের উপোষ থাকার কাহিনী।
নির্দিষ্ট সময়ে বেতন নেয়ার সময়,ও প্রতিজন থেকে ১০০ টাকা করে ঘুষ হিসেবে কেটে রাখা হয়।।।।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT