রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৫:২৮ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ দুর্ঘটনা ও অ‌গ্নিকান্ড প্রতি‌রো‌ধে ডি‌পি‌ডি‌সির প্রচারা‌ভিযান ◈ রাজশাহীর কেশরহাটে সাংবাদিকদের সাথে মেয়র শহিদের নির্বাচনী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ◈ দশমিনায় বাবাকে জবাই করে হত্যাকারী ছেলে ইমরান গ্রেফতার ◈ সরকারি অর্থ আত্মসাত ও স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত ◈ ধীতপুর ইউনিয়ন তাতীঁলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন ◈ রাজশাহীতে বাসের ধাক্কায় সিএনজির চালকসহ আহত ৩ জন ◈ ধামইরহাটে মুজিববর্ষে ১৫০ গৃহহীন পাচ্ছে নতুন ঘর, দেখছে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন ◈ কুড়িগ্রামে শাক সবজী চাষে ঘুরে দাড়ানোর চেষ্টা কৃষকদের ◈ মোহনগঞ্জে সাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবক নিহত ◈ দৌলতপুরে মোটরসাইকেল ও স্টারিং গাড়ি মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১

ভ্রমণ পিপাসুদের তৃষ্ণা মেটাবে পাহাড়ি ঝর্ণা

প্রকাশিত : ০৪:০১ AM, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ Saturday ২৬০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

 

রাঙ্গামাটিতে পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে জেলার বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছটিয়ে থাকা পাহাড়ি ঝর্ণাগুলো। পার্বত্য এ জেলায় পর্যটন শিল্পের তেমন উন্নতি না হওয়ায় পর্যটকরা এখন ছুটছেন পাহাড়ি ঝর্ণাগুলোর দিকে। আর ঝর্ণা ঘিরে সেসব দুর্গম অঞ্চলগুলোতেও গড়ে উঠছে পর্যটন ব্যবসা।

রাঙ্গামটিতে আগে ঘুরতে আশা পর্যটকরা ঝুলন্ত ব্রিজের দিকে আর্কষণ ছিল প্রচুর। কিন্তু বর্তমানে বছরের কিছুটা সময় ঝুলন্ত ব্রিজটি পানিতে তলিয়ে থাকা এবং স্পটটির তেমন কোনো উন্নয়ন না করায় আকর্ষণ কমছে পর্যটকদের। অপরদিকে কৃত্রিম উপায়ে শহরে আরও দুই একটি পর্যটন স্পট সাজানো হলেও সেগুলোর পাশাপাশি প্রকৃতিপ্রেমীরা ছুটছেন শহরের দূরবর্র্তী ও অদূরবর্তী পাহাড়ি ঝর্ণাগুলোতে।

প্রায় প্রতিদিনই রাঙ্গামাটির পাহাড়ি ঝর্ণাগুলোতে পর্যটকদের পদচারণা থাকছে। সেই হোক বিলাইছড়ির দুর্গম পথ ‘ধুপপানি’, কিম্বা শহরের অদূরবর্তী শুবলং বা ঘগড়া ঝর্ণা। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ঝর্ণাগুলোতো আছেই।

পর্যটন কর্মী বিশ্বজিৎ কর্মকার জানান, প্রকৃতির নির্মল ছোঁয়া পেতে প্রায় প্রতিদিনই পর্যটকের আনাগোনা বাড়ছে ঝর্ণাটিতে। এটি দুর্গম অঞ্চলে হলেও সেখানে প্রকৃতির ছোঁয়ায় সে দুর্গমতা কাটিয়ে উঠা সম্ভব।

বিলাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পারভেজ চৌধুরী জানান, ধুপপানি ঝর্ণা দেখতে প্রতিদিন প্রচুর পর্যটক আসছে। ঝর্ণাটি দুর্গম ফারুয়া ইউনিয়নে অবস্থিত। সেখানে মোবাইল নেটওয়ার্কও নেই। তবে সেখানে যেসব গাইড পর্যটকদের নিয়ে যায় তারা সংখ্যায় খুব বেশি না। তারা প্রশাসনের জানাশোনার মধ্যে আছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT