রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

০৭:৪৬ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ গভীর রাতে খাবার নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে জনি ◈ জামালপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ছয়টি দোকান ও গুদামের ৪০ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই ◈ জামালপুরে ঘর থেকে তুলে নিয়ে কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ ◈ রাতের আধারে বাড়ি বাড়ি চাল-আলু পৌঁছে দিল জনি ◈ “মানুষ মানুষের জন্য” কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন এমপি ◈ রংপুর সদরের সদ্যপুষ্করিনীতে কর্মহীন ও দুস্থ মানুষের মাঝে চাল বিতরণ ◈ অসহায়দের বাড়িতে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিলো যুবলীগ নেতা রাজু ◈ আখাউড়ায় করোনা মোকাবেলায় দরিদ্র মানুষের পাশে নেই জন প্রতিনিধিরা ◈ ময়মনসিংহে জেএমবি’র ৪ সদস্য গ্রেপ্তার ◈ গৌরীপুরে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সামগ্রী ও হতদরিদ্রের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন মোহনা এন্টারপ্রাইজ

বাংলাদেশ বা ভারতের মতো দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়া কি কঠিন?

সোহেল রানা

প্রকাশিত : ১০:৪৫ AM, ২১ মার্চ ২০২০ Saturday ১৩ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

বাংলাদেশ বা ভারতের মতো গরম ও অপেক্ষাকৃত বেশি আদ্রতাসম্পন্ন দেশগুলো কি করোনা থেকে ন্যাচারাল ইমিনিউটি পায়?
অর্থাৎ এসব দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়া কি কঠিন?

প্রশ্নের সঠিক উত্তর হলো আমরা নিশ্চিতভাবে বলতে পারছি না, আমাদের কাছে পর্যাপ্ত তথ্য ও উপাত্ত নেই।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তার ওয়েবসাইটে ‘মিথ বাস্টার’ বা গুজব প্রতিরোধ সংক্রান্ত পেইজে প্রথম মিথ হিসেবে এই প্রশ্নটিকে চিহ্নিত করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে,

” এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য, উপাত্ত ও প্রমাণাদির ভিত্তিতে, করোনা সকল ধরণের জলবায়ুতে ছড়াতে পারে- উষ্ণ ও আদ্র জলবায়ুর দেশসহ। ফলে সকল অঞ্চলের মানুষেরই করোনা বিস্তার বন্ধে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিৎ”

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ছড়াতে পারে অর্থাৎ ছড়ানো অসম্ভব না। প্রশ্ন হলো বাংলাদেশ বা ভারতে ছড়ানোর সম্ভাবনা কতটুকু?

এ বছরে মার্চের ১২ তারিখে বিখ্যাত ভারতীয় দৈনিক ইকোনমিক টাইমস ” India has an innate, natural defence against coronavirus?” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

সেই প্রতিবেদনে ভারতের মেডিক্যাল এসোসিয়েশন এর সাবেক সভাপতি ও হার্ট কেয়ার ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট ডা. কে. কে. আগরওয়াল এর এক মন্তব্য প্রণিধানযোগ্য। ডা. আগরওয়াল বলেন, ” ভারতের আবহাওয়া করোনার বিরুদ্ধে এক ধরণের ন্যাচারাল ইমিনিউটি দেয়। সে কারণেই সার্স, ইবোলা বা মার্সের কারণে ভারতে সে ধরণের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ভারতের গরম ও আদ্র আবহাওয়া এ ধরণের ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়াকে প্রতিরোধ করে”

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইন্টারন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ কার্ডিয়াক সায়েন্স এর ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিভাগের প্রধান মন্তব্য করেন, ” আবহাওয়া অবশ্যই এক ধরণের প্রতিরোধক। এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ এর ছড়ানোর ভৌগলিক ডিস্ট্রিবিউশন দেখলে দেখা যায় যে,
করোনা মূলত ঠান্ডার দেশগুলোতেই বেশি ছড়িয়েছে।”

একই ইন্সটিউটের ডা. অরিন্দম বিশ্বাসের ধারণা, ” ভাইরাসের বিস্তার নির্ভর করে মূলত তিন বিষয়ের উপর- ভাইরাসের নিজের প্রকৃতি, হোস্ট বা যাকে ভাইরাস আক্রমন করে এবং আবহাওয়া। ভাইরাস ও হোস্ট সবখানে একইরকম হলেও ভারতীয় আবহাওয়া ভাইরাস ছড়ানোর জন্য আদর্শ নয়”

কিন্তু এ বিষয়ে ভিন্ন মতামত বা দ্বিমত আছে কি? বিশ্ব স্বাস্থ্য কেন বলছে ভাইরাস যেকোন আবহাওয়ায় ছড়াতে পারে?

হার্ভার্ডের পাবলিক হেলথের প্রফেসর বিশ্বনাথ মনে করেন, ” ভাইরাসটি যদি অন্যান্য ছোয়াচে রোগের সাথে ছড়িয়ে পড়ে তবে সেটি অবশ্যই ভারত বা গরম অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তে পারে”

টাইমসের ২৮ ফেব্রুয়ারির প্রতিবেদন ” Will Warmer weather stop the spread of Coronavirus? Don’t count on it says Experts” এ যুক্তরাষ্ট্রের ডিউক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডা. গ্রেগরি গ্রে মন্তব্য করেন, ” গরম আবহাওয়া করোনা সংক্রমন কমাবে কি না সেটা বলা বেশ কঠিন! অন্যান্য করোনা ভাইরাসগুলো যেগুলো আমরা আগে দেখেছি সেগুলোর প্রকোপ গরমে বেশি তাপমাত্রা, বায়ুপ্রবাহ বৃদ্ধিতে ও গরমে অতিবেগুনী রশ্মির প্রভাবে কমে যেতে আমরা দেখেছি। তবে এই ভাইরাসটি বেশ সংক্রামক। মানে হলো এই ভাইরাসের বৃদ্ধিক্ষমতা বেশি এবং প্রায় সকল মানুষই এর হোস্ট। ফলে আমার ধারণা হলো, গরমে এটি কমবে ১৫-২০%, তবে বন্ধ হবে না।”

একই প্রতিবেদনে পেন স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এলিজাবেথ মাকগ্রু বলেন, ” ভাইরাসটি নতুন বলে গরম এর বিরুদ্ধে ন্যাচারাল ইমিনিউটি দিবে এটা ভাবাটা ঠিক হবে না। আমরা এই ভাইরাসের সাথে এখনো এক বছর ঠিকমতো বসবাস করিনি।”

উপরের আলোচনা থেকে আপনারা বুঝে নিন বাংলাদেশের গরম ও আদ্রতা করোনাকে কতটুকু ঠেকাতে পারে। ধন্যবাদ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT